মানুষ ওরাও

গেইল আর এবিডি ভিলিয়ার্সকে টিটোয়েন্টির এই মারকাটারি যুগে বাকি ক্রিকেটারদের চাইতে আলাদা জায়গায় রাখা হয় । ভিলিয়ার্সের নামটা মূলত তার ইনোভেশন কাজে লাগিয়ে যে কোন বলকে বাউন্ডারিতে কনভার্ট করার জন্যে এসেছে আর গেইলেরটা এসেছে তার পেশিশক্তির কারণে । একজন যে কোন বল ভালো করে হিট করে ছক্কা মারতে পারেন আর আরেকজনের মিসহিটও ছক্কা হয় ।
তবে আপাতত উপমহাদেশ দুজনের জন্যেই সারপ্রাইজের ডালি সাজিয়ে রেখেছে । ওয়ানডে সিরিজে ফ্ল্যাট উইকেট বানিয়ে ভিলিয়ার্সের কাছে নাকানি চুবানি খাওয়ার পরে পিচ নিয়ে আলাদা কিছু করা ছাড়া ভারতের কাছে উপায় ছিলো না । এবং সেই আলাদা কিছু করে আপাতত সফল …
ভারত ৩-০ দক্ষিণ আফ্রিকা …
এবি টেস্ট সিরিজে একেবারেই রান পায় নি বলা যাবে না । একটা চল্লিশ ছাড়ানো ইনিংস ছিলো । তবে সেই ডমিনেশনের শেষ দেখিয়ে ছেড়েছে ভারতের টার্নিং উইকেট ।
টেস্টেও বলের সাথে পাল্লা দিয়ে রান করা এবি কই ? উত্তর পিচের হাতে।
একইভাবে মুদ্রার অন্য পিঠটা দেখতে হচ্ছে গেইলকেও । বিপিএলের দুটো ম্যাচেই এখনো পর্যন্ত ফ্লপ । সুইফটলি ব্যাটে বল না আসলে যা হয় আর কী !
ওপাশে ভারতের টার্নিং উইকেট দেখিয়ে দিচ্ছে এবির মানুষিক রূপ ।
আর এপাশে বিপিএলের অতিব্যবহৃত জীর্ণশীর্ণ স্লো উইকেট ক্রিস্টোফার হেনরি গেইলকে নামিয়ে এনেছে মাটিতে ।

কমেন্টস

কমেন্টস

মন্তব্য করুন

sixteen − 14 =