মহিলা ফুটবল সাফল্যে বাংলাদেশ : চার জাতি টুর্নামেন্ট জয়

মহিলা ফুটবল সাফল্যে বাংলাদেশ : চার জাতি টুর্নামেন্ট জয়
বিদেশের মাটিতে দেশের ফুটবলের নাম উজ্জ্বল করার ধারা অব্যাহত রেখেছে বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৫ মহিলা ফুটবল দল। চার জাতি জকি ক্লাব মহিলা ফুটবলের ফাইনালে আজ স্বাগতিক হংকংকে ৬-০ গোলে হারিয়ে অপরাজিত চ্যাম্পিয়ন হয়েছে বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৫ মহিলা ফুটবল দল।
 
নিজেদের প্রথম ম্যাচে মালয়েশিয়ার বিপক্ষে ১০-১ গোলে জয় পায় বাংলাদেশ। দ্বিতীয় ম্যাচে ইরানকে ৮-১ গোলে পরাজিত করে তারা। সর্বশেষ আজকে নিজেদের শেষ ম্যাচে স্বাগতিক হংকংকে ৬-০ গোলে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করে বাংলাদেশের মেয়েরা।
 
আজ বাংলাদেশের ছয় গোলের তিনটি করে হ্যাটট্রিক করেছেন তহুরা। গতকাল ইরানের বিপক্ষেও হ্যাটট্রিক করেছিলেন এই তহুরা। হংকংয়ের বিপক্ষে অন্য তিনটি গোল করেছেন সাজেদা, শামসুন্নাহার ও আনুচিং মোগিনি। টুর্নামেন্টে নিজেদের প্রথম ম্যাচে মালয়েশিয়াকে ১০-১ গোলে হারিয়েছিল তহুরা, আনুচিং, শামসুন্নাহাররা। দ্বিতীয় ম্যাচে শক্তিশালী ইরানকে ৮-১ গোলে বিধ্বস্ত করে ফাইনাল নিশ্চিত করে বাংলাদেশের মেয়েরা। আজ ফাইনালে হংকংও পাত্তা পেলো না। ম্যাচ দেখে মনেই হল না হংকং ফাইনাল খেলতে নেমেছে যে – এতটাই তুচ্ছতাছিল্য করে তাদের সাথে খেলেছে বাংলাদেশ! তিন ম্যাচেই মুড়ি মুড়কির মত গোল করে ছোট মেয়েগুলো প্রমাণ করলো, সঠিক পরিচর্যা ও প্রশিক্ষণ পেলে তারা আসলেই হয়ে উঠতে পারে ভবিষ্যতের সত্যিকারের বাঘিনী! কিংবা কে জানে, যে সাফল্য দেশের ফুটবলে এমিলি, মামুনুল, ওয়ালি ফয়সাল বা জাহিদ রা আনতে পারছেন না সম্প্রতি, মহিলা ফুটবল সেই সাফল্যটাও আমাদের দেশকে উপহার দেবে – এই শামসুন্নাহার, সাজেদা, তহুরা, আনুচিং মোগিনীদের হাত ধরেই!
 
বিশ্ব মহিলা ফুটবল র‌্যাঙ্কিংয়ে বাংলাদেশের চেয়ে ২২ ধাপ এগিয়ে আছে মালয়েশিয়া। বাংলাদেশের থেকে ইরান এগিয়ে রয়েছে ৪৪ ধাপ, আর হংকংয়ের অবস্থান বাংলাদেশের চেয়ে ৩১ ধাপ সামনে। কিন্তু বাংলাদেশের ছোট্ট মেয়েরা প্রমাণ করলেন র‌্যাঙ্কিংটা তাদের কাছে স্রেফ একটা সংখ্যাম একটা আনুষ্ঠানিকতা বৈ আর কিছুই নয়।
গত ডিসেম্বরে ঢাকায় অনুষ্ঠিত হওয়া সাফ চ্যাম্পিয়নশিপে অপরাজিত চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৫ নারী দল। সাফ চ্যাম্পিয়নশিপ জয়ের পর আজকে হংকংয়ে অনুষ্ঠিত চার জাতি জকি ক্লাব মহিলা ফুটবলে আবারও অপরাজিত চ্যাম্পিয়ন হয়ে তারা বুঝিয়ে দিল লম্বা রেসের ঘোড়া হতেই এসেছে তারা, হারিয়ে যেতে নয়!
 
গোলাম রাব্বানী ছোটনের শিষ্যাদের অভিনন্দন, দেশের নাম উজ্জ্বল করার জন্য!

কমেন্টস

কমেন্টস

মন্তব্য করুন

9 + nine =