মধুচন্দ্রিমা শেষ ক্লপের

রজারসের বিদায়ের পর হঠাৎ ক্লপের আগমনে লিভারপুল সমর্থকদের মাথায় একটা কথাই বারবার আসছিল। ক্লপ আর লিভারপুল , এ যেন সোনায় সোহাগা । কথাটা যে মিথ্যা নয় , একথা প্রমাণ করতে ক্লপের শুরুটাও হয়েছিল প্রত্যাশার চেয়ে বেশি। স্টামফোর্ড ব্রিজে চেলসিকে ৩-১ আর এতিহাদে সিটিকে ৪-১ গোলে উড়িয়ে দিয়ে শূন্যে ভাসছিলেন লিভারপুল সাপোর্টাররা। ক্লপের প্রথম সিজনেই শিরোপার দৌড়ে নিজেদের দেখছিলেন কেউ কেউ । কিন্তু শূন্য থেকে একেবারে মাটিতে নামতে সময় লাগে নি তাদের। টানা চার ম্যাচে জয়হীন লিভারপুল। নিউক্যাসলের সাথে ২-০ গোলে হারের পর এনফিল্ডে ওয়েস্টব্রমের সাথে শেষ মুহূর্তের গোলে কষ্টার্জিত ড্র । সমর্থকদের আশা ছিল ওয়াটফোর্ডের সাথে ঘুরে দাঁড়াবে লিভারপুল । কিন্তু সেই আশায় গুড়ে বালি দিয়ে আগের চেয়েও জঘন্য খেলে এবার লিভারপুল হারলো ৩-০ গোলে । ডিফেন্সে বিশেষ করে সেট পিসে লিভারপুলের দুর্বলতা স্পষ্ট । দলের প্রধান স্ট্রাইকার স্টারিজ বরাবরের মতই ইনজুরির কারণে মাঠের বাইরে । বড় অঙ্কের বিনিময়ে দলে আসা ফিরমিনো নিজেকে হারিয়ে খুঁজছেন । ৩২ মিলিয়ন পাউন্ডের স্ট্রাইকার বেনটেকের খেলার ধরণ লিভারপুলের সাথে যায় কিনা তা নিয়েও সংশয় আছে সমর্থকদের । এতসব নিরাশার মধ্যে সমর্থকরা চাতকচোখে তাকিয়ে আছেন জানুয়ারী ট্রান্সফারের দিকে । সবার আশা ক্লপ যদি তার পুরানো দল থেকে কাউকে দলে ভেড়ান । যদিও ক্লপ জানুয়ারীতে বিরাট রদবদলের ব্যাপারটা উড়িয়ে দিয়েছেন। তবে ফুটবলে শেষ কথা বলে কিছুই নেই । পুরো সিজনকে বদলে দেওয়া কোন ট্রান্সফার আসতেই পারে জানুয়ারীতে ।

কমেন্টস

কমেন্টস

মন্তব্য করুন

seven + 17 =