বোলিং মেশিন শহীদ!

একটু ইনটেন্ট শো করা, একটু ইতিবাচক ভাবা, সেই ভাবনাটাকে মনে ও পরিকল্পনায় ধারণা করা, একটু আত্মবিশ্বাস রাখা…পাল্টে দিতে পারে সবকিছু!

আমরা ৫ বোলার খেলানোর সাহস দেখালাম। প্রথম দিনেই এমন উইকেটে অল আউট দক্ষিণ আফ্রিকা! ৯২ টেস্টে এই নিয়ে মাত্র তৃতীয়বার প্রথম দিনেই প্রতিপক্ষকে অল আউট করার স্বাদ। এমনও হতে পারত, আজ দিন শেষে দক্ষিণ আফ্রিকার রান থাকতে পারত ৩ উইকেটে ৩০০… ইন ফ্যাক্ট এমন দিন সামনে আসবেও অনেক। ৫ বোলার নিয়েও খুব বাজে দিন যাবে। উইকেট পড়বে না সারাদিনে। কিন্তু এখানে ফলের চেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হলো প্রসেস। প্রসেস ঠিক থাকলে ফল বেশির ভাগ সময়ই পক্ষে আসবে। ৫ বোলার খেলালে, ইতিবাচক ও আক্রমণাত্মক মানসিকতা থাকলে বেশির ভাগ সময়ই আমরা সফল হব।

** মুস্তাফিজকে নিয়ে নতুন করে কিছু বলার নেই। কল্পনাকে হার মানিয়েছে। অবিশ্বাস্য। তবে তার পরও আমার কাছে আজকের দিনের সেরা বোলার জুবায়ের হোসেন। ইনিংসের মোড় বদলে দিয়েছেন জুবায়েরই। লাঞ্চের আগে বোলিং ও শরীরী ভাষা ছিল একদমই ফ্ল্যাট। লাঞ্চের পর জুবায়ের বোলিংয়ে এসেই ব্যাটসম্যানদের বিট করা শুরু করলো। টার্ন-বাউন্সে ভোগালো। শহীদের স্পেলটাও এখানে ছিল যোগ সঙ্গত। এই দুজনের ভালো বোলিংয়ের পুরষ্কার পেয়েছেন তাইজুল আর সাকিব। এরপর তো দিনের বাকিটা আনন্দময় এক গল্প!

*** টানা ৫১টি ডট বল! আজ বোলিং মেশিন হয়ে যাওয়া শহীদকে টুপি খোলা অভিনন্দন।

লেখকের ফেইসবুক স্ট্যাটাস অবলম্বনে…

কমেন্টস

কমেন্টস

মন্তব্য করুন

19 − 10 =