বিশ্বকাপ ২০১৮ : টিম প্রিভিউ – বেলজিয়াম

বিশ্বকাপ ২০১৮ : টিম প্রিভিউ - বেলজিয়াম

গত চার-পাঁচ বছর ধরে চলছে বেলজিয়াম ফুটবলের স্বর্ণযুগ। প্রতিভাবান সব খেলোয়াড়ের ছড়াছড়ি, অধিকাংশ খেলোয়াড়ই নামকরা সব ক্লাবের গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড়। কিন্তু তা সত্ত্বেও আন্তর্জাতিক অঙ্গনে এই চার-পাঁচ বছরে দেখানোর মত সেরকম কোন সাফল্য নেই বেলজিয়াম দলের। ২০১৪ বিশ্বকাপ ও ২০১৬ ইউরো দুটোতেই কোয়ার্টার ফাইনালে খেলা বেলজিয়াম দলের খেলার স্টাইলও কোন এক বিচিত্র কারণে দৃষ্টিসুখকর নয়। দলের স্প্যানিশ কোচ রবার্তো মার্টিনেজ এবার সেই ধারণার ব্যতিক্রম ঘটানোর লক্ষ্যে বদ্ধপরিকর। সেই লক্ষ্যেই ঘোষণা করেছেন বেলজিয়াম দলের বিশ্বকাপগামী স্কোয়াড। দেখা যাক কে কে বেলজিয়াম দলের হয়ে যাচ্ছেন বিশ্বকাপে!

গোলরক্ষক

  • থিবো কর্তোয়া (চেলসি)
  • সিমোন মিনিওলেত (লিভারপুল)
  • কোয়েন ক্যাসটিলস (ভলফসবুর্গ)

ডিফেন্ডার

  • টোবি অল্ডারওয়াইরেল্ড (টটেনহ্যাম হটস্পার)
  • ইয়ান ভার্টঙ্ঘেন (টটেনহ্যাম হটস্পার)
  • ভিনসেন্ট কম্পানি (ম্যানচেস্টার সিটি)
  • থমাস ভারমায়েলেন (বার্সেলোনা)
  • থমাস মিউনিয়ের (প্যারিস সেইন্ট জার্মেই)
  • দেদ্রিক বোয়্যাটা (সেল্টিক)

মিডফিল্ডার

  • মুসা দেম্বেলে (টটেনহ্যাম হটস্পার)
  • ইউরি তিয়েলেমান্স (মোনাকো)
  • মারুয়ান ফেলাইনি (ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড)
  • কেভিন ডে ব্রুইনিয়া (ম্যানচেস্টার সিটি)
  • অ্যাক্সেল উইটসেল (তিয়ানজিং কুয়ানজিয়াং)
  • ইয়ানিক ফেরেইরা কারাসকো (দালিয়ান ইফাং)
  • আদনান ইয়ানুজাই (রিয়াল সোসিয়েদাদ)
  • লিয়ান্দার ডেনডনকার (আন্ডারলেখট)
  • নাসের চ্যাডলি (ওয়েস্টব্রম)
  • থরগান হ্যাজার্ড (বরুশিয়া মনশেনগ্ল্যাডবাখ)
  • ইডেন হ্যাজার্ড (চেলসি)

স্ট্রাইকার

  • রোমেলু লুকাকু (ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড)
  • ড্রিয়েস মার্টেন্স (নাপোলি)
  • মিচি বাতশুয়াই (বরুশিয়া ডর্টমুন্ড)

কোচ রবার্তো মার্টিনেজ এবার বেলজিয়াম দলকে ৩-৪-৩ ফর্মেশনে খেলাবেন, এটা মোটামুটি নিশ্চিত। দলে বিশ্বমানের সেন্টারব্যাকের ছড়াছড়ি – টোবি অল্ডারওয়াইরেল্ড, ইয়ান ভার্টঙ্ঘেন, ভিনসেন্ট কম্পানি ও থমাস ভার্মায়েলেন। যে কারণে তিনজন সেন্টারব্যাক খেলানোর প্রতিই বেশী আগ্রহী মার্টিনেজ। এই তিন সেন্টারব্যাক হিসেবে মূল একাদশে খেলার কথা কম্পানি, অল্ডারওয়াইরেল্ড ও ভার্টঙ্ঘেন এর। কিন্তু কম্পানি ইনজুরির কারণে মূল একাদশে কম্পানির জায়গায় বার্সেলোনার সেন্টারব্যাক ভার্মায়েলেনও খেলতে পারেন। দলে আরেক বিকল্প সেন্টারব্যাক হিসেবে রাখা হয়েছে এবার সেল্টিকের হয়ে স্কটিশ লিগজয়ী সেন্টারব্যাক দেদ্রিক বোয়্যাটাকে। দুই উইংব্যাক হিসেবে মূল একাদশে খেলবেন প্যারিস সেইন্ট জার্মেইয়ের থমাস মিউনিয়ের (রাইট উইংব্যাক) ও ইয়ানিক ফেরেইরা-কারাসকো (লেফট উইংব্যাক)।

বিশ্বকাপ ২০১৮ : টিম প্রিভিউ - বেলজিয়াম
gollachhut.com

বেলজিয়াম এর মূল একাদশে দুইজন সেন্ট্রাল মিডফিল্ডার খেলবেন, সেই দুইজন সেন্ট্রাল মিডফিল্ডার হলেন অ্যাক্সেল উইটসেল ও কেভিন ডে ব্রুইনিয়া। ম্যানচেস্টার সিটির হয়ে দুর্দান্ত মৌসুম কাটানো ডে ব্রুইনিয়া এবার জাতীয় দলের হয়েও আলো ছড়াতে প্রস্তুত, যদিও ক্লাবে তিনি আরেকটু সামনে খেলে থাকেন। বিকল্প সেন্ট্রাল মিডফিল্ডার হিসেবে দলে নেওয়া হয়েছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের মারুয়ান ফেলাইনি, অ্যান্ডারলেখটের লিয়ান্ডার ডেনডনকার, টটেনহ্যাম হটস্পারের মুসা দেম্বেলে ও মোনাকোর ইউরি তিয়েলেমান্স কে। ৩-৪-৩ ফর্মেশনে সামনের তিনজনের জায়গায় খেলবেন রোমেলু লুকাকু (স্ট্রাইকার, ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড), ইডেন হ্যাজার্ড (লেফট উইঙ্গার, চেলসি) ও ড্রিয়েস মার্টেন্স (রাইট উইঙ্গার, নাপোলি)। লুকাকুর ব্যাকআপ হিসেবে দলে আছেন বরুশিয়া ডর্টমুন্ডের স্ট্রাইকার মিচি বাতশুয়াই, ইডেন হ্যাজার্ডের বিকল্প হিসেবে দলের লেফট উইঙ্গার হলেন ইডেনেরই ভাই থরগান হ্যাজার্ড। উইঙ্গার হিসেবে আরও দলে আছেন ওয়েস্ট ব্রমের নাসের চ্যাডলি ও রিয়াল সোসিয়েদাদের আদনান ইয়ানুজাই।

দলের দুর্বল দিক কিছু থেকে থাকলে সেটা ৩-৪-৩ ফর্মেশনে উইংব্যাকদের মানিয়ে নেওয়ার সমস্যা। লেফট উইংব্যাক হিসেবে খেলা ইয়ানিক ফেরেইরা কারাসকো মূলত একজন উইঙ্গার। আরেকটা সমস্যা হতে পারে সাধারণত অ্যাটাকিং মিডফিল্ডার হিসেবে খেলা কেভিন ডে ব্রুইনিয়ার পেছনে সেন্ট্রাল মিডফিল্ডার হিসেবে খেলাটা। এই দুই সমস্যার সমাধান বের করতে পারলেই বেলজিয়ামের এই সোনালী প্রজন্মের হাতে ধরা দেবে সাফল্য।

বিশ্বকাপ ২০১৮ : টিম প্রিভিউ - বেলজিয়াম

পারবে তো বেলজিয়াম?

স্কোয়াড প্রিভিউ দেখুন আরও –

কমেন্টস

কমেন্টস

মন্তব্য করুন

8 + eleven =