বেনফিকা স্ট্রাইকার হোনাস : স্মরণকালের সেরা ‘ফ্রি’ খেলোয়াড়?

বেনফিকা স্ট্রাইকার হোনাস : স্মরণকালের সেরা 'ফ্রি' খেলোয়াড়?

ফ্রি খেলোয়াড় বা ফ্রি ট্রান্সফার বলতে কি বোঝেন? কোন খেলোয়াড়কে কিনতে যখন কোন ক্লাবের ট্রান্সফার ফি বাবদ কোন টাকা দেওয়া লাগেনা তবে তখন সেই ট্রান্সফারকে ফ্রি ট্রান্সফার বলে। উদাহরণস্বরূপ বলা যায় ইতালিয়ান মিডফিল্ডার আন্দ্রেয়া পিরলো (এসি মিলান থেকে জুভেন্টাসে), এস্তেবান ক্যাম্বিয়াসো (রিয়াল মাদ্রিদ থেকে ইন্টার মিলান), স্যামি খেদিরা (রিয়াল মাদ্রিদ থেকে জুভেন্টাস), রবার্ট লেফান্ডোফস্কি (বরুশিয়া ডর্টমুন্ড থেকে বায়ার্ন মিউনিখ), সল ক্যাম্পবেল (টটেনহ্যাম থেকে আর্সেনাল) – ইত্যাদি খেলোয়াড়দের কথা। প্রতি মৌসুমেই কোন না কোন ফ্রি ট্রান্সফারের খবর শোনা যায়। ইতিহাসের সেরা ফ্রি ট্রান্সফারে পাওয়া খেলোয়াড়দের কথা বলতে গেলে এদের নামই ঘুরেফিরে আসে। কিন্তু একজনের নাম কখনই গতানুগতিক ফুটবল ভক্তদের কাছ থেকে শুনবেন না আপনি। তিনি বেনফিকা স্ট্রাইকার হোনাস। অথচ পর্তুগিজ ক্লাব বেনফিকার এই ব্রাজিলিয়ান স্ট্রাইকার ফ্রি তে ভ্যালেন্সিয়া থেকে এসে কি কি করেছেন সেটা জানলে চোখ কপালে উঠে যেতে আপনার!

ব্রাজিলের এই স্ট্রাইকার ক্যারিয়ারের শুরুতে বিভিন্ন ব্রাজিলিয়ান ক্লাবগুলোতে খেলেছেন, যাদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য হল গ্রেমিও, গুয়ারানি, পর্তুগিজিয়া, সান্তোস ইত্যাদি। বললে অবাক হবেন, গ্রেমিওতে থাকাকালীন ২০০৯ সালের কোপা লিবার্তোদেরেসে বোয়াকা চিকো ক্লাবের বিপক্ষে এক ম্যাচে সহজ সহজ তিনটা গোল করার সুযোগ মিস করেছিলেন দেখে পরেরদিন স্প্যানিশ ম্যাগাজিন মুন্দো দেপোর্তিভো তাঁর উপাধি দিয়েছিল, “বিশ্বের সবচেয়ে জঘন্য স্ট্রাইকার”!

যদিও পরের বছরেই লিগে ১৪ গোল করে আবার ভালোভাবেই নিন্দুকের মুখে ঝামা ঘষে দেন তিনি। ফলাফল, স্প্যানিশ ক্লাব ভ্যালেন্সিয়ার নজরে আসেন তিনি। ভ্যালেন্সিয়ায় ৩ বছর থেকে ১১৩ ম্যাচে ৩৬ গোল করেন তিনি। ভ্যালেন্সিয়ার সাথে চুক্তি শেষ হবার পর পর্তুগীজ ক্লাব বেনফিকায় ফ্রি তে যোগ দেন তিনি।

বেনফিকা স্ট্রাইকার হোনাস এর পরেই দেখানো শুরু করেন তাঁর জাদু। ভ্যালেন্সিয়া ভেবেছিল ৩০ বছর বয়সী স্ট্রাইকারের কাছ থেকে আর তেমন কিছু পাওয়ার নেই তাদের। কিন্তু ভ্যালেন্সিয়ার এই চিন্তাতেই হল বেনফিকার লাভ। ফ্রি তে এমন এক স্ট্রাইকারকে তারা পেল যার কাছ থেকে এত ভালো সার্ভিস পাবে, এটা হয়তোবা তারা নিজেরাও কল্পনাও করেনি।

বেনফিকা স্ট্রাইকার হোনাস : স্মরণকালের সেরা 'ফ্রি' খেলোয়াড়?

কয়েকটা পরিসংখ্যানের দিকে চোখ রাখুন শুধু। তাহলেই বুঝতে পারবেন পর্তুগিজ ক্লাবের আধুনিক ইতিহাসের কতটা গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড় এই বেনফিকা স্ট্রাইকার হোনাস। ২০১৪ সালে বেনফিকাতে যোগ দেওয়ার পর থেকে এই পর্যন্ত –

  • ম্যাচ খেলেছেন ১৩৯ টি
  • গোল করেছেন ১০৮ টি
  • গোলসহায়তা করেছেন ২৮ বার
  • প্রতি ৭৮ মিনিটে অন্তত একবার করে হয় গোল করেছেন, নাহয় গোলসহায়তা করেছেন
  • প্রতিবছর লিগ জিতেছেন বেনফিকার হয়ে
  • সম্ভাব্য তিনবারের মধ্যে দুইবারই হয়েছেন পর্তুগিজ লিগের সেরা খেলোয়াড়

শুধুমাত্র এই ২০১৭/২০১৮ মৌসুমে বেনফিকা স্ট্রাইকার হোনাস এর কীর্তিগুলো দেখে নিন –

  • ১৭ ম্যাচ
  • ২০ গোল
  • ৫ বার গোলসহায়তা
  • প্রতি ৫৮ মিনিটে হয় গোল করেছেন নাহয় গোলসহায়তা করেছেন
  • বেনফিকার মোট গোলের ৬৩% এর পেছনে তাঁর অবদান আছে
  • পর্তুগিজ লিগের গত ৩৩ বছরের ইতিহাসের প্রথম খেলোয়াড় হিসেবে টানা ১০ ম্যাচে গোল করেছেন
  • এই কয় বছরে বেনফিকার হয়ে জিতেছেন লিগ (৩বার), অন্যান্য ট্রফি (৫বার)

আধুনিক ফুটবল ইতিহাসের সবচেয়ে বেশী প্রভাব রাখা ফ্রি ট্রান্সফার না হলেও, অন্যতম সেরা ফ্রি ট্রান্সফার বলতেও অন্তত কারোর আপত্তি হবার কথা না! কেননা, বেনফিকার পুনরুত্থান তো তাঁর হাত ধরেই!

বেনফিকার হতে নিজের হাতে ইতিহাস লেখা এই স্ট্রাইকার যদিও ব্রাজিল জাতীয় দলের হয়ে অতটা ঔজ্জ্বল্য ছড়াতে পারেননি কখনো। ২০১১ সালে জাতীয় দলে অভিষিক্ত হয়ে ১২ ম্যাচ খেলে মাত্র ৩ গোল করেছেন বেনফিকা স্ট্রাইকার হোনাস। সামনের বিশ্বকাপে কি সে রেকর্ডটা ভালো করারও সুযোগ পাবেন তিনি?

কমেন্টস

কমেন্টস

মন্তব্য করুন

4 × 2 =