বিশ্ব বুট প্রতিযোগিতায় নেইমার!

আমাদের বস ”নেইমার” ছোট শিশুদের খুব ভালবাসেন । এর প্রমাণ আগেও পেয়েছে ফুটবল বিশ্ব।
কিন্তু এবার যেই বিশেষ কাজ করেছেন তিনি , সেটার প্রশংসা না করে উপায় নেই ।

{{ অবসরের সময়টা এখন ব্রাজিলেই কাটাচ্ছেন আমাদের এই তারকা ফুটবলার ।
গত বুধবার নেইমার এবং তার বন্ধু ফুটবলারদের সহযোগিতায় বেশ কয়েকজন প্রতিবন্ধী শিশু জীবনে প্রথমবারের মতো ফুটবল নিয়ে খেলেছে !! হ্যাঁ , , সত্যি ।

কারন প্রতিবন্ধীরা নিজের জীবনের যেমন, তেমনি সমাজেও অনেক অসহায়। হাঁটি হাঁটি, পা পা। বাবার পায়ে ভর করে এক পা দু পা এগিয়ে যাওয়া। এই দৃশ্য দেখে ছেলেবেলার ওই ছবিটা মনের অজান্তেই ভেসে আসবে। কিন্তু শারিরিকভাবে যেই শিশুরা অক্ষম তাদের জন্য একটু কষ্ট তো বটেই। তবে সেই কষ্টটা চলার পথে যেন তাদের স্পর্শ করতে না পারে আর কিছু সময়ের জন্য হলেও তাঁদের আনন্দ দিতে পারে , সেজন্য ব্রাজিলে হয়ে গেলো ব্যতিক্রমী এক আয়োজন ”বিশ্ব বুট প্রতিযোগিতা” ।
এ যেন ছিল শিশুদের এক বিশাল মিলনমেলা। দেশের নানা প্রান্ত থেকে প্রতিবন্ধী শিশুরা ছুটে এসেছেন এখানে। ন্যানি, ফেলিপ অ্যান্ডারসনের মতো তারকা ফুটবলারদের পায়ের সাথে বেল্ট বেধে সবাই হয়ে গেলেন স্পট কিকের রাজা !! আর এই সুন্দর প্রতিযোগিতার আয়োজক ছিলেন আমাদের প্রিন্স নেইমার }}

আমাদের ব্রাজিল সুপারস্টার ও অনেকটা আবেগাপ্লুত হয়ে বলেন, – “আমি সত্যি অনেক গর্বিত এমন একটি আয়োজনে অংশ হতে পেরে। যেই তিনটি দল আজ[বুধ’] প্রতিযোগিতায় বিজয়ী হয়েছে, তাদের অভিনন্দন। সবাই ভালো করেছে। আর আমার নিজের প্রতিষ্ঠানের এমন আয়োজনে আমি আরো বেশ গর্বিত।”

অপরদিকে ফুটবলের বড় তারকাদের কাছে পেয়ে উচ্ছ্বসিত ছিলো শিশুরাও। যা তাদের কাছে হয়ে থাকবে বড় প্রাপ্তি । এক প্রতিবন্ধী শিশু দানিয়েল বলেন, – “আমার খুব আনন্দ লাগছে, আমি বল মারতে পেরেছি। মনে হয় আমি আমার জীবনের লক্ষ পূরন করতে যাচ্ছি। আর নেইমারকে দেখে বিশ্বাস হচ্ছে না, সত্যিই ওনাকে আমি কাছে পেয়েছি!”

** প্রতিযোগিতায় অংশ নেয়া সকল শিশুর মাঝেই ছিলো এরকম অভিব্যক্তি।
প্রতিযোগিতা শেষে কোমলমতি এই শিশুদের হাতে তুলে দেয়া হয় আকর্ষণীয় ট্রফি।
যেন বিজয়ের এই অনুপ্রেরণায়, প্রতিবন্ধী শিশুরা সামনে এগিয়ে যেতে পারে নতুন আলোর সন্ধানে **

#ভিভা_নেইমার & #স্যালুট_বস

কমেন্টস

কমেন্টস

মন্তব্য করুন

fifteen − five =