বিশ্বকাপে অদ্ভুতুড়ে আউটঃ আইসিসির স্বীকৃতি!

আইসিসি বিশ্বকাপ ২০১৫ এর প্রথম দিনের অস্ট্রেলিয়া-ইংল্যান্ড ম্যাচে অস্ট্রেলিয়া ১১১ রানের জয়কে ছাপিয়ে গিয়েছে শেষ উইকেট জুটিতে জেমস অ্যান্ডারসনের রান আউট।

54df58e2ce6f3

 

 

সমস্যাটা শুরু হয় যখন জেসন হ্যাজলউড এর করা এলবিডব্লিউ এর আবেদনে সাড়া দিয়ে আম্পায়ার আলীম দার ৯৮ রানে অপরাজিত থাকা ইংলিশ ব্যাটসম্যান জেমস টেইলরকে আউট ঘোষণা করেন। টেইলর রিভিউ আবেদন করলে দেখা যায় সেটা আসলে এলবিডব্লিউ ছিল না। বল লেগ স্ট্যাম্পের বাইরে ছিল। তাই আলীম দারের দেয়া সিদ্ধান্ত ওভারটার্ন করা হয়। কিন্তু ঐ বলেই ইংল্যান্ড একটা সিঙ্গেল নেয়ার চেষ্টা করে এবং অপর প্রান্তে থাকা জেমস এন্ডারসন পপিং ক্রিজে পৌঁছানোর আগেই অস্ট্রেলিয়ান ফিল্ডার গ্লেন ম্যাক্সওয়েল স্ট্যাম্পে ডিরেক্ট হিট করেন। অস্ট্রেলিয়া রান আউটের জন্যও আবেদন করে। তাদের আবেদনে সাড়া দিয়ে লেগ আম্পায়ার কুমার ধর্মসেনা অ্যান্ডারসনকে আউট ঘোষণা করেন।

অথচ আইসিসি প্লেয়িং কন্ডিশনের এপেন্ডিক্স-৬ এর Article 3.6a তে বলা আছে, যদি কোন ব্যাটসম্যানকে এলবিডব্লিউ আউট দেয়া হয় তখন সেই বলটি ডেড বল বলে গন্য হবে। ঐ বলে আর কোন আউট বা রান হওয়া সম্ভব নয়।

কিন্তু মেলবোর্ন ক্রিকেট গ্রাউন্ডে অস্ট্রেলিয়া-ইংল্যান্ড ম্যাচের পর আইসিসির প্লেয়িং কন্ট্রোল টিম (পিটিসি)-এর মিটিং এ আম্পায়ার কুমার ধর্মসেনার এই ভুল সিদ্ধান্তটি সঠিক বলে অনুমোদন দেয়া হয়।

উল্লেখ্য এই সিদ্ধান্তের কারণে জেমস টেইলর একদিনের আন্তর্জাতিক ম্যাচে তার অভিষেক সেঞ্চুরি থেকে বঞ্চিত হন। টেইলর ৯৮ রানে অপরাজিত ছিলেন।

stream_img

কমেন্টস

কমেন্টস

মন্তব্য করুন

five + eight =