বাজছে বিদায়ঘন্টা!

পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ক সরফরাজ নওয়াজ সাফ বলে দিলেন, ‘যেখানে অধিনায়ক নিজেই পারফর্ম করতে পারছে না, সেখানে আমরা কিভাবে আশা করি যে দলের বাকিরা পারফর্ম করতে পারবে!’

গোটা পাকিস্তান জুড়েই এমন হাজারো সমালোচনার যন্ত্রনা সহ্য করতে হচ্ছে দেশটির ক্রিকেটের টি-টোয়েন্টি দলের অধিনায়ক শহীদ আফ্রিদিকে। বাংলাদেশের কাছে পাঁচ উইকেটে পরাজয়ের পরেই জল্পনা-কল্পনা শুরু হয়ে গেল তার ভবিষ্যৎ নিয়ে।

ভারতের কাছে হারের পরই আফ্রিদির ভবিষ্যতের উপর কালো মেঘ জমছিল। আরব আমিরাতের বিপক্ষে নিজেদের সামর্থ অনুযায়ী খেলতে না পারায় সেটা আরও তীব্র হয়। আর বাংলাদেশের বিপক্ষে হারে, নিশ্চিত যে নেতার পদে আর বেশিদিন নেই আফ্রিদি।

এমনকি বাংলাদেশের বিপক্ষে ম্যাচ শেষ হওয়ার পরেই একটা গুজব উঠলো, অধিনায়কের পদ থেকে নাকি সরে দাঁড়িয়েছেন আফ্রিদি। দলের মিডিয়া ম্যানেজারকে রাতে আফ্রিদির পদত্যাগ নিয়ে জিজ্ঞেস করায় তিনি অস্বীকার করেন। জানালেন, এমন কিছু ঘটেনি।

তবে, এমন কিছু যে খুব শিঘ্রই ঘটছে সেটা অনুমান করা গেল পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের (পিসিবি) সাবেক সভাপতি ও বর্তমানে সংস্থাটির কার্যনির্বাহী কমিটির প্রধান নাজাম শেঠির একটা টুইটে।

তিনি লিখেছেন, ‘আমাদের দলের এরকম বাজে পারফরম্যান্সে আমি প্রচণ্ড হতাশ। এর জন্য যারা দায়ী তাদের বিপক্ষে পিসিবি ম্যানেজমেন্ট দ্রুত ব্যবস্থা নেবে।’

কি সেই ব্যবস্থা সেটা আর বলে না দিলেও চলে!

কমেন্টস

কমেন্টস

মন্তব্য করুন

seven + 7 =