বাংলাদেশের বোলিং কোচিং এর ভবিষ্যৎ

এই মাসেই আমাদের সঙ্গে স্ট্রিকের চুক্তি শেষ। পেশাদার হিসেবে নতুন চাকরি তো সে খুঁজবেই। আর হয়ত ভারত তার জন্য আরও ভালো অপশন। কারণ কোচিং যারা করান নানা দেশে, তারা শুধু ক্রিকেটটাই ভাবেন না। মাঠের বাইরের জীবনটাও ভাবেন। বাংলাদেশে তো নাইট লাইফ বা খেলার বাইরে কোনো লাইফ নাই তেমন। কিংবা হতে পারে, একাডেমিতে আরও নতুনদের সঙ্গে আরও টেকনিক্যাল কাজ করা যাবে। স্টিক হয়ত এখন তেমন কিছু চায়।
তবে বিসিবি তাকে রাখতেই চেয়েছিল। সে বিসিবির সঙ্গে ডিসকাস না করেই ওখানে অ্যাপ্লাই করেছে, এটা একটু দৃষ্টিকটু মনে হতে পারে। তবে ডিসকাস করতে সে বাধ্যও নয়। ক্যারিয়ার তো তার, সিদ্ধান্তও তার নিজের।
আমি ব্যক্তিগত ভাবে মনে করি, স্ট্রিক গেলে হাহুতাশের কিছ নেই। ভালো একটা বিকল্প পেলে বরং আমি খুশিই। যেভাবে সবাই ভাবে, ততটা ভালো কাজ কিন্তু স্ট্রিক করেনি! বাংলাদেশের পেস বিপ্লবের পেছনে যেভাবে স্ট্রিকের অবদান বলা হয়, তেমন কোনো অবদানই তার নেই। সব কথা আমরা আসলে অফিসিয়ালি লিখতে পারি না। সে বেশ ফাঁকিবাজ এবং নানা কিছু নিয়েই প্রচুর কমপ্লেইন তার।
যদি চম্পকা রমানায়েকে কে আবার আনতে পারি, অসাধারণ হয়। আমাদের সেরা বোলিং কোচ ছিল সেই। না হলে আকিব জাভেদ এখন ফ্রি আছে। সেও খুব ভালো বোলিং কোচ। চামিন্ডা ভাস ফ্রি আছে। দেখা যাক!

কমেন্টস

কমেন্টস

মন্তব্য করুন

2 + 3 =