ফোন না ধরা ট্রেন্ড এবার?

বুঝলাম না, এবার দলবদলের বাজারে ডেডলাইন ডে তে ক্লাব ও খেলোয়াড়্গুলোর মধ্যে নতুন ট্রেন্ড শুরু হয়ে গেল নাকি? ফোন রিসিভ না করার ট্রেন্ড? আপনি যতই আলোচনা তর্কাতর্কি নেগোসিয়েশান করেন না কেন, সংশ্লিষ্ট ক্লাব বা খেলোয়াড় যদি আপনার ফোনই না ধরে, যদি আপনার সাথে যোগাযোগই না করতে চায়, তবে তাঁর সাথে ট্রান্সফার ডিল টা আপনি করবেন কিভাবে? এবং মনে হচ্ছে এটাই এবারের গ্রীষ্মকালীন দলবদলের বাজারের ডেডলাইন ডে এর হট টপিক হয়ে গেছে।

কালকেই বলেছিলাম, ফোন ধরা না ধরা নিয়ে সর্বপ্রথম নাটকের সফল মঞ্চায়ন করেন ফরাসী মিডফিল্ডার মুসা সিসোকো। সিসোকোর ব্যাপারে এবার সবচাইতে বেশী আগ্রহ দেখায় রোনাল্ড ক্যোম্যানের এভারটন। ৩০ মিলিয়ন পাউন্ড দিতে প্রস্তুত ছিল তাঁরা। নিউক্যাসলের সাথে সবধরণের আলোচনা, কথাবার্তা শেষ, চুক্তিপত্র প্রস্তুত করাও শেষ। খেলোয়াড় আনার জন্য এভারটনের শহর লিভারপুল থেকে একটা প্রাইভেট জেট প্লেনও চলে যায় নিউক্যাসলে। মেডিক্যাল বোর্ডও প্রস্তুত যাতে সিসোকো আসার সাথে সাথেই মেডিক্যাল সম্পন্ন করে তাঁর ট্রান্সফার সম্পন্ন করা যায় যত তাড়াতাড়ি সম্ভব, কারণ সময় চলে যাচ্ছে।

শেষদিনে টটেনহ্যামে এসেছেন মুসা সিসোকো
শেষদিনে টটেনহ্যামে এসেছেন মুসা সিসোকো

এবার নাটকের সূচনা করলেন মুসা সিসোকো নিজে। নিজের ক্লাবের নতুন খেলোয়াড় মুসা সিসোকোকে ক্লাবে স্বাগত জানানোর জন্য কোচ রোনাল্ড ক্যোমান নিজেই সিসোকোকে ফোন দিলেন। ফোন ধরলেন না সিসোকো, বার বার বন্ধ করে দিচ্ছিলেন তিনি ফোন। এদিকে নিউক্যাসল থেকে খবর এলো যে প্রাইভেট জেট প্লেনটি পাঠানো হয়েছিল সেখানে সিসোকোকে আনার জন্য, সিসোকো তাতে চাপেননি। এদিকে টানা দুই ঘন্টা সিসোকোর সাথে যোগাযোগ করার চেষ্টা করে ব্যর্থ হয় এভারটন। ইঙ্গিত পরিষ্কার, এভারটনে রোনাল্ড ক্যোম্যানের ডাচ রেভোল্যুশানের সৈনিক হতে চান না এই ফরাসী মিডফিল্ডার। সিসোকোর এজেন্ট ও এভারটনকে জানিয়ে দেন, এভারটনে যেতে চান না সিসোকো। এভারটনের থেকে এবার চ্যাম্পিয়নস লিগ খেলতে যাওয়া টটেনহ্যামে যোগ দেওয়ার ব্যাপারেই আগ্রহ বেশী সিসোকোর।

ডেডলাইন ডে তে এরকম ফোন না ধরার দ্বিতীয় শিকার সিসোকোরই ফরাসী সতীর্থ মিডফিল্ডার ইয়ান এম’ভিলা। গত মৌসুমে রাশিয়ান ক্লাব রুবিন কাজান থেকে ধারে ইংলিশ ক্লাব স্যান্ডারল্যান্ডে খেলতে আসা এম’ভিলা যথেষ্ট ভালো খেলেছিলেন ব্ল্যাক ক্যাটসদের হয়ে। ফলে তাঁর মনে আশা ছিল এই মৌসুমে স্যান্ডারল্যান্ড হয়তোবা তাঁর সাথে ধারের চুক্তিটা স্থায়ী করে ফেলবে। এই আশায় রাশিয়া থেকে ইংল্যান্ডে উড়েও চলে এসেছিলেন তিনি। কিন্তু তাঁর ইনস্টাগ্রাম পোস্টের কথা বিশ্বাস করলে, স্যান্ডারল্যান্ড কর্মকর্তারা তাঁর ফোন ধরেননইনি, ট্রান্সফার হবে কিভাবে! পরে যদিও সেই ইনস্টাগ্রাম পোস্টটি ডিলিট করে দিয়েছেন এম’ভিলা নিজেই।

ইয়ান এম'ভিলা
ইয়ান এম’ভিলা

রুবিন কাজানের সাথে এম’ভিলার চুক্তি সামনের জানুয়ারি পর্যন্ত, তারপর ফ্রি এজেন্ট হয়ে যাবেন তিনি। এদিকে প্রিমিয়ার লিগের পয়েন্ট তালিকায় ১৬ তম অবস্থানে থাকা স্যান্ডারল্যান্ডের নতুন কোচ ডেভিড ময়েস শেষদিনে ম্যানচেস্টার সিটি থেকে ডিফেন্ডার জেসন ডেনায়ের ও ফরাসী ক্লাব লরিয়েঁ থেকে মিডফিল্ডার দিদিয়ের এনডং কে আনলেও নিজের স্কোয়াডের জন্য ইয়ান এম’ভিলাকে প্রয়োজনীয় মনে করেননি, বোঝাই যাচ্ছে। আবার বলা হচ্ছে, এম’ভিলার জন্য রুবিন কাজানের ৮.৫ মিলিয়ন পাউন্ডের দাবিটা অনেক বেশী ঠেকেছিল ডেভিড ময়েসের কাছে। তাই তাঁকে এখন দলে না এনে এম’ভিলা জানুয়ারিতে যখন ফ্রি হবেন, তখনই তাঁকে দলে আনবে স্যান্ডারল্যান্ড। এদিকে রুবিন কাজানের সাথে এম’ভিলার জানুয়ারি পর্যন্ত চুক্তি থাকলেও নিজেদের টিম স্কোয়াড থেকে এম’ভিলাকে বাদ দিয়ে দিয়েছে তাঁরা।

সেই ইনস্টাগ্রাম পোস্ট
সেই ইনস্টাগ্রাম পোস্ট

কমেন্টস

কমেন্টস

মন্তব্য করুন

nine + 13 =