ফিরছেন রোনালদো

পেরিয়েছে পাক্কা এক যুগ । বদলেছে অনেক কিছুই ।
সেদিনের সেই লিকলিকে কিশোর আজ পুরোদস্তুর সুঠামী অশ্ব ।
যে অশ্বের দ্বিগজ্বয়ী দৌড়ে বদলেছে বিশ্ব ফুটবলের গল্পরুপ । নতুন করে কলমের কালি পড়েছে ইতিহাসের অনেক সাদা পাতায় ।
লিসবনের সেই জেদি তেজস্বী কিশোর আজও জেদিই রয়ে গেছে ।
তার জেদের কাছে একে একে শির নত করেছে নানা অর্জন, নানান পরিসংখ্যান । মহাবীর আলেকজাণ্ডার দি গ্রেটের সাধের পুরোটা পূর্ণতা পায়নি । তবে ফুটবলের এই মহানায়কের সাধ-আহ্লাদ মিটেছে প্রায় পুরোটাই । জীবদ্দশায় চির অমরত্ব পাওয়া এই ফুটবল প্রাণ পুরুষ নিজ দেশে রীতিমত দেবতুল্য ।
একদা যে কুঁড়ি আধা ফুটেছিল লিসবনে, পরবর্তীতে তার পূর্ণতা ইউরোপ ফুটবলের মহাযজ্ঞ ইংল্যাণ্ডে । আর অমরত্বের চিরঞ্জীবি গল্প তৈরি কিংবদন্তী বিধৌত স্পেনের রিয়াল মাদ্রিদে ।
আর এই মাদ্রিদের হয়েই মহাবীর ফিরছেন নিজ ঘরে । ফিরছেন তার কৈশোরে ।
যে কৈশোরই প্রথমে বিশ্ব ফুটবলের এক গুরু মহারথীর চোখ ধাঁধিয়ে দিয়েছিল ।
ঘরে ফিরছেন, তবে ঘরের ছেলে হয়ে নয় । পেশাদার এক ফুটবল খেলোয়ার হয়ে ।
স্মৃতি বিজরীত স্পোটিং সিপি’র বিরুদ্ধে মহাবীর লড়বেন রিয়াল মাদ্রিদের হয়ে ।
কিন্তু আজ এই স্মৃতিকাতরতার ক্ষণে ঠিক কি ভাবছেন গল্পের মহাবীর রোনালদো ?
হ্যা- ভাবছেন আজ তাকে লড়তে হবে আজন্ম স্মৃতির সাথে, লড়তে হবে নিজের আত্ননুভূতির সাথে ।
পেশাদারিত্বের এই যুগে ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর পেশাদারিত্ব অনুসরণীয় ও ঈর্ষনীয় । বর্তমান গুরু জিনেদিন জিদানও সেই কথাই বলে দিলেন ।
ওদিকে সাজ সাজ রব লিসবনে । ছেলে ফিরছে ঘরে, হোক না সেটা শত্রু হয়ে । শত্রুত্বের এই লড়াই তো ৯০ মিনিট শেষে ভাতৃত্বেরই বার্তা শোনায় ।
ছেলে ফেরার আনন্দে সিপি প্রেসিডেন্ট হয়ত পেশাদারিত্ব ভুলেই গেছেন কয়েক মুহুর্তের জন্য । আবেগঘন কন্ঠে বলেছে ‘ক্রিস ফিরছে এটা লিসবনবাসীদের জন্য উত্‍সব তুল্য’ ।
উত্‍সবের এই রাতে রোনালদো লড়বেন পেশাদার যোদ্ধা হয়ে । শৈশব-কৈশোরকে আজ ৯০ মিনিটের জন্য আবদ্ধ রাখবেন কোনো এক গোপন কুঠুরিতে ।
ইউরোপ শ্রেষ্ঠত্বের লড়াইয়ের দাঁমামা বেঁজে উঠেছে যে আজ ।
আর সেই দাঁমামায় রোনালদোর দৃঢ় স্বপ্নশ্রুতি মুকুট ধরে রাখা ।
ইউরোপের নতুন রাজার শৈল্প গৃহ বিরুদ্ধচারণ অবলোকনে অধীর লক্ষ-কোটি ফুটবল আঁখি । অধীর মিশ্র অনুভূতির লিসবনবাসী ।

কমেন্টস

কমেন্টস

মন্তব্য করুন

eight + 7 =