ফাইনালের আগে কিছু কথা

 

আমাদের বিশ্বকাপ কোয়ালিফাইং শুরু হবে ৯ তারিখ থেকে যেখানে ফাইনাল ৬ তারিখ। তার মানে ৭ তারিখ সকালে ফ্লাই করলে ও সন্ধ্যার আগে পৌছবে না। পরে শুধু ৮ তারিখ পেয়ে ৯ তারিখে খেলা।

ধর্মশালার এভারেজ অল্টিটিউড ১৪৭০ মিটার। তাপমাত্রা ১৬ ডিগ্রীর কাছে। পীচে বাউন্স ও বেশি। আমরা মানিয়ে নেয়ার সময় খুব কম পাচ্ছি। বিশেষ করে এই উচ্চতাতে মানিয়ে নেয়া খুব দরকার ছিলো।

তারপর এশিয়া কাপে আমাদের দল নিংড়ে দিচ্ছে। তারপর যে কুল ডাউনের টাইম, সেটা তারা পাচ্ছে না।

তারপর কোয়ালিফাই করে টানা মুল পর্বে খেলে এত দিন মোমেন্টাম ধরে রাখা খুব কঠিন।

বিসিবির উচিত ৭ তারিখ একটা চার্টার প্লেনে করে সবাইকে পাঠানো। আর সাইক্রিয়াটিস্ট সাথে দেয়া।

আর ফাইনালের আগে অনেক উন্নতি দরকার: ডাইরেক্ট হিটে স্ট্যাম্প ভাংতে পারি না, সিংগেল বের করতে পারি না, মিথুনের ভরসা পাই না। সাথে মুস্তাফিজ, রুবেল না থাকাতে বোলিং একটু দুর্বল। সাথে মুশফিক, সাকিব, সৌম্যের রিদমে না আসা। তারপর ও জিতছি স্ট্রিকের কোচিং (দুর্দান্ত স্পট বোলিং) এর জন্য আর ম্যাসের খেলোয়াড়দের থেকে নিংড়ে নেয়া পার্ফরমেন্স।

ইনশাআল্লাহ কভার ফটো এর কান্নাটা মুছে যাবে। ময়ুর নিয়ে খুব প্রাচীন মিশরীয় একটা রেসিপি আছে- ওইটা খেয়ে ফেলবো।

কিন্তু ভয় থেকে গেলো বিশ্বকাপ নিয়ে।

কমেন্টস

কমেন্টস

মন্তব্য করুন

19 − 13 =