বিচিত্র শর্তের চুক্তিতে বার্সেলোনাকে ফাঁসাল লিভারপুল

বিচিত্র শর্তের চুক্তিতে বার্সেলোনাকে ফাঁসাল লিভারপুল

বছরখানেক আগেরই তো কথা। কত কাণ্ড-কীর্তি করেই না লিভারপুল থেকে বার্সেলোনাতে নাম লেখালেন ব্রাজিলিয়ান মিডফিল্ডার ফিলিপ্পে কউতিনহো। সব মিলিয়ে কউতিনহোকে দলে আনার জন্য লিভারপুলকে ১৪৬ মিলিয়ন পাউন্ড দিয়েছে বার্সেলোনা। কিন্তু আসলেই কি কউতিনহোর জন্য শুধু ১৪৬ মিলিয়ন পাউন্ড দিয়েই পার পেয়েছে বার্সেলোনা?

উত্তর – না।

এখন শোনা যাচ্ছে, কউতিনহোর চুক্তির মধ্যে বিচিত্র এক শর্ত জুড়ে দিয়েছেন লিভারপুলের স্পোর্টিং ডিরেক্টর মাইকেল এডওয়ার্ডস। চুক্তির নতুন এই শর্ত অনুযায়ী, ২০২০ সাল পর্যন্ত কোন লিভারপুলের কোন খেলোয়াড়ের দিকে চোখ তুলেও তাকাতে পারবে না বার্সেলোনা। যদি এই সময়সীমার মধ্যে লিভারপুলের কোন খেলোয়াড়কে বার্সেলোনা কিনতে চায়, তাহলে লিভারপুলকে মূল দামের সাথে আরও ১০০ মিলিয়ন পাউন্ড অতিরিক্ত প্রদান করতে হবে বার্সেলোনাকে!

গত দুই বছর ধরেই বার্সেলোনায় ”যাচ্ছি, যাব” করছিলেন কউতিনহো। অ্যান্দ্রেস ইনিয়েস্তার উত্তরসূরি হিসেবে কউতিনহোকে চায় বার্সেলোনা, দুই বছর ধরে এমনটাই শোনা যাচ্ছিল। কিন্তু গত বছর নেইমার হুট করে বার্সেলোনা থেকে পিএসজিতে যোগ দেওয়ার পরেই যেন বার্সেলোনা এক রকম পাগল হয়ে যায়। সুযোগ বুঝে কউতিনহোও বার্সেলোনায় যাওয়ার জন্য উদগ্রীব হয়ে যান, কোচ ইউর্গেন ক্লপ কে বলেন যেন তাকে ছেড়ে দেওয়া হয়। সেই দলবদলের সময়ে কউতিনহোকে আটকে রাখতে পারলেও ছয়মাস পর আর তাকে আটকিয়ে রাখতে পারেনি লিভারপুল। ২০১৮ সালের জানুয়ারিতে ১৪২ মিলিয়ন পাউন্ডের বিনিময়ে বার্সেলোনায় যোগ দেন তিনি। বার্সেলোনা দলের এখন অন্যতম অবিচ্ছেদ্য অংশ হিসেবেও নিজেকে তুলে ধরছেন এখন তিনি। এই পুরো দলবদলের সময়টায় অনেক হ্যাপা সহ্য করতে হয় লিভারপুলকে। এই জন্যই বুঝি বার্সেলোনার উপর ত্যক্তবিরক্ত হয়ে এই শর্ত জুড়ে দিয়েছেন এডওয়ার্ডস!

শুধু কউতিনহো নয়, গত কয়েক বছরে লিভারপুল থেকে সরাসরি বার্সেলোনাতে নাম লিখিয়েছেন লুইস সুয়ারেজ, হাভিয়ের মাশচেরানোর মত তারকাও। যাওয়ার সম্ভাবনা ছিল ড্যানিয়েল অ্যাগারেরও। এবং বলা বাহুল্য, প্রত্যেকেই যথেষ্ট নাটকীয়তা করেই বার্সেলোনায় গিয়েছেন। তাই লিভারপুলের পক্ষ থেকে এরকম বিরক্ত হওয়াও অস্বাভাবিক কিছু নয়!

শোনা যাচ্ছিল, রবার্তো ফিরমিনো, মোহামেদ সালাহ এর মত খেলোয়াড়ের প্রতিও বার্সেলোনা সামনের দলবদলের সময় আগ্রহী হতে পারে। কউতিনহো চুক্তির এই নতুন শর্ত ফাঁস হয়ে যাওয়ার ফলে প্রমাণিত হল, ফিরমিনো-সালাহ থেকে শুরু করে লিভারপুলের যেকোন খেলোয়াড় অন্তত বার্সেলোনায় যাচ্ছেন না আগামী দুই বছর!

কমেন্টস

কমেন্টস

মন্তব্য করুন

5 × 1 =