ফলস নাইনে মেসির জাদু?

গ্রুপপর্বের তিন ম্যাচেই তিনভাবে আর্জেন্টিনা কে খেলিয়েছেন কোচ হোর্হে সাম্পাওলি। খুব সম্ভবত দ্বিতীয় রাউন্ডেও আর্জেন্টিনার বিপক্ষে ম্যাচে সে ধারার পরিবর্তন হচ্ছে না। আবারো ভিন্ন ফর্মেশনে, ভিন্ন স্টাইলে দলকে হাজির করাচ্ছেন সাম্পাওলি। শোনা যাচ্ছে, ফ্রান্সের বিপক্ষে ৪-৩-৩ ফর্মেশনে দলকে খেলাতে পারেন তিনি। তবে দলের মূল একাদশে আসতে পারে পরিবর্তন। কি সেটা? আসুন দেখে নেওয়া যাক!

ফ্রান্সের বিপক্ষে ম্যাচে গঞ্জালো হিগুয়াইন বা সার্জিও অ্যাগুয়েরোর মত কোন প্রথাগত স্ট্রাইকার খেলাতে চাচ্ছেন না সাম্পাওলি। ৪-৩-৩ ফর্মেশনে স্ট্রাইকারের ভূমিকা দেওয়া হতে পারে অধিনায়ক লিওনেল মেসি কে। আর মেসি কে মাঝে রেখে দুইপাশে খেলবেন অ্যানহেল ডি মারিয়া ও ক্রিস্টিয়ান পাভন। মিডফিল্ডে হাভিয়ের ম্যাশচেরানোকে মাঝে রেখে দুইদিকে খেলবেন এভার বানেগা ও এনজো পেরেজ। পরিকল্পনা ঐ একই। মিডফিল্ড থেকে খেলা বানিয়ে দেওয়ার গুরুদায়িত্ব থাকবে এভার বানেগার ওপর। দায়িত্ব থাকবে সেদিন নাইজেরিয়ার বিপক্ষে ম্যাচে মেসির গোলটা যেরকম অসাধারণভাবে বানিয়ে দিয়েছিলেন সেভাবে খেলাটা গড়ে তোলার। ওদিকে ম্যাশচেরানো দুই সেন্টারব্যাকের মধ্যে আরেকটা তৃতীয় সেন্টারব্যাকের ভূমিকাতেই থাকবেন, অবস্থান মিডফিল্ডের মাঝখানে হলেও। নাইজেরিয়ার ম্যাচের মতই এই ম্যাচেও আর্জেন্টিনার ডিফেন্সে থাকবেন নিকোলাস তাগ্লিয়াফিকো, মার্কোস রোহো, নিকোলাস ওটামেন্ডি ও গ্যাব্রিয়েল মের্কাদো। গোলবারে থাকবেন গত ম্যাচে দুর্দান্ত খেলা ফ্রাঙ্কো আরমানি।

ফলস নাইনে মেসির জাদু?

মেসির ভূমিকাটা হবে ফলস নাইন – অর্থাৎ যে প্রথাগত স্ট্রাইকার না তাঁকে স্ট্রাইকার হিসেবে খেলালে তাঁর যে ভূমিকাটা হয় সেটা আরকি। ফলস নাইন কি? এই লিঙ্কে দেখে আসুন!

এই ট্যাকটিক্যাল পরিবর্তনের ফলে কি ফ্রান্সকে হারানো সম্ভব হবে? দেখা যাক!

কমেন্টস

কমেন্টস

মন্তব্য করুন

2 + 2 =