প্রাণ পাচ্ছে ইংলিশ লিগ

বিদেশি লিগের সাথে আমার পরিচয়টা একটু দেরি করে হয়েছে স্কুলের দিনগুলো মফস্বলে কাটায়।পরিচয় না বলে ভালোভাবে বলা উচিত আমি নিয়মিত বিদেশি লিগগুলো দেখা শুরু করেছি আমার বয়সী ফুটবল পাগলদের অনেকের চাইতেই পরে। পরিচয় বলতে যা বোঝায় সেটা আগেই হয়েছিলো। কিন্তু হাইপ বলতে যা বোঝায় সেটা আমার মধ্যে একটু দেরি করে জেগেছে। তো এর মধ্যে ৫/৬টা করে ইংলিশ লিগ আর লা লিগা দেখা হয়ে গেছে। এখানে একটা কথা বলে নেওয়া ভালো, বাংলাদেশের সময়ের সাথে ভালো মেলাতে ইংলিশ লিগের ম্যাচই বেশি দেখেছি। আর লা লিগায় বার্সেলোনা বা রিয়াল মাদ্রিদ এর সাথে লিগের রেলিগেশন জোনে থাকা আলমেরিয়ার সাথে খেলা রাত ১টা দেড়টা পর্যন্ত জেগে দেখা কেনো যেনো আমার কখনোই পোষায় নি। চ্যাম্পিয়নস লিগের নক আউট রাউন্ডের খেলা হলে বা লালিগায় বড় খেলা হলে সেই রাত জাগাটা একটু হলেও পোষায়। তো সেই অর্থে এই দুই সিজন আগেরও এল ক্ল্যাসিকো বাদ দিয়ে লা লিগার অনেক কম ম্যাচই দেখেছি।

তো গত দুই সিজন ধরে একটা বলার মত ব্যাপার ঘটছে লা লিগার খেলাগুলো আস্তে আস্তে আমাদের সময়ের সাথে ভালো মিলছে। রাত ৯টা বা ১০টার সময় লা লিগার অনেক ম্যাচই শুরু হয়েছে। আর অন্যদিকে ইংলিশ লিগ আস্তে আস্তে গত সিজনে কোন এক অজানা কারণে ম্যাড়মেড়ে হয়ে গেছে। জায়ান্টদের মধ্যে ম্যানসিটি সিজন শেষের অনেক আগেই কোচ বদলে ফেলার কথা ঘোষণা করে দেওয়াতে দলটা অনেক ম্যাচে হতোদ্দ্যামের মত খেলেছে। আরেক জায়ান্ট ইউনাইটেড ধুঁকেছে সিজনের বেশিরভাগ সময়। চেলসি একদম নিচের দিকে স্ট্রাগল করেছে পুরোটা সময়। টটেনহাম, আর্সেনাল আর তার সাথে ম্যাজিক লেস্টার। লেস্টারের উত্থান দল হিসাবে লেস্টারকে যতোটা ফোকাস দিয়েছে, এর সাথে অন্য সমর্থনপুষ্ট দলগুলোর চুপসে যাওয়া মানুষের ফোকাস লিগ থেকে সরিয়ে নিয়েছে।

তবে এবার নতুন মৌসুম! এই সিজনের সারাটা প্রিসিজন জুড়ে মিডিয়া বুঁদ হয়ে ছিলো ইংলিশ লিগের নতুন নতুন হাইপ্রোফাইল কোচদের নিয়ে। সাথে সাথে এসেছে পগবার মত মাল্টিমিলিয়ন সাইনিং। ইব্রার সাইনিং পুরো লিগকেই ক্যারেক্টার দিতে পারে।আর প্রথম সপ্তাহটাও দিয়ে গেলো সেই ইংগিত। জিতলো সবগুলো বড় দলই। আর্সেনাল যাও হারলো সেটাও লিভারপুলের সাথে দারুন এক দ্বৈরথ উপহার দিয়ে। ডাগ আউটে গার্দিওলা কন্তে আর নতুন দলের হয়ে মরিনিওর সাথে মিলেমিশে প্রথম সপ্তাহেই ইব্রা-রুনিদের গোল! সব মিলিয়ে ইংলিশ লিগ দারুন এক শুরুর ইংগিত দিয়েছে। দলগুলো লিগকে দিন গড়ানোর সাথে কঠিন করে তোলার আবহ জাগিয়েছে।
এক কথায়, প্রাণ পাচ্ছে ইংলিশ লিগ। স্টারডমে, কোচে আর রাউন্ডের পর রাউন্ডের ম্যাচে।

কমেন্টস

কমেন্টস

মন্তব্য করুন

16 + 10 =