নিজের ক্যারিয়ার গড়তে হবে নিজেকেই

প্রফেশনাল জীবনে উন্নতির জন্য আমরা সবাই রেগুলার কোর্স, ট্রেইনিং এর মধ্য দিয়ে যাই। কিন্তু আমাদের দেশের খেলোয়াড়রা কি ক্লাব আর জাতীয় দলের বাইরে নিজেকে আলাদা করে ডেভেলপমেন্টের জন্য কিছু করেন??
আমাদের খেলোয়াড়দের প্রধান সমস্যা শারিরীক আর মানসিক। যা নিয়ে আমরা প্রতি নিয়ত ক্লাব আর ফেডারেশনেট সমালোচনা করি। খেলোয়াড়দের নিজেরা যদি একটু সচেতন হয়, নিজেদের ক্যারিয়ার আর ও দীর্ঘায়িত করতে পারে।
এখনকার মেয়েরা স্লিম হওয়ার জন্য নিউট্রোশনিস্ট এর কাছে যায়। আমাদের কয়জন যায়??খেলা চলাকালীন মাসে একবার কি সাইক্রিয়াটিস্টের কাছে যেতে পারে না?খেলা যখন বন্ধ থাকে স্থানীয় জিমে কয়জন যায়?কয়জন রেগুলার সকাল বিকাল ফিটনেস ট্রেইনিং করে??
একজন ইঞ্জিনিয়ার বা ডাক্তার বছরে ট্রেইনিং বাবদ যত খরচ করে, তার থেকে এটা বেশি লাগার কথা না।
বিদেশে বেশির ভাগ খেলোয়াড়ের পারসোনাল ট্রেইনার আছে। জানি আমাদের সম্ভব না, কিন্তু যাদের সামর্থ্য আছে (জানি বেশীর ভাগেরই নাই) তারা যদি অল্প ইনভেস্ট করে নিজের ক্যারিয়ার বেশি হবে, ভালো খেললে টাকা ও বেশি পাবে। আমার বিশ্বাস বেশিটা ইনভেস্টের থেকে বেশিই হবে।
সব সময় ক্লাব, ফেডারেশনকে দায় না দিয়ে – নিজেরা একটু চেস্টা করি? দেশের জন্য না- নিজের ভালোর জন্যই।

কমেন্টস

কমেন্টস

মন্তব্য করুন

five × 1 =