নিজেদের ফিরে পাচ্ছে ডর্টমুন্ড ?


ডর্টমুন্ড ৪-২ মাইঞ্জ
(নেভেন সুবেটিচ ৪৯’, মার্কো রয়েস ৫৫’, পিয়েরে-এমেরিক আউবামেয়াং ৭১’, নুরি সাহিন ৭৮’)
(এলকিন সোটো ১’, ইউনুস মাল্লি ৫৬’)

hi-res-178b0899fc08e129a548684d812e02c4_crop_north


সিগনাল এদুনা পার্ক। পূর্ব গ্যালারি। গ্যালারি ভর্তি দর্শক নিয়ে ডর্টমুন্ডের জয়ের প্রতীক্ষা। প্রথম দুইটা আগের মতন থাকলেও পরেরটা যেন এই মৌসুমে ক্রমশ হারিয়ে জেতে বসেছিল। কিছুটা হলেও নিজেরদের এই খারাপ মৌসুমকে প্রলেপ দিয়ে ঢাকার চেষ্টায় ব্যাস্ত বরুশিয়া ডর্টমুন্ড। অবনমন থেকে বাঁচতে তাদের কাছে এখন জয় ছাড়া অন্য কোন বিকল্প রাস্তা নেই। নিজেদের মাঠে সেই পুরনো ডর্টমুন্ডর ঝলক আবারো দেখাল ক্লপ বাহিনী। লিগ টেবিলে নিজেদের উপরে থাকা মাইঞ্জকে ৪-২ গোলের ব্যাবধানে হারিয়েছে তারা।
কিন্তু ম্যাচটা মাইন্ৎসের জন্য অন্য রকম হইতেও পারত। খেলার প্রথম মিনিটে সোটোর গোলে এগিয়ে যায় মাইঞ্জ। এরপর পুরো ৪৫ মিনিট আক্রমণ প্রতি আক্রমণ করেও নিজেদের সমতায় নিতে পারেনি স্বাগতিক ডর্টমুন্ড। এভাবেই প্রথম হাফের খেলা শেষ হয়। দ্বিতীয় হাফের খেলা শুরু হলে গোল বন্যায় ভাসে খেলা। সুবেটিচ আর রয়েসের গোলের কলানে খেলায় ফেরে ডর্টমুন্ড। তবে ৮০০০০ দর্শকে চুপ করিয়ে দেন মাল্লি তার ৫৬ মিনিটের গোলে। ৭১ মিনিটে আউবামেয়াং আর ৭৮ মিনিটে নুরি সাহিন গোল করলে উল্লাসে মাতে ডর্টমুন্ড, মাইঞ্জের বিরুদ্ধে বড় জয় পায় তারা। সম্প্রতি নতুন চুক্তি করা রয়েসের গোল সমর্থকের বিশেষ আনন্দের উপলক্ষ এনে দেয়।

B9wxG00CYAAx3aZ.jpg-large
ডর্টমুন্ডের পরবর্তী খেলা টেবিলে তলানিতে থাকা স্টুটগার্ট। তারপর চ্যাম্পিয়নস লিগের দ্বিতীয় রাউন্ডের খেলায় তুরিনে জুভেন্টাসের মোকাবেলা করবে ক্লপ-শিষ্যরা।
তবে গত ম্যাচ শেষে ডর্টমুন্ড ম্যানেজার ক্লপ বলেন, “এখন আমাদের জন্য ধারাবাহিকতায় সবকিছু।”

কমেন্টস

কমেন্টস

মন্তব্য করুন

thirteen − five =