দুঃস্বপ্ন কাটছেই না ডর্টমুন্ডের

bleacherreport

আরও একটি সপ্তাহ, আরও একটি নতুন লিগ ম্যাচ, এবং আরও একটি হার। জার্মান বুন্দেসলিগায় ডর্টমুন্ডের দুঃস্বপ্নের প্রহর যেন শেষই হচ্ছে না। ২০১১ ও ২০১২ সালের লিগ চ্যাম্পিয়ন ও ২০১৩ সালের চ্যাম্পিয়নস লিগ ফাইনালিস্টরা এই মৌসুমে লিগের তলানিতে খাবি খাচ্ছে ত খাচ্ছেই। কাল অগসবুর্গের কাছে ১-০ গোলে আবারও হেরে বসেছে তারা। এটা ডর্টমুন্ডের বিপক্ষে অগসবুর্গের ইতিহাসের প্রথম জয়।

bleacherreport

ঘরের মাঠের এই লজ্জাজনক পরাজয় সইতে পারেনি ডর্টমুন্ডের সমর্থকেরা, ম্যাচ শেষে দুয়োধ্বনিতে মুখরিত ছিল ওয়েস্টফ্যালেনস্ট্যাডিওন। পরে অধিনায়ক ডিফেন্ডার ম্যাটস হামেলস ও গোলরক্ষক রোমান ওয়াইডেনফেলারকে ব্যারিকেডের পাশে সমর্থকদের কাছে গিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করা লাগে।

 

bleacherreport
সমর্থকদের শান্ত করার চেষ্টা হামেলসের

ইউরোপিয়ান ফুটবল খেলার আশায় থাকা অগসবুর্গ ৫০ মিনিটে এগিয়ে যায় আর্জেন্টাইন স্ট্রাইকার রাউল বোবাডিয়ার গোলে। পরে এই ব্যবধান আর ঘুচাতে পারেনি ডর্টমুন্ড। ম্যাচের মাঝে অগসবুর্গের ক্রিস্টোফার ইয়াঙ্কার লাল কার্ড দেখে বিদায় নিলেও দশ জনের দল অগসবুর্গের কোন সমস্যাই হয়নি ডর্টমুন্ডকে হারাতে। লিগে এটি ছিল ডর্টমুন্ডের ১১তম পরাজয়।

ম্যাচশেষে কোচ ইয়ুর্গেন ক্লপের কণ্ঠে ছিল হতাশার সুর, “আমরা চাইলেই গোলটা ভালোমত ডিফেন্ড করতে পারতাম, কিন্তু সেটা করতে পারিনি, বোবাডিয়াকে একদমই মার্ক করা হয়নি। আমরা ভালো কোন চান্সই সৃষ্টি করতে পারিনি, আমাদের একমাত্র ভালো সুযোগ এসেছিল অতিরিক্ত সময়ে যখন চিরো ইমোবিলের হেড গোলরক্ষকের কাছে পরাস্ত হয়। আমি খুবই হতাশ, চান্স ক্রিয়েট করার পরেও শেষে গোল না করতে পেরে প্রত্যাশিত ফলাফল না পাওয়াটা হতাশাজনকই। আমি সমর্থকদের হতাশা বুঝতে পারছি।”

bleacherreport

এদিকে ডর্টমুন্ডের এই পরাজয়ে ক্ষোভে ফেটে পড়েছে জার্মান সংবাদমাধ্যম। জার্মান ক্রীড়া পত্রিকা বিল্ড ক্লপকে ২৮ ফেব্রুয়ারী পর্যন্ত সুযোগ দিয়েছে অবস্থার উন্নতি করার জন্য। তারা বলেছে ২৮ তারিখে শালকের সাথে ডার্বি ম্যাচে প্রত্যাশিত ফলাফল না আসলে চাকরি নিয়ে টানাটানিতে পড়ে যাবেন ইয়ুর্গেন ক্লপ।

bleacherreport

ছেড়ে কথা কয়নি তারা মার্কো রিউসকেও। তারা মনে করে রিউস এর মধ্যেই ডর্টমুন্ড ছাড়ার জন্য মনস্থির করে ফেলেছেন দেখে এখন খেলার মাঝে নিজের শতভাগ ঢেলে দিচ্ছেন না। তাদের মতে, খেলার রিউসের বডি ল্যাঙ্গুয়েজ অনেকটা বামবির (ওয়াল্ট ডিজনি’র একটি কার্টুন চরিত্র) মত, র‍্যাম্বোর মত নয়।

লিগে ডর্টমুন্ডের পরবর্তী ম্যাচগুলো ফ্রাইবুর্গ, মেইঞ্জ, স্টুটগার্ট ও শালকের সাথে। দেখা যাক ম্যাচগুলো জিতে ক্লপ নিজের চাকরি ধরে রাখতে পারেন কিনা!

কমেন্টস

কমেন্টস

মন্তব্য করুন

nine + twenty =