দাদাকে ছাড়িয়ে

ডেনিস কম্পটন শুধু ইংল্যান্ডের সবসময়ের সেরা ব্যাটসম্যানদের একজন নয়, সেই সময়ে ছিলেন দেশটির সবচেয়ে জনপ্রিয় ক্রিকেটার। ৭৮ টেস্টে ১৭ সেঞ্চুরিতে ৫০.০৬ গড়ে করেছিলেন ৫৮০৭ রান। সম্ভবত ইতিহাসের প্রথম ক্রিকেটার, খেলার বাইরে মডেলিং, এন্ডোর্সমেন্ট দিয়েও যিনি প্রচুর আয় করেছিলেন। ও হ্যাঁ, ফুটবলও খেলতেন। পাড়ার ফুটবলে খেলা নয়, রীতিমত আর্সেনালে খেলেছেন, ছিলেন উইঙ্গার। আর্সেনালের হয়ে জিতেছেন ফার্স্ট ডিভিশন লিগ, এফএ কাপ শিরোপা। খেলা, মডেলিং, আকর্ষণীয় ব্যক্তিত্ব, সব মিলিয়ে হয়ে উঠেছিলেন জাতীয় আইকন। সেসব অবশ্য অন্য প্রসঙ্গ।

আজকে ডেনিসকে টেনে আনা তাঁর নাতি নিকের কারণে। নিক কম্পটন। দাদা-নাতির ব্যাটিং পুরো উল্টো ঘরানার। ডেনিস ছিলেন আনন্দদায়ী এক ব্যাটসম্যান। দারুণ স্ট্রোকমেকার ছিলেন, উইকেটের চারপাশে শট খেলতেন। পছন্দ করতেন দাপুটে ব্যাটিং করতে, চড়াও হতেন বোলারদের ওপর। দারুণ গতিময় ফাস্ট বোলারদের বিপক্ষে ক্রিজের বাইরে দাঁড়িয়ে ব্যাটিং করেছেন সেই চল্লিস-পঞ্চাশের দশকেও।
বিস্ফোরক ব্যাটিংয়ের এই যুগেও নিকের ব্যাটিং পড়ে আছে প্রস্তর যুগে। শট খেলায় চরম অনীহা, একদমই বাধ্য না হলে ব্যাট তুলতে চান না। ২২ গজে গিয়ে তাঁর কাজ সটান একট ঘুম দেওয়া!

সেই নিক আজকে ছুঁয়ে ফেললেন তারা দাদাকে, সেটাও ছক্কার সংখ্যায়! কেপ টাউনে আজ দক্ষিণ আফ্রিকার ডেন পিটকে ছক্কা মেরেছেন নিক। মজার ব্যাপার হলো, আক্রমণাত্মক ব্যাটসম্যান দাদা ডেনিস ক্যারিয়ারের ১৩১ ইনিংসে মেরেছিলেন ৩টি মোটে ছক্কা। নিক ৩ ছক্কা মারলেন ২০ ইনিংসে!

কমেন্টস

কমেন্টস

মন্তব্য করুন

five × three =