তাসকিনে সন্তুষ্ট

২ ম্যাচে ৩টা ক্যাচ মিস… দূর্ভাগ্যের পালায় তাসকিন আহমেদ তো বাংলাদেশের ডগ ব্রেসওয়েল হয়ে গেল…! বেচারা…!

(এমনিতে এশিয়া কাপে তাসকিনের বোলিংয়ে এখনও পর্যন্ত আমার সত্যিই দারুণ লেগেছে। গতি, আগ্রাসন ফিরে এসেছে, ১৪৫-১৪৭ কিমিতে বোলিং করছে। শুধু গতিময় বোলিংয়ের কারণেই, সবচেয়ে ভালো লেগেছে ওর ছন্দ। হি ইজ ভেরি মাচ আ রিদম বোলার, দ্রুত রিদম পাওয়াটা ওর জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। সেটা পেয়েছে, পাচ্ছে।

এমনিতে তরুণ গতি তারকারা অনেক সময়ই একটু অতি উত্তেজিত হয়ে পড়ে। উইকেট এমন পেস সহায়ক হলে তো কথাই নেই। তাসকিনও তাই হয়ত শর্ট বল প্রয়োজনের চেয়ে একটু বেশি করে, খ্যাপাটে হয়ে অনেক সময় লাইন-লেংথে একটু গড়বড় হয়। সেটা হবেই। আমার ভালো লেগেছে, সে গতির সঙ্গে আপোষ করেনি, করছে না। সবাইকে সবকিছু করার দরকার নেই। তাসকিন গতিময়, আগ্রাসী বোলিংই করুক। এখন ওর শুরুর সময়ের ছোট ছোট সুইং গুলি ফিরে এলেই দারুণ হয়। ইনজুরি যখন কাটাতে পেরেছে, গতি তুলতে পারছে, সুইংও ফিরবে)।

কমেন্টস

কমেন্টস

মন্তব্য করুন

2 × 2 =