ঢা.বি. আন্তঃবিভাগ ক্রিকেট টুর্নামেন্ট – ইলেক্ট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং দলের কথা

আন্তঃ বিভাগীয় ক্রিকেট টুর্নামেন্ট ২০১৫-১৬ এর এবারের আসরের বিজয়ী খেতাবের অন্যতম দাবীদার ইইই বিভাগ। আগামী ২৩/১১/১৫ রোজ সোমবার ‘নবায়ন যোগ্য শক্তি’ বিভাগের সাথে সকাল ৯টায় নিজেদের প্রথম নক আউট ম্যাচ খেলবে ইইই। পূর্বে ফলিত পদার্থবিদ্যা , ইলেকট্রিকাল অ্যান্ড কমিউনিকেশন ইঙ্গিনিয়ারিং এই নামে খেললেও ডিপার্টমেন্ট এর নাম পরিবর্তন এর কারনে গত বছর থেকে দলটির নাম ইলেকট্রিকাল অ্যান্ড ইলেক্ট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং। আসুন এবারের ইইই দলটাকে চিনে নেওয়া যাক।

 

  • আশিক আহমেদঃ  ইইই বিভাগের সবথেকে অভিজ্ঞ , “টেকনিক্যালি মোস্ট সাউন্ড” ব্যাটসম্যান হিসেবে দলের ১ নম্বর খেলোয়াড় । ব্যাটিংএ যেমন দক্ষ উইকেট কিপিং এও তেমন ওস্তাদ। তাঁর নিজস্ব ভাষ্যমতে “উইকেট কিপিং ইস মাই প্যাশন”। ওপেনিং ব্যাটসম্যান হলেও দলের প্রয়োজনে মিডলঅর্ডারেও ব্যাট করতে দেখা যায় প্রতিভাবান এই ডানহাতি ব্যাটসম্যান কে।
  • আব্দুল্লাহ মাহমুদ পৃথুলঃ মোস্ট হার্ডওয়ার্কিং প্লেয়ার । ব্যাটসম্যান হিসেবে দলে খেললেও কখনো কখনো বোলিং এ এসে নিজের অফ স্পিনের ঘূর্ণিতে বিপক্ষ দলের ব্যাটসম্যানদের বেশ অসুবিধায় ফেলতে পারেন। সাধারনত টপ অর্ডারে ব্যাটিং করেন ডানহাতি এই ব্যাটসম্যান ।
  • জাভেদ মজুমদারঃ ইইই এক্সপ্রেস নামে খ্যাত দলের বোলিং ডিপার্টমেন্ট এর অন্যতম স্তম্ভ । জনশ্রুতি আছে যে উনি বেশ অলস প্রকৃতির। তবে খেলার মধ্যে নিজের ১০০% দিয়েই দলের জন্য খেলেন। মূলত বোলার হিসেবে খেললেও লোয়ার মিডলঅর্ডারে  উনার মারকুটে  ব্যাটিং দলের জয়ে যথেষ্ট ভুমিকা রাখে।
  • ফারহান মুনতাসিরঃ নতুন বলে বিপক্ষ দলের জন্য ত্রাস আর ছয় নম্বরে ব্যাটিং এ নেমে বিপক্ষ দলের বোলারদের নাজেহাল করতে পটু মুনতাসির আক্ষরিক অর্থেই ইইই বিভাগের অন্যতম খুঁটি। অলরাউন্ডার বলতে যা বুঝায় তাঁর সবই এই খেলোয়াড়ে পাওয়া যাবে।
  • তাহমিদ হাসান রূপমঃ ডানহাতি এই মারকুটে ব্যাটসম্যান কে এবার ইইই বিভাগের হয়ে ওপেনিং করতে দেখা যেতে পারে। পার্ট টাইম অফস্পিন ও স্লো মিডিয়াম বোলিং করে থাকেন। দলের প্রয়োজনে মাঝে মাঝে তাকে কিপিং করতে দেখা যায়। লোকমুখে শোনা যায় যে প্রাকটিসের সময় দৌড়াতে তার অনেক আপত্তি; দৌড়ালে নাকি ব্যাটিং এর স্টামিনা নষ্ট হয়ে যায়।
  • সাইফুল ইসলামঃ ইইই এর আরেক অল রাউন্ডার সাইফুল ইসলাম। রান খরচের ক্ষেত্রে সবথেকে কিপটে বোলার হলেও এই মিডিয়াম ফাস্ট বোলার একজন উইকেট টেকার । উইকেটে থিতু হয়ে যাওয়া ব্যাটসম্যান কে আউট করার গুরু দায়িত্ব সাইফুলের ঘাড়েই থাকে। মিডলঅর্ডারে ব্যাট করে থাকেন এই ডানহাতি ব্যাটসম্যান।
  • মোহাম্মদ সাইফুল্লাহঃ  এফ এইচ হল এক্সপ্রেস সাইফুল্লাহ মালিকে জিগক্সার নামে নামেই বন্ধু মহলে পরিচিত। নতুন বলে সুইং করাতে তার জুরি নাই। রং ফুটেড এই বোলার যে কোন মুহূর্তে তার বোলিং দিয়ে খেলার মোড় ঘুড়িয়ে দিতে পারেন।
  • সাইদুল ইসলাম সজলঃ ইইই এর একমাত্র স্পেশালিষ্ট স্পিনার সজল। অফস্পিনার ও মিডল অর্ডারের একজন দক্ষ ব্যাটসম্যান হিসেবে দলে খেলেন এই প্রতিভাবান ক্রিকেটার।
  • আসাদ রাকিবঃ ইইই বিভাগের মোস্ট ন্যাচারালি ট্যালেন্টেড ব্যাটসম্যান । ক্লাসিক ওপেনার বলতে যা বুঝায় সেটাই আসাদ রাকিব । তবে দলের প্রয়োজনে নিচের দিকেও ব্যাটিং করে থাকেন এই ডানহাতি ব্যাটিং তারকা।
  • শ্রীকৃষ্ণ হালদারঃ ইইই এর গতিদানব ও বিপক্ষ দলের দুঃস্বপ্ন এই ফাস্ট বোলার খুব অল্প সময়ের মধ্যে দলের বোলিং ইউনিটের অন্যতম কর্ণধার হিসেবে পরিচিতি  লাভ করেছেন। তার আগ্রাসী বোলিং এবং দুর্দান্ত ফিল্ডিং দলের জয়ে যথেষ্ট ভূমিকা রাখে।
  • আশফিকুল ইসলাম রবিনঃ ইইই এর বোলিং ইউনিট পূর্ণ করেন এই ডানহাতি পেসার। দুর্দান্ত গতি আর সুন্দর লাইন লেংথ অর্থাৎ একজন পরিপূর্ণ পেসারের সব গুন তার মধ্যে পাওয়া যায়।
  • মোস্তাসিম বিল্লাহ মিশুকঃ ব্যাটিং, বোলিং ,ফিল্ডিং ৩ ক্ষেত্রেই সমান দক্ষতা তাকে একজন পরিপূর্ণ ক্রিকেটার বানিয়েছে।
  • শাকিলুর রহমান সবুজঃ ফাস্ট বোলিং করে থাকেন। অউটফিল্ডে দুর্দান্ত ফিল্ডিং করেন।

এছাড়াও শাফি , হৃদয়, সিয়াম, নিলয় , সাগর সহ আরও অনেক প্রতিভাবান তরুন  ক্রিকেটার আছে ইইই বিভাগে।

 

এবারের আন্তঃ ক্রিকেট টুর্নামেন্ট ২০১৫-১৬ আসরে তারা অনেকদূর যাবে, এটাই প্রত্যাশা!

কমেন্টস

কমেন্টস

মন্তব্য করুন

4 × five =