টমাস টুখেলের কথা – ২

ক্লপ বলুন বা টুখেল, দুজনের মধ্যে মিল আছে কিন্তু বেশ। দুইজনের খেলোয়াড়ি জীবনেই বলার মত কোন সাফল্য নেই, দুইজনেই মূলত কোচিং ক্যারিয়ারে নাম কামিয়েছেন মেইঞ্জের হয়ে, মেইঞ্জেই দুইজনের উত্থান “পরবর্তী জার্মান কোচিং সেনসেশান” হিসেবে, এবং দুইজনই মেইঞ্জের পর কোচিংয়ের পরবর্তী ধাপ হিসেবে বেছে নিয়েছেন বরুশিয়া ডর্টমুন্ডকে। তবুও টমাস টুখেল নিজেকে ইয়ুর্গেন ক্লপ ভার্সন টু হিসেবে নিজেকে দেখতে চান না, দেখতে পছন্দ করেননা, সেটাই স্বাভাবিক। এরই মধ্যে ডর্টমুন্ডের খেলার স্টাইল থেকে আস্তে আস্তে ক্লপ-ভাবটা সরিয়ে নিচ্ছেন কিন্তু তিনি। বরুশিয়া মনশেনগ্ল্যাডবাখের সাথে বুন্দেসলিগাসূচক ম্যাচ ও প্রাক-মৌসুম ম্যাচগুলো দেখেই এটা মনে হয়ত একটু বোকামি, তবুও সেই বহুচর্চিত প্রবাদ “Morning shows the day” এর কথা যদি মনে করা হয় তাহলে বলতেই হচ্ছে টুখেল আছেন সঠিক পথেই, দিচ্ছেন ডর্টমুন্ডকে সঠিক দিকনির্দেশনাটাই।

ক্লপের বহুলচর্চিত ৪-২-৩-১ ফর্মেশান থেকে বের হয়ে এসে এই পর্যন্ত ৪-১-৪-১/৪-৫-১ এই ফর্মেশানেই আপাতত ডর্টমুন্ডকে খেলাচ্ছেন টুখেল। টুখেলের কোচিংয়ের একটা গুরুত্বপূর্ণ দিক হচ্ছে তিনি কখনো কোন গৎবাঁধা ফর্মেশান বা ট্যাকটিক্সে স্থির থাকতে পারেননা। নিয়মিত চেইঞ্জ করতে পছন্দ করেন তাঁর ফর্মেশান ও ট্যাকটিক্স। ক্লাবের যে ১১টা সুপারস্টার আছে সেই ১১টা সুপারস্টার দিয়েই যে মূল একাদশ গঠন করতে হবে, এরকমটা মনে করেননা টুখেল। ফর্মেশান, সিচুয়েশান সবকিছু মিলিয়ে যা ডিমান্ড করে সেরকমভাবেই দল সাজাতে পছন্দ করেন তিনি। মেইঞ্জে এই জিনিসটা অনেক করেছেন তিনি, যেজন্য দেখা যেত ক্লাবের সুপারস্টার খেলোয়াড়েরা প্রায়ই বেঞ্চে বসে থাকছেন, শুধুমাত্র ঐ নির্দিষ্ট ম্যাচে টুখেলের ফর্মেশানের সাথে ফিট করেননি দেখে। ঠিক এই কারণেই মূলত টুখেল তরুণ খেলোয়াড় কিনতে বেশী পছন্দ করেন, কারণ তিনি জানেন, তাঁর এক্সপেরিমেন্টাল বিভিন্ন ফর্মেশানে তরুণ খেলোয়াড়েরাই নিজেদেরকে প্রমাণ করার জন্য বেশী মুখিয়ে থাকবে, যেখানে এক্সপার্ট এবং তুলনামূলক বয়স্ক খেলোয়াড়দের মধ্যে প্রচলিত ঝুঁকিহীন ফর্মেশান ও ট্যাকটিক্সে খেলতে চাওয়ার প্রবণতাই বেশী।

এই কয় ম্যাচে টুখেলের দল নির্বাচন বা ফর্মেশানের দিকে যদি লক্ষ্য করা যায়, তাহলে আমরা দেখব এরইমধ্যে ক্লাবের বহুদিনের গোলবারের অতন্দ্র প্রহরী রোমান ভাইডেনফেলার জায়গা হারিয়েছেন সুইস তরুণ, এই মৌসুমেই ফ্রাইবুর্গ থেকে দলে আসা গোলরক্ষক আরেক রোমান, বার্কির কাছে। রাইটব্যাক স্লটের জন্য এরিক ডার্ম কিংবা লুকাস পিশচেক, এই দুজনের মধ্যেই মূলত হবে লড়াইটা, আবার আরও ব্যাকআপ হিসেবে আছেন এই মৌসুমেই বেয়ার লেভারকুসেন থেকে আসা বুন্দেসলিগার পুরনো পোড় খাওয়া সৈনিক গঞ্জালো কাস্ত্রো, যিনি কিনা অসাধারণ ভার্সেটাইল একজন খেলোয়াড়, মূলত সেন্ট্রাল মিডফিল্ডার হলেও খেলতে পারেন ফুলব্যাক পজিশান ও মিডফিল্ডের যেকোন জায়গাতেই ; আর ডিফেন্সের বামদিকের জায়গাটা সেই চিরনির্ভর মার্সেল শ্মেলৎজারের জন্যই বরাদ্দ থাকছে আপাতত। ক্লপের পুরোটা আমলে সেন্ট্রাল ডিফেন্সে মূলত জুটি বেঁধেছিলেন ম্যাটস হামেলস আর নেভেন সুবোটিচ। ম্যাটস হামেলস আর নেভেন সুবোটিচের মধ্যে জটিল রসায়নের নেপথ্যে ছিল খুবই সহজ একটা বিষয়, হামেলস একজন বলপ্লেয়িং সেন্টারব্যাক, আর ওদিকে সুবোটিচের ভূমিকাটা ছিল অনেকটা রাফ-অ্যান্ড-টাফ। কিন্তু গত মৌসুমে দুজনের ফর্মই পড়ে যায় কমবেশী, মূলত সুবোটিচেরটা, তাই এই মৌসুমে হামেলসের সাথে জুটি বাঁধার জন্য টুখেলের পছন্দ হয়েছেন গ্রিক সেন্টারব্যাক সকরাটিস পাপাস্থাতোপৌলোস, যিনিও কিনা আরেকজন বলপ্লেয়িং সেন্টারব্যাক।

ভাইডেনফেলারের জায়গায় এর মধ্যেই চলে এসেছেন বার্কি
ভাইডেনফেলারের জায়গায় এর মধ্যেই চলে এসেছেন বার্কি

টুখেল পরিবর্তন এনেছেন ডর্টমুন্ডের মিডফিল্ডেও। ক্লপের মিডফিল্ডে ছিল ইলকায় গুন্ডোগান, নুরি সাহিন, লার্স বেনডার আর সাবেক অধিনায়ক সেবাস্তিয়ান কেহলের সপ্রতিভ উপস্থিতি। গত মৌসুমে প্রত্যেকেরই কিছু না কিছু ইস্যু ছিল, যার খেসারত দেওয়া লেগেছে ডর্টমুন্ডকে – তখন সদ্য ইনজুরিফেরত গুন্ডোগানের জন্য হাঁ করে ছিল বিশ্বের প্রায় সকল বড় ক্লাব, নুরি সাহিন ইনজুরির সাথে যুদ্ধ করে যাচ্ছিলেন অবিরত, বেন্ডারের ফর্ম পড়েছিল দৃষ্টিকটুভাবে, আর সেবাস্তিয়ান কেহলের খেলায় খুব ভালোভাবেই বোঝা যাচ্ছিল বয়সের প্রভাব। টুখেল ডর্টমুন্ডে এসেই প্রত্যেকটা পরিস্থিতি খুব পরিপক্কতার সাথে মোকাবেলা করেছেন, গুন্ডোগানকে নতুন কন্ট্রাক্ট দিয়ে ডর্টমুন্ডে নিশ্চিত করেছেন তাঁর ভবিষ্যত, সাহিনের ইনজুরি আর বেন্ডারের অফ ফর্মের কারণে দলে এনেছেন ; ঐ যে আগে যার নাম বললাম – গঞ্জালো কাস্ত্রো আর ১৮৬০ মিউনিখের উঠতি সুপারস্টার জুলিয়ান ভাইগেলকে। এই কয় ম্যাচে সভেন বেন্ডারের জায়গায় এই জুলিয়ান ভাইগেল ডিফেন্সিভ মিডফিল্ডে, দুই সেন্টারব্যাকের একটু সামনের পজিশানে খেলছেন নিয়মিত, ৪-১-৪-১ বা ৪-৫-১ ফর্মেশানটায়… (চলবে)

জুলিয়ান ভাইগেল
জুলিয়ান ভাইগেল

কমেন্টস

কমেন্টস

মন্তব্য করুন

seventeen + seventeen =