জয় দিয়ে শুরু করলো চ্যাম্পিয়নরা

বৃষ্টিভেজা মান্যবর বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের প্রথম দিনে ফরাশগঞ্জের বিপক্ষে জয় দিয়ে শুরু করেছে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাব। জয়টি ৪-১ গোলের।

04_207923
ম্যাচের ১০ মিনিটের মধ্যেই পেনাল্টি থেকে গোল করে দলকে এগিয়ে দিয়ে মোটামুটি একটা অঘটনের সম্ভাবনাই দেখিয়েছিলেন ফরাশগঞ্জের পিটার। পিটারকে শেখ জামালের কেষ্ট কুমার ডি-বক্সের মধ্যে টেনে ফেলে দেন, ফলে রেফারি মিজানুর রহমান পেনাল্টির বাঁশি বাজান। পেনাল্টি থেকে গোল করতে বিন্দুমাত্রও সমস্যা হয়নি প্রিমিয়ার লিগে প্রত্যাবর্তনকারী ফরাশগঞ্জের।

ম্যাচের শুরুতেই গোল খেয়ে যেন গা ঝাড়া দিয়ে ওঠে চ্যাম্পিয়নরা। ১৫ মিনিটের মধ্যেই এক প্রান্ত থেকে আসা শেখ জামালের ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক ইয়ামিনের দর্শনীয় এক ক্রসকে কাজে লাগিয়ে এক দারুণ শটে শেখ জামালকে সমতায় ফেরান হাইতিয়ান ফরোয়ার্ড ওয়েডসন।

দ্বিতীয়ার্ধের ৪৭ মিনিটে দূর্দান্ত এক ফ্রিকিক থেকে গোল করে শেখ জামালকে এগিয়ে দেন গতবারের সুপারস্টার হাইতিয়ান সনি নর্দের জায়গায় আসা স্ট্রাইকার ল্যান্ডিং ডার্বো। ৭৫ মিনিটে বক্সের বাইরে থেকে এক শটে দলের তৃতীয় গোলটি করেন দেশসেরা মিডফিল্ডার মামুনুল। অতিরিক্ত সময়ে দলের চতুর্থ গোলটিও করেন স্ট্রাইকার ল্যান্ডিং ডার্বো, আবারো অ্যাসিস্ট উইংব্যাক ইয়ামিনের, আপাতদৃষ্টিতে তাই মনে হতেই পারে সনি নর্দের এক যোগ্য পরিবর্তই পেয়ে গেছে শেখ জামাল!

এক হালি গোল যে দল খায়, পারতপক্ষে মনে হতেই পারে সে দলের গোলরক্ষক খেলেছেন জঘন্য, কিন্তু আসলে তা না। যারা খেলা দেখেছেন তারা বলতে পারবেন ফরাশগঞ্জের গোলরক্ষক সুজন কি দুর্দান্ত কয়েকটি সেইভ করেছেন। এদিকে ব্রাজিল বিশ্বকাপে প্রথম ব্যবহার করা রেফারিদের স্প্রে এর কথা মনে আছে? বাংলাদেশের শীর্ষ লীগে কালকে সেটার ব্যবহারও শুরু হল। ফলে কালকে মানুষের রেফারির প্রতিও আগ্রহ ছিল বেশী।

প্রথম ম্যাচ বলে স্বভাবসুলভ জড়তা ছিলই শেখ জামালের খেলার মধ্যে, তবুও, শেষে ৪-১ গোলের বিশাল জয়ে সব জড়তাটুকু বলতে গেলে উবেই গেছে!

ছবি কৃতজ্ঞতা – কালের কণ্ঠ

কমেন্টস

কমেন্টস

মন্তব্য করুন

three × one =