জয় দিয়ে রিয়ালের বিদায় উদযাপন

ঘরের মাঠে জয় দিয়েই ২০১৫ কে বিদায় জানালো স্প্যানিশ জায়ান্ট রিয়াল মাদ্রিদ । ঘরোয়া লীগ লা লীগার ১৭তম রাউণ্ডে রিয়াল সোসিয়াদকে ৩-১ গোলে হারায় রাফা বেনিতেজ শিষ্যরা । নিয়মিত অধিনায়ক সার্জিও রামোস ও নিয়মিত রক্ষণ প্রহরী রাফায়েল ভারানেকে ছাড়াই স্যান্টিয়াগো বার্নাব্যুতে সোসিয়েদকে আতিথ্য দেয় অল হোয়াইটরা । পয়েন্ট টেবিলের তিন নম্বরে থাকা মাদ্রিদের জয় বিকল্প ছিলোনা । আক্রমণটা তাই শুরু থেকেই ডানা মেললো । আট মিনিটেই এগিয়ে যেত পারত স্বাগতিকরা । বেলের সুক্ষ্ন পাসটি রোনালদো জালে জড়াতে ব্যর্থ হলে ঠিক ফিরতি আক্রমণেই বেঞ্জেমার শটটি আবারও ঠেকিয়ে দেয় সোসিয়েদাদ গোলরক্ষক । ২৩ মিনিট পর্যন্ত রিয়াল সোসিয়েদাদ গোলকিপারের দৃঢ়তা ডিফেণ্ডারদের ব্যর্থতা ঢাকলেও ভুলটা শেষ পর্যন্ত করেই বসে তারা । করিম বেঞ্জেমাকে নিজেদের ডি বক্সে ফেলে দিয়ে বিপদ ডেকে আনে অতিথিরা । তবে তাদের স্বস্তি দিয়েছে রোনালদোর লক্ষ্যভ্রষ্ট শট ।

2FB01A7000000578-0-image-a-76_1451575853564

২৬ মিনিটে আবারওদলকে বাঁচান সোসিয়েদাদের আর্জেন্টাইন গোলকিপার রুলি । করিম বেঞ্জেমা তথা মাদ্রিদকে আবারও হতাশ হতে হয় । ৩৫ মিনিটে জোনাথাস সুযোগ মিস করলে মিনিট দুয়েক পরেই লুকা মদ্রিচের মাপা শট ফিরিয়ে অসম্ভব দৃঢ়তার পরিচয় দেয় রুলি । তবে রুলির পরিশ্রম আবারও অর্থহীন হয়ে পড়ে সতীর্থের অসতর্কতায় । নিজেদের বিপদ সীমায় এবার হ্যাণ্ডবল করে বসেন ইউরি । এবার আর ভুল করেননি মাদ্রিদের পর্তুগীজ সুপারস্টার । রুলি সঠিক দিকে ঝাঁপিয়ে পড়লেও রোনালদোর গতির কাছে পরাস্ত হতে হয় তাকে । ৪২ মিনিটে স্বাগতিকরা এগিয়ে যায় ১-০ তে । আধিপত্য বজায় রাখলেও রুলি দৃঢ়তায় এক গোলেই প্রথমার্ধ শেষ করতে হয় স্বাগতিকদের । দ্বিতীয় হাফে অবশ্য চিত্রপটে পরিবর্তন আসে । ভয়ংকর হয়ে ওঠে অতিথিরা । ৪৮ মিনিটে রুবেন পেদ্রোর ফ্রি-কিক অল্পের জন্য লক্ষ্যভ্রষ্ট হয় । তবে মিনিট খানেক পরেই গোল উদযাপনে মাতে সোসিয়েদাদ । জোনাথাসের বাড়িয়ে দেওয়া বলটি সুক্ষ্ন মাপা শটে জালে জড়ায় বদলী খেলোয়ার ব্রুমা । ম্যাচে তখন আধিপত্য রাখার প্রতিযোগীতা । সুযোগ পেয়েছে দুদলই । তবে দিনশেষে হতাশার চাদর হয়ত অতিথিদেরই গায়ে চড়াতে হবে । কাউন্টার এ্যাটাক থেকে ব্রুমার সহজ মিসটি এগিয়ে দিতে পারতো তাদের । তবে ব্রুমা না পারলেও মাদ্রিদের রোনালদো পেরেছে । ৬৭ মিনিটে কর্নার থেকে মার্সেলোর পাঠানো ক্রস মাটি ছোঁয়ার আগেই পাঠিয়ে দেয় সোসিয়েদাদের জালে । ব্রেস ইওরসেলফ অতঃপর ট্রেডমার্ক উদযাপনে রোনালদো বার্নাব্যুকে ইশারায় জানিয়ে দেয় দিনটি আমাদেরই । ৭৫ মিনিটে ব্রুমা আবারও সুযোগ হাতছাড়া করে । তখনও শেষ চেষ্টা চলছিলো সফরকারী শিবিরে । কিন্তু ৮৬ মিনিটে ম্যাচের ভাগ্য সম্পূর্ণ নিজেদের দিকে টেনে নেয় মাদ্রিদের বদলী খেলোয়ার লুকাস ভাসকুয়েজ । মাদ্রিদীয় এক কাউন্টার এ্যাটাকে গ্যারেথ বেলের অসাধারণ এক লম্বা পাস সযত্নে গোলে রুপ দেয় এই তরুন স্প্যানিয়ার্ড । ৯৩ মিনিট শেষে রেফারি বাঁজায় বিদায়ের বাঁশি । ৩-১ গোলের জয়ে মাদ্রিদের পকেটে ওঠে পূর্ণ তিন পয়েন্ট । জোড়া গোলের সুবাদে চলতি লীগায় ১৪ গোল নিয়ে বার্সার নেইমারের সাথে যৌথভাবে সর্বোচ্চ গোল স্কোরারের খাতায় নাম লেখায় রোনালদো । অন্যদিকে ৭ এসিস্ট নিয়ে এককভাবে লীগে এসিস্ট লীডার ওয়েলশম্যান গ্যারেথ বেল । মাদ্রিদের আজকের জয়টি নিঃসন্দেহে স্বস্তির ভক্ত,কোচ ও খেলোয়ারদের । কোপা থেকে সাম্প্রতিক বাদ পড়া, বছরের শেষ ম্যাচ সব মিলিয়ে স্বস্থিকর এক জয়ই জমা হলো লস ব্ল্যান্কোস শিবিরে । তবে সবচেয়ে হাঁফ ছেড়ে বেঁচেছেন হয়ত কোচ বেনিতেজ । সাম্প্রতিক সময়ে তার বরখাস্তের জোর গুঞ্জন আজ বাস্তবে রুপ নিতো যদি দুর্ঘটনার শিকার হত তার দল ।।

কমেন্টস

কমেন্টস

মন্তব্য করুন

1 × three =