চ্যাম্পিয়নস লিগ কোয়ার্টার ফাইনাল : আগের যত হিসাব নিকাশ

চ্যাম্পিয়নস লিগ কোয়ার্টার ফাইনাল : আগের যত হিসাব নিকাশ

এ বছরের চ্যাম্পিয়নস লিগ এর কোয়ার্টার ফাইনালের ড্র অনুষ্ঠিত হয়ে গিয়েছে এইমাত্র, সুইজারল্যান্ডের নিয়নে। ক্লাব পর্যায়ের সর্বোচ্চ এই প্রতিযোগিতার কোয়ার্টার ফাইনালে স্প্যানিশ জায়ান্ট রিয়াল মাদ্রিদ মুখোমুখি হবে ইতালিয়ান চ্যাম্পিয়ন জুভেন্টাসের, আরেক স্প্যানিশ জায়ান্ট বার্সেলোনা লড়বে ইতালিয়ান ক্লাব এএস রোমার সাথে, দুই ইংলিশ জায়ান্ট লিভারপুল আর ম্যানচেস্টার সিটি লড়বে পরস্পরের বিপক্ষে, জার্মান জায়ান্ট বায়ার্ন মিউনিখ পেয়েছে স্প্যানিশ দল সেভিয়াকে।

কোয়ার্টার ফাইনালে ওঠা দলগুলোর মধ্যে সেভিয়াই একমাত্র দল যাদের সাথে এর আগে ইউয়েফা ক্লাব প্রতিযোগিতাগুলোয় বায়ার্ন মিউনিখ মোকাবিলা করেনি। এবার কোয়ার্টার ফাইনালে মুখোমুখি হচ্ছে এই সেভিয়া আর বায়ার্ন মিউনিখ। বায়ার্নের হামেস রড্রিগেজ স্প্যানিশ ক্লাবগুলোর মধ্যে এই সেভিয়ার বিপক্ষেই সর্বাধিক গোল করেছেন তাঁর ক্যারিয়ারে (৪টা)।

চ্যাম্পিয়নস লিগের নকআউট পর্বে এর আগে যতবার রিয়াল মাদ্রিদ জুভেন্টাসের মুখোমুখি হয়েছে, প্রত্যেকবারই রিয়াল মাদ্রিদকে পাশ কাটিয়ে পরবর্তী রাউন্ডে ওঠার টিকিট কেটেছে তুরিনের ওল্ড লেডিরা। ১৯৯৬ সালে কোয়ার্টার ফাইনালে, ২০০৩ সালের সেমিফাইনালে, ২০০৫ সালের রাউন্ড অফ সিক্সটিনে, আর ২০১৫ সালের সেমিফাইনালে! এবারের কোয়ার্টারে রিয়াল মাদ্রিদের কাজটা যে সহজ, সেটা তাই বলা যাচ্ছেনা কিন্তু! তাও, এই জুভেন্টাসকে ফাইনালে হারিয়েই গতবার চ্যাম্পিয়নস লিগের শিরোপা জিতেছিল মাদ্রিদ! তবে রিয়াল মাদ্রিদের ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো এর আগে যতবার জুভেন্টাসের মুখোমুখি হয়েছেন (৫ বার), প্রত্যেক ম্যাচে গোল করেছেন তিনি (৭টা), গোলসহায়তা করেছেন একটি। রোনালদোকে আটকাতে পারলেই যে জুভেন্টাসের কাজ অর্ধেক হয়ে যাচ্ছে, তা বলা বাহুল্য!

এবার চ্যাম্পিয়নস লিগ এর কোয়ার্টার ফাইনালে মুখোমুখি হচ্ছে ইউর্গেন ক্লপের লিভারপুল আর পেপ গার্দিওলার ম্যানচেস্টার সিটি। ২০১০-২০১১ মৌসুমের কোয়ার্টার ফাইনালে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড আর চেলসির মোকাবিলার পর এখন পর্যন্ত চ্যাম্পিয়নস লিগের কোয়ার্টার ফাইনালে দুই ইংলিশ দল মোকাবিলা করেনি। এর আগে পাঁচটি ভিন্ন ভিন্ন প্রতিযোগিতায় গার্দিওলাকে হারিয়েছেন ক্লপ, এতবার গার্দিওলাকে কেউ হারাতে পারেননি! ইউরোপিয়ান প্রতিযোগিতায় লিভারপুলের সপ্তম ইংলিশ প্রতিপক্ষ হিসেবে নাম লেখাতে যাচ্ছে ম্যানচেস্টার সিটি, এর আগে লিডস ইউনাইটেড, ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড, টটেনহ্যাম হটস্পার, চেলসি, আর্সেনাল, নটিংহ্যাম ফরেস্টের মুখোমুখি হয়েছিল লিভারপুল।

ইউরোপীয় ক্লাব প্রতিযোগিতায় এর আগে চারবার মুখোমুখি হয়েছে বার্সেলোনা আর এএস রোমা। প্রথম তিন ম্যাচে রোমা অপরাজিত থাকলেও শেষ ম্যাচে চ্যাম্পিয়নস লিগ এ বার্সার কাছে ছয় গোল খেয়েছিল তারা! ২০১৫ সালের নভেম্বরে চ্যাম্পিয়নস লিগ এর সেই ম্যাচে রোমাকে ৬-১ গোলে উড়িয়ে দিয়েছিল বার্সা, যা ইউরোপীয় যেকোন প্রতিযোগিতায় স্প্যানিশ প্রতিপক্ষের কাছে ইতালিয়ান যেকোন দলের সবচেয়ে বড় পরাজয়। এই নিয়ে টানা ১১ মৌসুম চ্যাম্পিয়নস লিগের কোয়ার্টার ফাইনালে উঠলো বার্সা। এর আগে চ্যাম্পিয়নস লিগের ইতিহাসে টানা এত কোয়ার্টার ফাইনাল (বা তদুর্ধ্ব) অন্য কোন দল খেলেনি।

কমেন্টস

কমেন্টস

মন্তব্য করুন

five × 3 =