চেষ্টা না থাকলে পাশে থেকে কি করব?

মামুনুল নিজেকে মুক্তিযোদ্ধা ভাবার চেষ্টা করছেন!!!
যেখানে আমাদের দেশের ইন্সিপিরেসন মাশরাফী নিজেকে এই তুলনাতে নিতে চায় না- কিন্তু নিজেই নিজেকে প্রমোশন দিয়ে ফেলছেন!!!

বদনাম আছে পা বাঁচিয়ে খেলার,
খেলার আগের রাতে ফেসবুকে ২/৩ টা পর্যন্ত ছেলেদের পাওয়া যায়,
সারা রাত ফোনে কথা- রিলেশন স্ট্যাটাস নিয়ে চিন্তিত থাকে- খেলাতো গৌন।

Mominul

স্পোর্টস ৭০% ফিজিক্যাল গেম হলে ৩০% মেন্টাল গেম। এই জিনিসটা বাফুফেও বুঝে না, আর আপনাদের তো নিজে থেকে কিছু করবেন না। যা বাফুফে বা ক্লাব দিবে তার বাইরে চিন্তা বা কষ্ট কেন করবেন?? ক্লাবরা তো মারামারি কাটাকাটি করে আপনাদের নিতে বাধ্য। নতুন প্লেয়ারের লাইন বন্ধ। তাই চিন্তার ও কিছু নাই।

প্রত্যেক টুর্নামেন্ট এ শৃংখলা ভংগ, এক ম্যাচ জিতলেই বিশ্বকাপ জিতে ফেলা, কোচের কথা না শোনা (সবাই কোচের থেকে বেশি বুঝে)
উপরের সব আপনার জন্য প্রযোজ্য না, কিন্তু অনেক কিছুতেই আপনি আছেন।
আপনার নামে সব থেকে বড় কথা গ্রুপিং, সেইজন্য অনুরোধ ছিলো ক্যাপ্টেন্সী ছাড়েন। শুনলেন না।

কোচ ও আপনাদের কথা না শুনলে টিকতে পারে না- এতটাই শক্ত আপনারা।

আপনি দেশের সেরা খেলোয়াড়। সেরা খেলোয়াড় হলেই যে সেরা মিডিয়া ম্যান হবেন তা না। মুখ একটু কম খুলুন। এখন আর আপনাদের প্রতি সেই আবেগ আসে না- যেটা আগে আসতো।

খারাপ সময়ে পাসে থাকবো, কিন্তু যাদের চেষ্টা নাই- তাদের পাশে থেকে কি করবো???

কমেন্টস

কমেন্টস

মন্তব্য করুন

seventeen + twenty =