খেলো এখন ভাইয়ে ভাইয়ে!

‘পাকিস্তান একটি সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ আক্রান্ত দেশ। বিশ্বের কোনো দেশই সেখানে ক্রিকেট খেলতে যায় না। আমাদের কী দরকার ছিল সেখানে নারী টিমকে পাঠানো। নারী ক্রিকেট দলকে পাঠিয়ে পাকিস্তানকে জঙ্গি তকমা থেকে মুক্তি দিতে গিয়ে এখন সেই তকমা পেয়েছে বাংলাদেশ।’ -সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত।

এই কথাটাই, ঠিক এই কথাটাই বাসায় বলেছি দিন দুয়েক আগে। এটা ক্রিকেট রাজনীতি। নিরাপত্তা ইস্যু আছে কিন্তু এটা স্রেফ পলিটিক্স। আরও স্পেসিফিক করে বললে বিসিসিআই এর চাল। তোমরা পাকিস্তানকে নিরাপদ প্রমান করতে নারী দল পাঠাবা আর তাদের সরাসরি রাইভাল হয়ে বিসিসিআই কেন এটা মানবে? সিএ আর ইসিবি তো তুলনামূলক খানিক বেশি পাওয়ারফুল বিসিসিআই এর স্ট্রাটেজিতেই চলবে, তাই না? ক্রিকেট শুধু খেলার মাঝে আটকে নেই অনেকদিন হলো। যে লোকটাকে সময়ে অসময়ে একটু পাশে পাওয়া যেত সেও ক’দিন আগে পৃথিবী ছেড়েছে। শশাঙ্ক মনোহরের নিশ্চয়ই বাংলাদেশ নিয়ে হেডেক নেই। বিসিবির শুধু দলটাকে খেলতে পাঠালেই হবে না, পিছনের পলিটিক্সও ফেস করতে হবে। অন্য পথ ‘বন্ধ’ ধরে নিতে হবে। ওয়ান ওয়ে রোড। হয় সবার সাথে খেলো না হয় বাংলাস্তান তকমা নিয়ে শুধু ভাইয়ে ভাইয়ে খেলো।

কমেন্টস

কমেন্টস

মন্তব্য করুন

15 − two =