কোপা আমেরিকা টিম প্রিভিউ : উরুগুয়ে

শিরোপা জয়ের দিক দিয়ে ১৫ বারের শিরোপাজয়ী উরুগুয়ে কোপা আমেরিকার ইতিহাসের সবচেয়ে সফলতম দল। সর্বশেষ ২০১১ সালে কোপাজয়ী উরুগুয়ে এবারও শিরোপাকেই পাখির চোখ করছে, সে কথা বলেই দেওয়া যায়। ডিয়েগো ফোরলান উত্তর যুগে বহু বছর ধরেই একটা কথা প্রচলিত হয়ে আসছে, লুইস সুয়ারেজ যতটুকু পর্যন্ত উরুগুয়েকে টানতে পারবেন, যেকোন আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্টে তাঁদের দৌড়ও ঠিক ততটুকুই হবে। কারণ এডিনসন কাভানি হোক বা আবেল হার্নান্দেজ, ক্লাবের হয়ে আলো ছড়ানো কেউই জাতীয় দলের হয়ে ঠিক ঝলসে উঠতে পারেন না, টানতে হয় সেই সুয়ারেজকেই।

এবারের কোপার গ্রুপপর্বে লুইস সুয়ারেজকে পাচ্ছেনা উরুগুয়ে
এবারের কোপার গ্রুপপর্বে লুইস সুয়ারেজকে পাচ্ছেনা উরুগুয়ে

যদিও এই সুয়ারেজই আবার কামড় কাণ্ড থেকে শুরু করে বর্ণবাদী ঘটনাসহ বিভিন্ন ন্যাক্কারজনক কাণ্ডের জন্য নিষিদ্ধ থাকেন অর্ধেক বছর। কিন্তু বাকী যে অর্ধেক বছর খেলেন, পুষিয়ে দেন নিষিদ্ধ থাকার সময়টা। গত বিশ্বকাপে ইতালিয়ান ডিফেন্ডার জিওর্জিও কিয়েল্লিনিকে কামড় দেওয়ার কারণে মিস করেছিলেন গত কোপার প্রায় পুরোটাই, যেটার চড়া মাশুল গুনতে হয়েছে উরুগুয়েকে। সুয়ারেজহীন ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়নরা কোয়ার্টার ফাইনাল থেকে বাদ হওয়া পর্যন্ত করতে পেরেছিল মাত্র দুটো গোল। তাঁর মধ্যে একটাও স্ট্রাইকারদের দেওয়া কোন গোল না, চূড়ান্ত অনুজ্জ্বল থেকেছিলেন কাভানি, রোলান ও হার্নান্দেজরা। এবারও সুয়ারেজকে গ্রুপপর্বে পাচ্ছেনা উরুগুইয়ানরা, কোপা দেল রে ফাইনালে ইনজুরিতে পড়ে এবারের গ্রুপপর্ব মিস করছেন তিনি। কোনরকমে নকআউট পর্বে উঠলে আবার সুয়ারেজকে ঠিকই পাবে তারা। এখন সুয়ারেজকে ছাড়া উরুগুয়ে নকআউট পর্বে উঠতে পারবে ত? দেখার বিষয় সেটাই।

২৩ সদস্যের কোপা আমেরিকা স্কোয়াড এরইমধ্যে ঘোষণা করে দিয়েছেন কোচ অস্কার তাবারেজ। দেখে নেওয়া যাক দলটা কিরকম হল।

  • গোলরক্ষক

ফার্নান্দো মুসলেরা (গ্যালাতাসারাই)

মার্টিন ক্যাম্পানিয়া (ইন্ডিপেন্ডিনটে)

মার্টিন সিলভা (ভাস্কো দা গামা)

গোলবারে যথারীতি থাকছেন ফার্নান্দো মুসলেরা
গোলবারে যথারীতি থাকছেন ফার্নান্দো মুসলেরা

 

  • ডিফেন্ডার

ডিয়েগো গোডিন (অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ)

হোসে মারিয়া জিমেনেজ (অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ)

ম্যাক্সি পেরেইরা (এফসি পোর্তো)

হোর্হে ফুসিলে (নাসিওনাল)

আলভারো পেরেইরা (গেটাফে)

মরিসিও ভিক্টোরিনো (নাসিওনাল)

ম্যাথিয়াস কোরুজো (ইউনিভার্সিদাদ দে চিলি)

গাসতন সিলভা (তোরিনো)

অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদের সেন্ট্রাল ডিফেন্সিভ জুটি ডিয়েগো গোডিন-হোসে মারিয়া জিমেনেজকে দেখা যাবে উরুগুয়ের হয়েও
অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদের সেন্ট্রাল ডিফেন্সিভ জুটি ডিয়েগো গোডিন-হোসে মারিয়া জিমেনেজকে দেখা যাবে উরুগুয়ের হয়েও

 

  • মিডফিল্ডার

কার্লোস সিলভা (মন্তেরেই)

ডিয়েগো ল্যাসাল্ট (জেনোয়া)

গ্যাসতন রামিরেজ (মিডলসব্রো)

এজিডিও আরেভালো রিওস (অ্যাটলাস)

নিকোলাস লোডেইরো (বোকা জুনিয়র্স)

মাতিয়াস ভেচিনো (ফিওরেন্টিনা)

অ্যালভারো গঞ্জালেস (অ্যাটলাস)

 

  • স্ট্রাইকার

লুইস সুয়ারেজ (বার্সেলোনা)

এডিনসন কাভানি (প্যারিস সেইন্ট জার্মেই)

ক্রিস্টিয়ান স্টুয়ানি (মিডলসব্রো)

আবেল হার্নান্দেজ (হাল সিটি)

ডিয়েগো রোলান (বোর্দো)

 

  • উল্লেখযোগ্য যারা বাদ পড়লেন

সেবাস্তিয়ান কোয়াতেস (ডিফেন্ডার, স্পোর্টিং লিসবন)

গুইলের্মো ভ্যারেলা (ডিফেন্ডার, ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড)

মার্টিন ক্যাসেরেস (ডিফেন্ডার, জুভেন্টাস)

ক্রিস্টিয়ান রড্রিগেজ (মিডফিল্ডার, ইন্ডিপেন্ডিয়েন্টে)

 

বহুবছর ধরেই উরুগুয়ের গোলবারের বিনিদ্র প্রহরী ফার্নান্দো মুসলেরা এবারও মূল একাদশের অবিচ্ছেদ্য নাম হয়ে থাকবেন। ডিয়েগো সিমিওনের অধীনে অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদে নিশ্ছিদ্র সেন্ট্রাল ডিফেন্স গড়া ডিয়েগো গডিন-হোসে মারিয়া জিমেনেজ উরুগুয়ের সেন্ট্রাল ডিফেন্সেও থাকবেন সেটা বলেই দেওয়া যায়। সাবেক লিভারপুল ডিফেন্ডার সেবাস্তিয়েন কোয়াতেস না থাকার কারণে তাঁদের ব্যাকআপ হিসাবে থাকবেন নাসিওনালের সেন্টারব্যাক মরিসিও ভিক্টোরিনো এবং তোরিনোর গ্যাসতন সিলভা। রাইটব্যাক হিসেবে পোর্তোয় খেলা চিরনির্ভর ম্যাক্সি পেরেইরা থাকছেন, লেফটব্যাক হিসেবে থাকছেন আরেক পেরেইরা যথারীতি, গেটাফের আলভারো পেরেইরা। রাইটব্যাকে ম্যাক্সি পেরেইরা জায়গা পাওয়ার জন্য লড়তে হবে নাসিওনালের হোর্হে ফুসিলের সাথে, সাথে নতুন মুখ আছেন ম্যাথিয়াস কোরুজো। জুভেন্টাসের ফুলব্যাক মার্টিন ক্যাসেরেস না থাকার কারণে লেফটব্যাক পজিশানেও ব্যাকআপ হিসেবে থাকছেন ফুসিলে।

Uruguay

অস্কার তাবারেজের পছন্দের ফর্মেশান মূলতঃ ৪-৪-২ তবে পাত্রভেদে ৪-৫-১ ফর্মেশানেও খেলাতে দেখা যায় তাঁকে। ৪-৪-২ ফর্মেশানে দুইজন সেন্ট্রাল মিডফিল্ডার হিসেবে দুই অ্যাটলাস সতীর্থ এজিডিও আরেভালো রিওস আর আলভারো গঞ্জালেসের খেলা মোটামুটি নিশ্চিত। তাঁদের জায়গার জন্য লড়াই করতে হবে ফিওরেন্টিনার উঠতি সুপাস্টার মাতিয়াস ভেচিনোর সাথে, ৪-৫-১ ফর্মেশানে খেললে তাই রিওস ও গঞ্জালেসের পাশাপাশি তৃতীয় সেন্ট্রাল মিডফিল্ডার হিসবী ভেচিনোর খেলার সম্ভাবনা সর্বাধিক। দুই ওয়াইড মিডফিল্ডার হিসেবে খেলছেন বোকা জুনিয়র্সের লিকোলাস লোডেইরো ও মন্তেরেইয়ের কার্লোস স্যানচেজ, সামনের দুই স্ট্রাইকার প্যারিস সেইন্ট জার্মেইয়ের এডিনসন কাভানি ও বোর্দোর ডিয়েগো রোলান। সুয়ারেজ ফেরত আসার সাথে সাথে রোলানের স্থান হয়ে যাবে বেঞ্চে, সেক্ষেত্রে স্ট্রাইক পজিশানে জুটি বাঁধবেন সুয়ারেজ ও কাভানি। ৪-৫-১ পজিশানে সুয়ারেজসহ খেলালে একমাত্র স্ট্রাইকার হিসেবে খেলবেন তিনি, তখন উইংয়ে চলে যাবেন কাভানি। স্ট্রাইক পজিশানে জায়গা পাওয়ার জন্য লড়বেন হাল সিটির স্ট্রাইকার আবেল হার্নান্দেজ। উইঙ্গার ক্রিস্টিয়ান রড্রিগেজ খেলছেন না এইবার। ৪-৫-১ ফর্মেশানে খেললে অ্যাটাকিং মিডফিল্ডার হিসেবে খেলবেন নিকোলাস লোডেইরো বা মিডলসব্রোর গ্যাসতন রামিরেজের মধ্যে যেকোন একজন।

1453294_Torquay_United

উরুগুয়ে কি পারবে কোপার শিরোপা পুনরুদ্ধার করে কোপার সফলতম দল হিসাবে আরও একবার এগিয়ে যেতে? উত্তরটা নিহিত আছে কাল থেকে শুরু হতে যাওয়া কোপাতেই!

কমেন্টস

কমেন্টস

মন্তব্য করুন

seventeen − four =