কপিবুক ডিফেন্সের জয়জয়কার

চেন্নাইয়ের বন্যায় বাবা-মা কোথায়, কীভাবে আছে ২৪ ঘন্টা ধরে তার খোঁজ না পেয়েও শুধু পেশাদারিত্বের কথা মাথায় রেখে মাঠে নেমেছে অশ্বিন। এটা নিয়ে বেশ আলোচনা হচ্ছে। স্মৃতি প্রতারণা না করলে, মনে পড়ছে অশ্বিন হিন্দু বিবাহের নিয়ম মেনে সারারাত জেগে ভোর ছয়টায় বিয়ের মন্ত্র পড়ে তিন ঘন্টা পরে সকাল নয়টায় খেলতে নেমে গেছিলো ভারতের হয়ে। সেই টেস্টেও সম্ভবত ৬ উইকেট পেয়েছিলো এক ইনিংসে।

অ্যাডিলিড ফিরে আসছে ফিরোজ শাহ কোটলাতে। ডু প্লেসিসের ৩৭৬ বলে ১১০ এর দায়িত্বে আমলা। বা তার থেকেও সময়োপযোগী। চোখ ধাঁধানো কপিবুক ডিফেন্স। ২০৭ বলে ২৩ রানে অপরাজিত। অ্যাডিলিডের ২২০ বলে ৩৩ এর পার্শ্বনায়ক ডি ভিলিয়ার্স এই টেস্টেও ৯১ বলে ১১ করে অপরাজিত। ৭২ ওভারে দক্ষিণ আফ্রিকার সংগ্রহ ৭২। এই ৭২ রানও ইন্ডিয়া জোর করে দিয়েছে। কখনো একটানা শর্টপিস করায় বাভুমা দু’একটা ব্যাট টেনেছে। ওরা ধারণা করেছে, আমলা ১০ গজের বাইরে বল পাঠাবে না বলে প্রতিজ্ঞা করেছে। তাই ধাওয়ান দু’-তিনটে ফুলটস দিয়ে প্রতিজ্ঞা ভাঙিয়েছে। বাকি রানগুলোও ইনসাইডেজ বা আউটসাইডেজ হয়ে আসা। ভিলিয়ার্স কয়েকটা রান নিলো একদম অনিচ্ছাসত্ত্বে! মানুষ যতই বিরক্তিকর বলুক, এরকম ধনুকভাঙ্গা পণ দেখতে অসাধারণ লাগছে। গাভাস্কার আর কুম্বলের হতাশায় কান দেবার কিছু নেই। গাভাস্কার নিজেও ১৯৭৯ তে ৪৪৩ বলের ইনিংস খেলে ইংল্যান্ডের সাথে টেস্ট ড্র করেছিলো। সেটা নিয়ে ভারতের ব্যাটিং চলাকালীন সময়ে সে গর্বও করেছে।

কমেন্টস

কমেন্টস

মন্তব্য করুন

5 − 3 =