কপাল!

মিচু কে মনে আছে? লম্বা চুলের স্প্যানিশ সেই স্ট্রাইকার, বছর তিনেক আগে প্রিমিয়ার লীগে এসে সোয়ানসির মত ক্লাবের হয়ে গোলের পর গোল করে সবাইকে তাজ্জব বানিয়ে দিয়েছিলেন যে? সোয়ানসির ইতিহাসের প্রথম লিগ কাপ জয়ও আসে তার হাত ধরেই। যে দুর্দান্ত ফর্ম ভিসেন্তে দেল বস্ক কে বাধ্য করেছিল স্প্যানিশ জাতীয় দলের হয়ে তাকে নির্বাচন করার জন্য।

কোচের সাথে ঝামেলা, হাঁটুর ইনজুরি – এরকম আরও হাজারটা কারণে মিচু আজ বিস্মৃত নাম এক। গত এক বছর প্রতিযোগিতামূলক কোন ম্যাচ না খেলা মিচু খবরে এসেছেন আবার – সম্পূর্ণ মনখারাপ করা কারণে ; তিনি যোগ দিতে চাচ্ছেন স্পেইনের চতুর্থ বিভাগের ক্লাব ইউপি ল্যাংরেও তে।

সোয়ানসির হয়ে প্রথম মৌসুমেই ৪৩ ম্যাচে ২২ গোল করা মিচুর ফর্ম দেখে তখনকার ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ম্যানেজার স্যার অ্যালেক্স ফার্গুসন মজা করে বলেছিলেন, “আমার আমাদের স্কাউট টিমের সাথে কথা বলে দেখতে হবে, তারা কি করছিলো তখন (যখন মিচুকে সোয়ানসি আনল)!”

মাত্র ২ মিলিয়ন পাউন্ডের বিনিময়ে তৎকালীন সোয়ানসি ম্যানেজার মাইকেল লাউড্রপ রায়ো ভ্যায়েকানো থেকে নিয়ে আসেন মিচুকে, মূলত একটা অ্যাটাকিং মিডফিল্ডার হিসেবে, সেই মিডফিল্ডারই পরে নিয়মিত স্ট্রাইকার হয়ে সোয়ানসির হয়ে গোলের পর গোল করে যান।

আর আজ হাঁটুর ইনজুরি থেকে মুক্তির জন্য তাঁকে স্পেইনের চতুউরথ বিভাগের একটা দলের হয়ে খেলার কথা চিন্তা করতে হয়!

 

কমেন্টস

কমেন্টস

মন্তব্য করুন

18 + thirteen =