এভারটন : নতুন ইপিএল জায়ান্ট – ২

::::: আদনান আল রাহীন :::::

  • নতুন স্টেডিয়াম-পরিকল্পনা

গত পর্বে বলেছিলাম এভারটনের মালিকানা ও ইনভেস্টমেন্ট নিয়ে; ইরানিয়ান ব্যবসায়ী ফরহাদ মশিরি ২০০ মিলিয়ন পাউন্ড ইনভেস্ট করেছেন এভারটনে। তন্মধ্যে প্রধান পরিকল্পনায় ছিল দুইটি বিষয়- নতুন স্টেডিয়াম ও নিজেদের দামী খেলোয়াড়দের ধরে রাখা। সেই ১৯৯৬ সাল থেকে নতুন স্টেডিয়ামের স্বপ্ন দেখা টফি’সদের স্বপ্ন অবশেষে সত্যি হতে যাচ্ছে। ১৮৯২ সাল থেকে অনেক সাক্ষীর ও ঐতিহ্যের গুডিসন পার্ককে বিদায় জানাতে হবে নীল মার্সিসাইডারদের; এবং এটি তিন বছরের মধ্যেই! লিভারপুল মেয়র জো অ্যান্ডারসন ইতোমধ্যে ঘোষণা দিয়ে দিয়েছেন নতুন স্টেডিয়াম করার পিছনে সর্বাত্মক সহযোগিতা করবেন তিনি। নতুন স্টেডিয়ামের নাম হতে যাচ্ছে ওয়াটারফ্রোন্ট পার্ক। ৫০৪০১ জন এভারটনিয়ান একসাথে বসে খেলা দেখতে পারবেন এখানে। পরবর্তীতে স্টেডিয়ামের আসনসংখ্যা বাড়িয়ে ৬০০০০ পর্যন্ত করার পরিকল্পনা রয়েছে। যেখানে গুডিসন পার্কে সর্বসাকল্যে বসতে পারে ৩৯৫৭২ জন। চলুন, ছোট করে জেনে নেই নতুন স্টেডিয়াম করার পিছনের ইতিহাস।

১৯৯৬ সালে প্রথমবারের মত এভারটনিয়ানদের কাছে ভোটের মাধ্যমে জানতে চাওয়া হয় তাঁরা গুডিসন পার্কেই থাকবে নাকি নতুন স্টেডিয়ামে যাবে? ৮৫% ফ্যান মতামত দেয় নতুন স্টেডিয়াম করার জন্য। ২০০৩ সালে মাত্র ৩০ মিলিয়ন পাউন্ডের জন্য নতুন স্টেডিয়ামের কাজ শুরু করতে পারেনি এভারটন। ২০০৬ সালে সম্ভাব্য দুইটি জায়গা নির্বাচন করে এভারটন। ২০০৯ সালে সরকার থেকে বাতিল করে দেয়া হয় নতুন স্টেডিয়ামে যাওয়ার ব্যাপারটি। কিন্তু ইনভেস্টমেন্টের অভাবে বেশিদূর এগিয়ে যেতে পারেনি তাঁরা। এরই মাঝে লিভারপুল মেয়র জো অ্যান্ডারসন ও এভারটন মিলে নির্বাচন করে ওয়াল্টন হল পার্ককে। এই মেগা প্রজেক্টের পরিকল্পনায় ছিল ১০০০টি নতুন বাড়ি, ৩০০০ বর্গমিটার এলাকা জুড়ে বিনোদন, ব্যবসা ও রেস্টুরেন্টের আনাগোনা। এর জন্য ৩০০ মিলিয়ন যোগাড়ও করা হয়ে গিয়েছিল। কিন্তু বাধা আসে গ্রিন স্পেস ক্যাম্পেইনার’দের কাছ থেকে। কেননা অনেক আগে থেকেই রিটেইল বিজনেসের জন্য ওয়ালটন হল পার্ক বিখ্যাত। তাঁরা চায়নি পার্কের কোন ক্ষতি হোক, এছাড়াও অর্থনৈতিক দিক চিন্তা করে এই পরিকল্পনা বাতিল করতে বাধ্য হয় এভারটন ও সিটি কাউন্সিল। এতকিছুর পরও দমে যায়নি এভারটন চেয়ারম্যান বিল কেনরাইট। বিকল্প হিসেবে মার্সি নদীর উত্তর ডক (নর্থ ডক) ও Croxteth এর Stonebridge Crossকে সিলেক্ট করে কেনরাইট। Croxteth এর Stonebridge Cross এ এক্ষেত্রে এগিয়ে আছে; যদিও এখনো ঠিক হয়নি কোথায় নতুন স্টেডিয়াম বানানো হবে। লিভারপুল মেয়র আশা করছেন আগামী দুই মাসের মাঝেই ঘোষণা আসছে কোথায় স্টেডিয়ামটি বানানো হবে। meis architect নামের এক অ্যামেরিকান কম্পানি যা ২০০৭ সালে প্রতিষ্ঠিত, তাঁরা ওয়াটারফ্রোন্ট পার্ক স্টেডিয়াম বানাচ্ছে। এছাড়াও তাঁরা লস এঞ্জেলসে ৭৫০০০ সিটের এনএফএল স্টেডিয়াম ও লাস ভেগাসের এমএলএস স্টেডিয়ামের কাজে নিয়োজিত। এছাড়াও ইতালিয়ান ক্লাব এএস রোমার নতুন স্টেডিয়ামটিরও নকশা করেছে কোম্পানিটি। সিনসিনাটি এর পল ব্রাউন স্টেডিয়াম, ইউএসে প্রথম শুধু ফুটবলের জন্যই প্রতিষ্ঠিত ক্রিউ স্টেডিয়াম বানিয়েছে তাঁরা। এমনকি কাতার বিশ্বকাপের জন্য স্পোর্টস সিটি স্টেডিয়াম বানানোর দায়িত্বও তাঁরা পেয়েছে।

কমেন্টস

কমেন্টস

মন্তব্য করুন

three + 11 =