এবার অ্যালস্যাসেরের পিছে বার্সেলোনা?

বার্সেলোনার বিখ্যাত এম-এম-এন ত্রয়ীর ব্যাকআপ হিসেবে কাউকে নেওয়ার জন্য বার্সেলোনা এবারের দলবদলের বাজারে বেশ তৎপর। ফরাসী স্ট্রাইকার কেভিন গ্যামেইরো থেকে শুরু করে আর্জেন্টাইন লুসিয়ানো ভিয়েত্তো কিংবা জুভেন্টাসের পাবলো ডিবালা, নিউক্যাসল ইউনাইটেডের স্প্যানিশ স্ট্রাইকার আয়োজে পেরেজ – বার্সা পছন্দ করেছে অনেককেই। কিন্তু বার্সায় যোগ না দিয়ে এর মধ্যেই ভিয়েত্তো আর গ্যামেইরো ক্লাব বদল করেছেন, ডিবালা ও পেরেজকে তাদের নিজ নিজ ক্লাব ছাড়তেই চায়নি। ফলে বার্সাকে আবার ঠিক করতে হচ্ছে নতুন লক্ষ্য। এবারের লক্ষ্য ভ্যালেন্সিয়ার স্প্যানিশ স্ট্রাইকার প্যাকো অ্যালস্যাসের। এখন ভ্যালেন্সিয়ার বাইআউট ক্লজ ৮০ মিলিয়ন ইউরোর পুরোটা দিয়ে বার্সা অ্যালস্যাসেরকে দলে টানতে পারে নাকি সেটাই দেখার বিষয়।
 
কালকেই বলা হয়েছিল, লেস্টার সিটির ঘানাইয়ান উইংব্যাক জেফ শ্লাপ কে পাওয়ার জন্য ১১ মিলিয়ন পাউন্ডের একটা প্রস্তাব রেখেছিল ওয়েস্টব্রম। নতুন খবর হল সেই প্রস্তাবে তারা আরো এক মিলিয়ন পাউন্ড যোগ করেছে, এবং এই নতুন ১২ মিলিয়ন পাউন্ডের প্রস্তাবে লেস্টার সিটি রাজী হতে পারে বলে জানা যাচ্ছে, কারণ আগামীকালকে হাল সিটির বিপক্ষে মৌসুমসূচক ম্যাচের স্কোয়াডে শ্লাপকে রাখেনি চ্যাম্পিয়ন লেস্টার। এদিকে ৯ মিলিয়ন পাউন্ডের বিনিময়ে এবারের ইউরোতে ওয়েলসের হয়ে আলো ছড়ানো সেন্টারব্যাক জেইমস চেস্টারকে অ্যাস্টন ভিলার কাছে বিক্রি করে দিয়েছে ওয়েস্টব্রম। অ্যাস্টন ভিলা ম্যানেজার রবার্টো ডি মাত্তেও চাচ্ছেন ক্রিস্টাল প্যালেসের অস্ট্রেলিয়ান ডিফেন্সিভ মিডফিল্ডার মাইল ইয়েদিনাককেও।
 
বেলজিয়ান মিডফিল্ডার স্টিভেন ডিফোরের কথা মনে আছে? ২০০৯ সালে তৎকালীন ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ম্যানেজার স্যার অ্যালেক্স ফার্গুসন তাঁকে এতটাই নিজের দলে চেয়েছিলেন যে ডিফোরের ইনজুরির কথা শুনে তাঁকে শুভকামনা জানিয়ে একটা আস্ত একটা চিঠিই পাঠিয়েছিলেন তিনি! তখন বেলজিয়ান ক্লাব স্ট্যান্ডার্ড লিয়েগে তে খেলা স্টিভেন ডিফোরের উন্নতির দিকে শ্যেনদৃষ্টি রেখেছিলেন ফার্গি, যদিও ডিফোরকে আর কখনো ইউনাইটেডের জার্সিতে দেখা যায়নি। স্ট্যান্ডার্ড লিয়েগে ছেড়ে পোর্তো ও আন্ডারলেখট হয়ে এই বেলজিয়ান মিডফিল্ডার অবশেষে ইংলিশ ফুটবলের স্বাদ পাচ্ছেন, তবে সেটা বার্নলির হয়ে। ৬ মিলিয়ন পাউন্ডের বিনিময়ে বেলজিয়ান ক্লাব আন্ডারলেখট থেকে বার্নলিতে যোগ দিচ্ছেন তিনি।
স্টিভেন ডিফোর
স্টিভেন ডিফোর
ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের সাবেক দুই জমজ ফুলব্যাক রাফায়েল ডা সিলভা ও ফাবিও ডা সিলভার বড়জন ফাবিও আবারো পেতে যাচ্ছেন প্রিমিয়ার লিগে খেলার স্বাদ। লিগে প্রমোশান পাওয়া নতুন ক্লাব মিডলসব্রো দলে টেনেছে তাঁকে।
এদিকে বার্কিনো ফাসোর চেলসি মিডফিল্ডার বার্ট্রান্ড ট্রায়োরে চেলসির হয়ে নতুন তিন বছরের চুক্তিতে সম্মত হয়েছেন, চুক্তি স্বাক্ষর করেই ডাচ ক্লাব আয়াক্স আমস্টারডামে ধারে খেলতে চলে গেছেন তিনি।
বরুশিয়া ডর্টমুন্ডের জার্মান স্ট্রাইকার মরিতজ লেইটনারকে দলে টেনেছে ইতালিয়ান ক্লাব লাজিও। ফিওরেন্টিনার জার্মান স্ট্রাইকার মারিও গোমেজকে পাওয়ার জন্য আগ্রহী হয়ে উঠেছে স্প্যানিশ ক্লাব ভিয়ারিয়াল।
এদিকে ডায়নামো জাগ্রেবের ক্রোয়েশিয়ান মিডফিল্ডার মার্কো রগকে পাওয়ার জন্য ১৩.৫ মিলিয়ন পাউণ্ডের একটা প্রস্তাব দিয়েছে নাপোলি, কিন্তু জাগ্রেবের ১৫ মিলিয়ন পাউন্ডের কমে ছাড়তে রাজী নয়। এদিকে গঞ্জালো হিগুয়াইনকে জুভেন্টাসের কাছে হারানোর পর যে স্ট্রাইকারকে পাওয়ার জন্য নাপোলি উঠেপড়ে লেগেছে সে হল ইন্টার মিলানের মাউরো ইকার্দি। ইকার্দিকে পাওয়ার জন্য নাপোলি সর্বশেষ ৬০ মিলিয়ন ইউরোর একটা প্রস্তাব রেখেছে, যেটা ইন্টার ফিরিয়ে দিয়েছে। ইন্টার এখন ইকার্দিকে নতুন চুক্তিতে রাজী করানোর ব্যাপারে আগ্রহী, যে চুক্তিতে ইকার্দির প্রতি মৌসুমে বেতন ৩.৮ মিলিয়ন ইউরো থেকে উঠে ৫ মিলিয়ন ইউরোতে ঠেকবে।
জুভেন্টাসের ইতালিয়ান স্ট্রাইকার সিমিওনে জাজাকে পাওয়ার জন্য জার্মান ক্লাব ভলফসবুর্গ রাজী, জাজা এখন জার্মানিতে গিয়ে রাজী হলেই চুক্তি সম্পন্ন হয়ে যাবে।
হোয়াও মারিও
হোয়াও মারিও
আসা যাক ইন্টার মিলানের কথায়। ৪০ মিলিয়ন ইউরোরও বেশী প্রস্তাব করেছে ইন্টার পর্তুগিজ ক্লাব স্পোর্টিং লিসবনকে, ইউরোজয়ী মিডফিল্ডার হোয়াও মারিওকে পাওয়ার জন্য। নতুন কোচ ফ্র্যাঙ্ক ডে ব্যোর এই পর্তুগিজকে দলে পাওয়ার জন্য যে কতটা মরিয়া সেটা বোঝা যাচ্ছে। হোয়াও মারিও দলে আসলে যেই মিডফিলডার ইন্টার মিলান ছাড়তে পারেন, তিনি হলেন ক্রোয়েশিয়ান মিডফিল্ডার মার্সেলো ব্রোজোভিচ।
এদিকে ইন্টারের সাবেক কোচ রবার্টো মানচিনিকে পাওয়ার জন্য আগ্রহী হয়েছে চাইনিজ ক্লাব হেবেই চায়না ফরচুন।

কমেন্টস

কমেন্টস

মন্তব্য করুন

16 + four =