এটাই তো আগামী দিনের চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশের নকশা!

যাক, খেলা শেষ, আমরা হারসি।
অকা, এখন মানুষের বাহারি রকমের চুলকানি দেখার টাইম।

প্রথম চুলকানি দেখলাম সাকিব নিয়ে। একটা ক্যাচ মিস হল ওর, অবশ্যই অনেক বড় ভুল এবং যার কারনে ৪০টা রান বেশি হয়ে গেছে। কিন্তু এর জন্য আক্ষেপ তো আমার মনে হয় ওর কম না। কেউ কেউ তো বলেই বসছে, সাকিব কে অবসরে পাঠানো উচিত। ভাই, খেলাই তো বুঝলেন না। এই সাকিব কত ম্যাচে যে একাই টিমের হাল ধরে ম্যাচ জিতালো সব মনে হয় ভুলে গেলেন! হারলে যখন দলের পাশে থাকতে পারেন না, দল যখন জিতবে তখনো দয়া করে দূরে থাকবেন। এমন সাপোরটারের দরকার নেই এই দলের, দলের খেলোয়ারদের।

এরপর, তামিমের অনুপস্থিতি। তামিম কেন নাই, তামিম কিভাবে না থেকে পারল ইত্যাদি ইত্যাদিতে অনেকে হাই হুতাস শুরু করে ফেলসে। অনেকে আবার তামিম কে “যুদ্ধক্ষেত্র হতে পলায়িত কাপুরুষ” ও বলে ফেলসে! squint emoticon এইসব দুমুখো সাপ আমাদের দলকে নিয়ে আবার বিশ্লেষণ করে, চিন্তা করলেই ওগুলারে পিটাইতে ইচ্ছে করে। মাঝে তামিম রান পায় নি বলে ওর পরিবার নিয়েও টানাটানি হয়েছিল, আর এখন দলে নেই বলে দুনিয়ার কান্নাকাটি। এই তামিম কেই তো বলেছিলেন কিছুদিন আগে যে দল থেকে ওকে বাদ দাও, তবে আজ কেন এত হা হুতাশ!! কপাল ভালো যে তামিম আজকে খেলে নি, যদি খেলতো আর কপাল দোষে তাড়াতাড়ি আউট হয়ে যেত, তাইলে আর ওর ফেসবুকে লগইন করা লাগতো না। তখন এই হা হুতাশ করা “ভুয়া” সাপোরটার গুলোই বলতো যে কেন ওকে দলে নেয়া হলো!

ভাই, এটা T20 খেলা। আর আমরা বছরে কয়টা খেলি এই ফরম্যাটে? সুতরাং এত কম খেলে র‍্যাঙ্কিং এর একদম উপরে থাকা দলের বিপক্ষে এত ভালো বোলিং আর ফিল্ডিং করা, চাপে থেকেও হাল না ছাড়া, এটাই তো আগামী দিনের চ্যাম্পিওন বাংলাদেশের নকশা! সুতরাং criticism যদি করতে চান, আগে খেলা বুঝুন, তারপর! নাহলে চুপ করে বসে থাকুন, নিজের অজ্ঞতা পুরো দুনিয়াকে দেখানোর কোন মানে নেই।

‪#‎GoTigers‬ ‪#‎NeverGiveUp‬

কমেন্টস

কমেন্টস

মন্তব্য করুন

fourteen − 13 =