একটু সাহসী হোন তামিম

ক্রিকেট অনেক বদলে গেছে ।
শেষের ১০ ওভারে ফিল্ড রেস্ট্রিকশন একটু কম । তার মানে বাইরে ফিল্ডার থাকে বেশি । ৫০ ওভার সমানভাবে রান উঠাতে হয় ।
এই সিচুয়েশনে তামিম ইকবালের মত সিনিয়র কেউ ৯০-৯৪ বল খেলার পরেও প্রতিটা বলে সিঙ্গেলস নিশ্চিত না করতে পারলে সেটা আসলে ভালো শোনায় না । সত্যিকারেই ভাল শোনায় না । ২৫ টা বল খেলার পরেই আসলে বল খুব ভালোভাবে ব্যাটে আসা দরকার যেটা তামিমের এই সিরিজে মিসিং দেখছি ।

বচনঃ মুশফিক প্রথম বলটা যেই কনফিডেন্স লেভেল নিয়ে ফেইস করে , সেই লেভেলে যেতে তামিমের লাগে ৬০ বল , মাহমুদুল্লাহর ৯০ বল আর আনামুলের ১০০ বল ।

এবং লিখতে লিখতে তিনি ৯৮ বলে ৭৩ রান করে আউট । ১০০ করে পিটিয়ে পুষিয়ে দেবার প্ল্যান ছিলো তো ? এখন পুষিয়ে দিন । বল আর রানের ২১ রানের গ্যাপ ? এগুলো আতাপাত্তু আর জাভেদ ওমরদের যুগে ঠিক ছিলো । এই ২০ বল জিম্বাবুয়ের সাথে রেজাল্টে বড় ইমপ্যাক্ট হয়তো ফেলবে না । কিন্তু অন্য কঠিন দিনগুলোতে ?

স্কোরকার্ডে ৭৩ দেখতে ভালো লাগে ।
কিন্তু একজনই ৩ ভাগের ১ ভাগ বল খেলেছে ৩০০ বলের ইনিংসে এটা দেখতে ভালো লাগে ?

কমেন্টস

কমেন্টস

মন্তব্য করুন

thirteen + 6 =