ইতালিয়ান সিরি আ – আর্জেন্টাইন স্ট্রাইকারদের নতুন তীর্থক্ষেত্র?

আসলে নতুন বলাটা ভুল হবে। যে লিগে আগে খেলে গেছেন ডিয়েগো ম্যারাডোনা, গ্যাব্রিয়েল ওমার বাতিস্তুতা, হার্নান ক্রেসপো, ক্লদিও লোপেজ, ক্লদিও ক্যানিজিয়া, আবেল বালবো – দের মত স্ট্রাইকাররা, সে লিগ অবশ্যই আর্জেন্টাইন স্ট্রাইকারদের জন্য নতুন অ্যাডভেঞ্চারের কোন জায়গা নয়, সেটা বলাই যায়! কিন্তু বলতে হচ্ছে, বলতে হচ্ছে একই সঙ্গে সিরি আ তে এইসময়ের অন্যতম সেরা আর্জেন্টাইন স্ট্রাইকারদের হাট বসার কারণে! প্রত্যেকেই নিজের নামে কমবেশী যে বিখ্যাত – সে কথা বলাই বাহুল্য।

 

bleacher report
আর্জেন্টাইন ফুটবলের সবচেয়ে বড় বিজ্ঞাপন লিওনেল মেসি খেলেন বার্সেলোনায়

এ কথাটা বলার অপেক্ষা রাখে না শুধুমাত্র লিওনেল মেসি কিংবা সার্জিও অ্যাগুয়েরোই নন, আর্জেন্টিনা অ্যাটাকের হাল ধরার জন্য ক্লাসি স্ট্রাইকারের অভাব বলতে গেলে কখনই ছিল না, এখনো নেই। মেসি অ্যাগুয়েরো না থাকলেও আর্জেন্টিনা তাদের অবশিষ্ট স্ট্রাইকফোর্স নিয়েও যেকোন টুর্নামেন্ট জয়ের দাবি রাখে। লিওনেল মেসি যেখানে খেলেন স্প্যানিশ জায়ান্ট বার্সেলোনার হয়ে, অ্যাগুয়েরোকে দেখা যায় ইংলিশ চ্যাম্পিয়ন ম্যানচেস্টার সিটির হয়ে মাঠ মাতাতে।

 

bleachherreport
ম্যানচেস্টার সিটির হয়ে নিয়মিত মাঠ মাতান সার্জিও অ্যাগুয়েরো

কিন্তু বাকীরা? মজাটা এখানেই। বাকী আর্জেন্টাইন জাতীয় দলের স্ট্রাইকারদের প্রায় সবাই-ই এখন খেলেন ইতালিয়ান সিরি আ তে।

আর্টিকেল শুরু করতে গিয়ে তাই প্রথমেই বলতে হচ্ছে কার্লোস আলবার্তো মার্টিনেজ ‘কার্লিতোস’ তেভেজের কথা। বোকা জুনিয়র্স, করিন্থিয়ান্স, ওয়েস্ট হ্যাম ইউনাইটেড, ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড, ম্যানচেস্টার সিটি ঘুরে অনেকের মতেই আর্জেন্টিনার সেরা এই স্ট্রাইকারের ঠিকানা এখন ইতালিয়ান চ্যাম্পিয়ন জুভেন্টাসে। এমনকি আর্জেন্টিনায় তিনি লিওনেল মেসির চেয়েও জনপ্রিয়, একথা হরহামেশাই শোনা যায়। ২০১৩ সালে ম্যানচেস্টার সিটি থেকে ১২ মিলিয়ন পাউন্ডের বিনিময়ে জুভেন্টাসে যোগ দেওয়া স্ট্রাইকার তুরিনে গিয়েই পেয়ে যান পরম আরাধ্য দশ নাম্বার জার্সিটি, যা কিনা তাঁর আগে শুধুমাত্র জুভেন্টাসের অবিসংবাদিত কিংবদন্তী আলেসসান্দ্রো দেল পিয়েরোই পরতেন। এর মাধ্যমেই বোঝা যায় তেভেজের উপর জুভেন্টাসের কর্তাব্যক্তিদের কতটা আস্থা ছিল। বলা বাহুল্য, জুভেন্টাসে গিয়ে যথারীতি তিনি খেলছেনও দুর্দান্ত। ৫৪ ম্যাচে এরইমধ্যে ৩৩ গোল হয়ে গেছে তাঁর। গত মৌসুমে সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে ২১ গোল নিয়ে জুভেন্টাসের সর্বোচ্চ গোলদাতা ছিলেন, ছিলেন সিরি আ এর তৃতীয় সর্বোচ্চ গোলদাতা, যার জন্য জুভেন্টাস গত মৌসুমে জিতেছে স্কুডেট্টো, তিনি নিজেও হয়েছিলেন জুভেন্টাসের প্লেয়ার অফ দ্য সিজন! এই দুর্দান্ত পারফরম্যান্সের পুরস্কারস্বরূপ ২০১১ সালের কোপা আমেরিকার পর প্রায় তিন বছর পর আবারও ডাক পেয়েছেন তিনি জাতীয় দলে। এই মৌসুমে সিরি আ তে এখন পর্যন্ত সর্বোচ্চ গোলদাতাও তিনিই।

 

bleacherreport
নিজের নামের ওজন প্রমাণ করে যাচ্ছেন তেভেজ জুভেন্টাসে

ঠিক স্ট্রাইকার নন, খেলেন স্ট্রাইকারের একটু পেছনে, তাও যেহেতু তিনি আর্জেন্টাইন এবং খেলেন জুভেন্টাসে ; সেহেতু এইখানে রবার্তো পেরেইরার নাম একটু উল্লেখ করতেই হয়! উদিনেস থেকে মাত্রই যোগ দিয়েছেন জুভেন্টাসে, এরই মধ্যে কোচ ম্যাসিমিলিয়ানো আলেগ্রির আস্থার জায়গাটুকু বেশ ভালোভাবেই অর্জন করে নিয়েছেন, এমনকি আর্জেন্টিনার বর্তমান কোচ জেরার্ডো মার্টিনো এরই মধ্যে জাতীয় দলে ডেকেও ফেলেছেন তাকে।

 

forzaitalian football
ক্লাব ও জাতীয় দল – দুইক্ষেত্রেই কোচের জন্য ভালো এক অস্ত্র হয়ে উঠছেন রবার্তো পেরেইরা

এবার আসা যাক বর্তমান সময়ের অন্যতম প্রধান আর্জেন্টিনার স্ট্রাইকার গঞ্জালো হিগুয়াইনের কথায়। সাত-সাতটি বছর রিয়াল মাদ্রিদে কাটানোর পর এই সুপারস্টার গত মৌসুমে ৪০ মিলিয়ন ইউরো’র বিনিময়ে যোগ দিয়েছেন ডিয়েগো ম্যারাডোনার আশীর্বাদধন্য নাপোলিতে। ৫২ ম্যাচে ২৯ গোল – খারাপ নয় নাপোলির হয়ে তাঁর পরিসংখ্যানটাও। এই মৌসুমে এখন পর্যন্ত নাপোলিকে সিরি আ এর পয়েন্ট তালিকায় তৃতীয় স্থানে রাখার পেছনে ২১ ম্যাচে ১২ গোল ও ৪টি অ্যাসিস্ট করা হিগুয়াইনের ভূমিকা যে সর্বাধিক, সেটা আর বলার অপেক্ষা রাখেনা। এই মৌসুমে তাই মিলানের ফরাসী স্ট্রাইকার জেরেমি মেনেজের সাথে যৌথভাবে ১২ গোল নিয়ে তৃতীয় স্থানে আছেন তিনি।

 

bleacherreport
সুপারস্টার গঞ্জালো হিগুয়াইন খেলেন এখন নাপোলিতে

এবার আসা যাক ইতালির অন্যতম সফল ক্লাব ইন্টারন্যাজিওনালে মিলানোর কথায়। হাভিয়ের জানেত্তি, ওয়াল্টার স্যামুয়েল, এস্তেবান ক্যাম্বিয়াসো, ডিয়েগো মিলিতো, এজেকিয়েল শোলেত্তো, হুগো কাম্পানিয়ারো, গ্যাব্রিয়েল বাতিস্তুতা, হার্নান ক্রেসপো, হুলিও ক্রুজ ; বলা যায় সবসময়েই আর্জেন্টাইনদের পদধূলিধন্য হয়েই আসছে ক্লাবটি। ব্যতিক্রম নয় এখনও। ইন্টার মিলানের স্ট্রাইকফোর্সে এখন নেতৃত্ব দেন তরুণ স্ট্রাইকার মাউরো ইকার্দি ও রড্রিগো প্যালাসিও। ইন্টারের হয়ে ৫৫ ম্যাচে ২৭ গোল করা স্ট্রাইকার ইকার্দি এরই মধ্যে ইউরোপের বাঘা বাঘা ক্লাবের নজরে আছেন, এই মৌসুমে ১৩ গোল নিয়ে আছেন সিরি আ এর সর্বোচ্চ গোলদাতাদের তালিকার দ্বিতীয় স্থানে।

 

bleacherreport
মাউরো ইকার্দি – ইন্টারের সবচে বড় ভরসার নাম
bleacherreport
ইকার্দির সাথে ইন্টারে আছেন প্যালাসিও-ও

ইকার্দির সাথে ইন্টারের আক্রমণের গুরুদায়িত্ব যার কাঁধে থাকে, তিনি মাথায় টিকিওয়ালা সেই রড্রিগো প্যালাসিও। অ্যাটাকিং থার্ডের যেকোন পজিশানে খেলতে পারা এই স্ট্রাইকারের পরিসংখ্যানও খারাপ নয়, ইন্টারের হয়ে ৭৯ ম্যাচে করেছেন ৩১ গোল। আর্জেন্টিনার হয়ে খেলে ফেলেছেন ২০১৪ বিশ্বকাপও। আর্জেন্টিনার হয়ে বিশ্বকাপ ফাইনাল খেলা এই স্ট্রাইকার বিশ্বকাপের হ্যাংওভার কাটাতে পারেননি এখনও, এই মৌসুমে মাত্র ৩ গোলই তার প্রমাণ!

 

মাঠের বাইরের কীর্তির জন্য বেশীরভাগ সময়ে শিরোনাম হওয়া অসভালদো মাঠের ভিতরের কীর্তির জন্য নিয়মিত শিরোনাম হলে এতদিন সিরি আ কিংবদন্তী হয়ে যেতেন!
মাঠের বাইরের কীর্তির জন্য বেশীরভাগ সময়ে শিরোনাম হওয়া অসভালদো মাঠের ভিতরের কীর্তির জন্য নিয়মিত শিরোনাম হলে এতদিন সিরি আ কিংবদন্তী হয়ে যেতেন!

মাত্র কয়েকদিন আগে ইন্টার মিলান থেকে বোকা জুনিয়র্সে যোগ দেওয়া স্ট্রাইকার পাবলো অসভালদো’র কথাও বলতে হয় এইখানে। সাউদাম্পটনের এই স্ট্রাইকার গত দুই মৌসুমে ধারে খেলে বেড়াচ্ছেন ইন্টার-জুভেন্টাস-বোকা জুনিয়র্সে। এই মৌসুমে এই পর্যন্ত সিরি আ তে ১২ ম্যাচ খেলে ৫ গোল ছিল তাঁর, আচরণগত সমস্যাটা না থাকলে বোধকরি পাকাপাকিভাবেই কোন ইটালিয়ান লিজেন্ড হয়ে যেতে পারতেন ‘জার্নিম্যান’ বলে খ্যাত এই স্ট্রাইকার। এরই মধ্যে আরও খেলে ফেলেছেন আটালান্টা, লেচ্চে, ফিওরেন্টিনা, বোলোনিয়া ও এএস রোমাতে।

bleacherreport
এখন সময় ডাইবালার

 

bleacherreport
ডাইবালার সাথে পালের্মোতে দুর্দান্ত খেলে যাচ্ছেন ভাজক্যুয়েজও

এ মৌসুমে যেসব নতুন স্ট্রাইকার সিরি আ তে আলো ছড়াচ্ছেন তাদের মধ্যে সর্বাগ্রে থাকবে পালের্মোর পাওলো ডাইবালার নামটি। আরেক আর্জেন্টাইন ফ্রাঙ্কো ভাজক্যুয়েজের সাথে দুর্ধর্ষ স্ট্রাইক পার্টনারশিপ গড়ে তুলেছেন এই মৌসুমে তিনি, এই মৌসুমের প্রথম ভাগে ইতোমধ্যেই ১০টি গোল করে ফেলা এই ডাইবালা এখনই আছেন ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড, প্যারিস সেইন্ট জার্মেই, ম্যানচেস্টার সিটি, লিভারপুল, আর্সেনাল এসব ক্লাবের নজরে। বয়সে বছর চারেকের বড় ফ্র্যাঙ্কো ভাজক্যুয়েজও ডাইবালাকে দিয়ে যাচ্ছেন যোগ্য সঙ্গ, ডাইবালার ১১ গোলের পাশে তাই তাঁর সাতটি গোলও করছে জ্বলজ্বল। এই মৌসুমে দ্বিতীয় বিভাগ থেকে উন্নীত পালের্মো যে এখন পয়েন্ট তালিকায় অষ্টম, তার পিছনে এই দুই আর্জেন্টাইনের ভূমিকার কথা তাই না বললেও চলছে আর।

 

'নতুন মেসি' খ্যাত ইতুর্বে
‘নতুন মেসি’ খ্যাত ইতুর্বে

এবারে আসা যাক নতুন মেসি বলে খ্যাত স্ট্রাইকার হুয়ান ম্যানুয়েল ইতুর্বে’র কথায়। সিরি আ এর সাথে তাঁর সখ্যতা গত মৌসুম থেকে। পোর্তো থেকে হেলাস ভেরোনায় গত মৌসুমে যোগদান করা এই উইঙ্গার/স্ট্রাইকার গত মৌসুমে গোল করেছিলেন আটটি, যা যথেষ্ট ছিল জুভেন্টাস-রোমার মত বড় বড় ক্লাবকে আকৃষ্ট করার জন্য। প্রায় ২৪.৫ মিলিয়ন ইউরো’র বিনিময়ে এই মৌসুমে রোমায় যোগ দিলেও ঠিক ভালোভাবে শুরু করতে পারেননি তিনি রোমায়, ১৪ ম্যাচে মাত্র একটি গোল সে কথাই বলে। এমনকি রোমার মূল একাদশেও নিজের জায়গা এখনও পাকাপোক্ত করতে পারেননি তিনি। কিন্তু যারা ইতুর্বের খেলা দেখেছেন, তারা নিশ্চিতভাবেই বলতে পারবেন একবার ফর্ম ফিরে পেলে গোলের রাস্তা আর ভুলবেন না প্রতিভাবান এই স্ট্রাইকার!

 

রোমায় ইতুর্বের সাথেই নতুন আর্জেন্টাইন যুক্ত হয়েছেন আরেকজন এই মৌসুম থেকে, নাম তাঁর লিয়ান্দ্রো পারেডেস। বোকা জুনিয়র্স থেকে আসা এই অ্যাটাকিং মিডফিল্ডার/স্ট্রাইকার দুই সপ্তাহ আগে ক্যালিয়ারির বিপক্ষে গোল করে দলের জয়ে ভূমিকা রাখায় তাঁর ক্ষমতা সম্বন্ধেও এখন তেমন কেউই অবিদিত নন।

 

asroma.co
ইতুর্বের সাথে রোমায় আছেন পারেডেসও

সিরি আ তে আর্জেন্টাইন নতুন স্ট্রাইকারদের কেতন ওড়ার পাশাপাশি ভাসছে অভিজ্ঞদের জয়গানও। যার কারণে পোড় খাওয়া ম্যাক্সি লোপেজ, হাভিয়ের স্যাভিওলা, জার্মান ডেনিস এখনও খেলে যাচ্ছেন সিরি আ তে। ৩৩ বছর বয়সী জার্মান ডেনিস সেসেনা, নাপোলি, উদিনেস ঘুরে এখন হয়েছেন আটালান্টার কান্ডারি। আটালান্টার হয়ে ১২৫ ম্যাচে ৪৮ গোল, মাঝটেবিলের একটা ক্লাবের জন্য অনেক ভালো পারফর্ম্যান্স, বলতেই হবে। জাতীয় দলে আসা যাওয়ার মধ্যে থাকা এই স্ট্রাইকার খেলেও ফেলেছেন ৫টি ম্যাচ আর্জেন্টিনার হয়ে।

 

আটালান্টার কাণ্ডারি হয়ে আছেন জার্মান ডেনিস
আটালান্টার কাণ্ডারি হয়ে আছেন জার্মান ডেনিস

জার্মান ডেনিসের পাশাপাশি এই মৌসুমে আক্রমণের দায়িত্ব আটালান্টা যার কাঁধে সঁপে দিয়েছে, তিনি হচ্ছেন আরেক আর্জেন্টাইন ২৭ বছর বয়সী আলেহান্দ্রো দারিও গোমেজ। আগে কাতানিয়ার হয়ে খেলা এই স্ট্রাইকার মধ্যে কিছুদিন গিয়ে খেলে এসেছেন ইউক্রেইনিয়ান ক্লাব মেটালিস্ট খারকিভে। আর্জেন্টিনার অনুর্ধ্ব ২০ দলে খেলা এই স্ট্রাইকার এখনও মূল জাতীয় দলে সুযোগ পাননি যদিও।

 

ডেনিসের সাথে আটালান্তার আক্রমণভাগের দায়িত্ব সামলাচ্ছেন আলেহান্দ্রো দারিও গোমেজ
ডেনিসের সাথে আটালান্তার আক্রমণভাগের দায়িত্ব সামলাচ্ছেন আলেহান্দ্রো দারিও গোমেজ

সাম্পদোরিয়ার হয়ে খেলে যাচ্ছেন আরেক আর্জেন্টাইন স্ট্রাইকার গঞ্জালো রুবেন বের্গেসিও। গত তিন মৌসুমে ৯৬ ম্যাচে কাতানিয়ার হয়ে ৩০ গোল করা পোড় খাওয়া এই স্ট্রাইকারকে এই মৌসুমেই দলে ভিড়িয়েছে সাম্পদোরিয়া।

 

সাম্পদোরিয়ায় খেলে যাচ্ছেন গঞ্জালো রুবেন বের্গেসিও (ছবি কাতানিয়ায় থাকাকালীন সময়কার)
সাম্পদোরিয়ায় খেলে যাচ্ছেন গঞ্জালো রুবেন বের্গেসিও (ছবি কাতানিয়ায় থাকাকালীন সময়কার)

এদিকে আরেক ইতালিয়ান সিরি আ এর ক্লাব হেলাস ভেরোনা হুয়ান ম্যানুয়েল ইতুর্বের অভাব পুষিয়েছে আরও একজন আর্জেন্টাইন স্ট্রাইকার দলে নিয়ে, কিংবদন্তী স্ট্রাইকার হ্যাভিয়ের স্যাভিওলা। বার্সেলোনা, রিয়াল মাদ্রিদ, সেভিয়া, বেনফিকা, রিভার প্লেট, মোনাকো, মালাগা, অলিম্পিয়াকোসে খেলা প্রবীণ এই স্ট্রাইকার ক্যারিয়ারের বালুকাবেলায় যোগ দিয়েছেন ভেরোনার এই ক্লাবে, ১০ ম্যাচে এক গোল করেছেন মাত্র। তাঁর সাথে আছেন ২০০৮ সাল থেকে হেলাস ভেরোনায় থাকা স্ট্রাইকার হুয়ানিতো, বলা বাহুল্য তিনিও আর্জেন্টাইন!

 

বার্সা, রিয়াল, মোনাকো, সেভিয়া, মালাগা, অলিম্পিয়াকোস থেকে স্যাভিওলা এখন নাম লিখিয়েছেন হেলাস ভেরোনায়
বার্সা, রিয়াল, মোনাকো, সেভিয়া, মালাগা, অলিম্পিয়াকোস থেকে স্যাভিওলা এখন নাম লিখিয়েছেন হেলাস ভেরোনায়
স্যাভিওলার পাশাপাশি ভেরোনায় আছেন আরেক আর্জেন্টাইন স্ট্রাইকার হুয়ানিতো
স্যাভিওলার পাশাপাশি ভেরোনায় আছেন আরেক আর্জেন্টাইন স্ট্রাইকার হুয়ানিতো

আর্টিকেল শেষ করা যাক আরেক পোড় খাওয়া আর্জেন্টাইন স্ট্রাইকারের কথা দিয়ে, তিনি ম্যাক্সি লোপেজ। আর্জেন্টিনা, স্পেইন, ব্রাজিল, রাশিয়ার বিভিন্ন ক্লাবে খেলে তিনি ২০১০ সালের পর থিতু হয়েছেন সিরি আ তে। কাতানিয়া, এসি মিলান, সাম্পদোরিয়া, শিয়েভো ভেরোনা ঘুরে তিনি এখন খেলেন তোরিনোতে। আর্জেন্টিনার যুবদলের হয়ে ৮ গোল করা এই স্ট্রাইকার এখনও জাতীয় দলে ডাক পাওয়ার প্রহর গুনছেন।

 

পোড় খাওয়া স্ট্রাইকার ম্যাক্সি লোপেজ এখনও খেলে চলেছেন তোরিনোয়
পোড় খাওয়া স্ট্রাইকার ম্যাক্সি লোপেজ এখনও খেলে চলেছেন তোরিনোয়

 

তাই বলা যেতে পারে যে, আর্জেন্টিনার কোচ যখন তখন চাইলেই সিরি আ’র দিকে চাইতেই পারেন স্ট্রাইকিং সমস্যার সমাধানের জন্য – যদি সেই সমস্যা কখনো হয় আর কি!

কমেন্টস

কমেন্টস

মন্তব্য করুন

thirteen − two =