ইউরো টিম প্রিভিউ : নর্দার্ন আয়ারল্যান্ড

বাছাইপর্বে ২০০৪ এর ইউরো চ্যাম্পিয়ন গ্রিসকে টপকে এবারের ইউরোতে জায়গা করে নেওয়া, নিজেদের ইতিহাসের প্রথমবারের মত ইউরো খেলতে আসা নর্দার্ন আয়ারল্যান্ডের গ্রুপ ‘সি’ তে এবার প্রতিপক্ষ পরাক্রমশালী জার্মানী, পোল্যান্ড ও ইউক্রেইন। পুরো বাছাইপর্বে মাত্র একটা ম্যাচ হারা নর্দার্ন আইরিশরা অবশ্যই চাইবে এবারের ইউরোতে তাঁদের ঐ দুর্দান্ত ফর্মটা ধরে রেখে জার্মানি, ইউক্রেইন ও পোল্যান্ডকে চমকে দিতে। কোচ মাইকেল ও’নিল এরই মধ্যে ঘোষণা করে দিয়েছেন ২৩ সদস্যের দল। দেখে নেওয়া যাক –

  • গোলরক্ষক

রয় ক্যারল (নটিংহ্যাম কাউন্টি)

মাইকেল ম্যাকগোভার্ন (হ্যামিল্টন অ্যাকাডেমিকাল)

অ্যালান ম্যানাস (সেইন্ট জনস্টোন)

 

  • ডিফেন্ডার

কনর ম্যাকলফলিন (ফ্লিটউড টাউন)

গ্যারেথ ম্যাকআউলি (ওয়েস্ট ব্রমউইচ অ্যালবিওন)

জনি এভান্স (ওয়েস্ট ব্রমউইচ অ্যালবিওন)

ক্রিস বেয়ার্ড (ডার্বি কাউন্টি)

লুক ম্যাককলফ (ডনকাস্টার রোভার্স)

প্যাডি ম্যাকনেয়ার (ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড)

অ্যারন হিউজ (মেলবোর্ন সিটি)

ক্রেইগ ক্যাথকার্ট (ওয়াটফোর্ড)

লি হডসন (মিল্টন কিনস ডনস)

  • মিডফিল্ডার

শ্যেইন ফার্গুসন (মিলওয়াল)

নিয়াল ম্যাকগিন (অ্যাবার্ডিন)

স্টিভেন ডেভিস (সাউদাম্পটন)

কোরি এভান্স (ব্ল্যাকবার্ন রোভার্স)

স্টুয়ার্ট ডালাস (লিডস ইউনাইটেড)

অলিভার নরউড (রিডিং)

জেইমি ওয়ার্ড (নটিংহ্যাম ফরেস্ট)

দলের সুপারস্টার স্ট্রাইকার কাইল ল্যাফার্টি
দলের সুপারস্টার স্ট্রাইকার কাইল ল্যাফার্টি

 

  • স্ট্রাইকার

কাইল ল্যাফার্টি (বার্মিংহ্যাম সিটি)

উইল গ্রিগ (উইগ্যান অ্যাথলেটিক)

কনর ওয়াশিংটন (কুইন্স পার্ক রেইঞ্জার্স)

জশ ম্যাগেনিস (অ্যাবার্ডিন)

মূল একাদশে গোলবারের নিচে থাকার জন্য চূড়ান্ত লড়াই হবে সাবেক ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড গোলরক্ষক রয় ক্যারল ও হ্যামিল্টন অ্যাকাডেমিকালের মাইকেল ম্যাকগোভার্নের মধ্যে। নিয়মিত লেফটব্যাক ক্রিস ব্রান্ট ইনজুরির কারণে দলে না থাকায় এটা একটা বিশাল চিন্তার কারণ হয়ে দাঁড়াবে কোচ মাইকেল ও’নিলের জন্য। সেক্ষেত্রে লেফটব্যাক পজিশানে জায়গা পাওয়ার জন্য লড়াই হবে মিলওয়ালের শ্যেইন ফার্গুসন ও মিল্টন কিনস ডনসের লি হডসনের মধ্যে, ওয়াটফোর্ডের সেন্টারব্যাক ক্রেইগ ক্যাথকার্টকেও দেখা যেতে পারে লেফটব্যাক পজিশানে। ফ্লিটউড টাউনের কনর ম্যাকলফলিন খেলবেন রাইটব্যাক হিসেবে, আর তাঁর ব্যাকআপ হিসেবে থাকবেন ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের তরুণ সেন্টারব্যাক প্যাডি ম্যাকনায়ার। সেন্ট্রাল ডিফেন্সে ওয়েস্ট ব্রমউইচ অ্যালবিওনের গ্যারেথ ম্যাকআউলির জায়গা পাওয়াটা নিশ্চিত, তাঁর সাথে জুটি বাঁধার সম্ভাবনা সবচাইতে বেশী ক্লাবসতীর্থ জনি এভান্সের, জায়গা করে নিতে পারেন মেলবোর্ন সিটির অভিজ্ঞ সেন্টারব্যাক অ্যারন হিউজও।

ক্লাবে সেন্টারব্যাক হিসেবে খেললেও কোচ ও’নিল মূলতঃ সেন্ট্রাল ডিফেন্সিভ মিডফিল্ডার হিসেবেই মনে করেন ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের প্যাডি ম্যাকনায়ারকে। তাই তিনি যদি অভিজ্ঞ ক্রিস বেয়ার্ডের বদলে ডিফেন্সিভ মিডফিল্ডার রোলে খেলা শুরু করেন আশ্চর্যের কিছু থাকবেনা। অশিনায়ক সাউদাম্পটনের স্টিভেন ডেভিস ও রিডিংয়ের অলিভার নরউডের খেলার সম্ভাবনা সবচাইতে বেশী বাকী দুই সেন্ট্রাল মিডফিল্ড পজিশানে। ব্ল্যাকবার্ন রোভার্সের কোরি এভান্স থাকবেন ব্যাকআপ হিসাবে।

1456745_Torquay_United

একমাত্র স্ট্রাইকার হিসেবে কিংবদন্তী স্ট্রাইকার কাইল ল্যাফার্টির খেলা নিশ্চিত, দুই উইংয়ে দেখা যাওয়ার সম্ভাবনা সবচাইতে বেশী নটিংহ্যাম ফরেস্টের জেইমি ওয়ার্ড ও লিডস ইউনাইটেডের স্টুয়ার্ট ডালাসের। অ্যাবার্ডিনের নিয়াল ম্যাকগিনকেও দেখা যেতে পারে উইংয়ে।

এর মধ্যেই বাছাইপর্ব উতরে দেশবাসীর মন জয় করে নেওয়া নর্দার্ন আয়ারল্যান্ডের হারানোর কিছু নেই। এখন ইউরোর মত বিশাল মঞ্চে কতদূর যেতে পারে তারা, দেখার বিষয় সেটাই!

কমেন্টস

কমেন্টস

মন্তব্য করুন

2 × four =