ইউরোপীয় গোল্ডেন বুট : ইতিহাস ও অন্যান্য

ইউরোপীয় গোল্ডেন বুট : ইতিহাস ও অন্যান্য
আব্দুল্লাহ আল নোমান :
ইউরোপীয় গোল্ডেন বুট। অামরা কমবেশি সবাই এই পুরস্কার টা চিনি এবং এটার সম্পর্কে জানি….এটা ইউরোপ এর লীগ এর সর্বোচ্চ গোলদাতাকে দেয়া হয়। এক্ষেত্রে পয়েন্ট হিসাব করে এ এওয়ার্ড টা দেয়া হয়। ইউরোপ এর টপ ৫ লীগের মধ্যে ১ গোল এর জন্য ২ পয়েন্ট করে দেয়া হয়। বর্তমান ইউরোপ এর টপ ৫ লীগ হল
*লা লীগা
*ইপিএল
*সিরি এ
*বুন্দেসলীগা
*লীগ ১
 
★গোল্ডেন বুট সম্পর্কে সংক্ষিপ্ত কিছু ডিটেইলস: –
*এ পুরষ্কার দেয়া শুরু হয় ১৯৬৭-৬৮ মৌসুম থেকে
*প্রথমবার এ পুরস্কার জিতেন পর্তুগাল লীগ এর বেনফিকার হয়ে খেলা ইউসেবিও (৪২ গোল)
*শেষ বার পুরষ্কার জিতেন লা লীগায় বার্সার হয়ে মেসি ২০১৭/১৮ সিজনে(৩৪*গোল)
*প্রথম প্লেয়ার হিসেবে ২ বার বুট জিতেন জার্মান লিজেন্ড জার্ড মুলার
*প্রথম প্লেয়ার হিসেবে ৩ বার বুট জিতেন লিও মেসি
*প্রথম প্লেয়ার হিসাবে ৪ বার বুট জিতে নেন ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো
*প্রথম এবং একমাত্র প্লেয়ার হিসাবে ৫ বার বুট জিতেন লিও মেসি
*সর্বোচ্চ বুট জিতা প্লেয়ার লিও মেসি-৫ বার
* সর্বোচ্চ গোল করে বুট জিতা প্লেয়ার লিও মেসি- ৫০ গোল
 
গোল্ডেন বুট জিতাটা খুবই সম্মানজনক। এই এওয়ার্ড জয় এর মাধ্যমে ইউরোপ সব লীগ এর মধ্যে স্কোরিং এ সেই সিজনের শ্রেষ্টত্ব অর্জন হয়। প্রায় সব ভাল স্কোরার রা এই এওয়ার্ড টি পেয়েছে। তবে মেসি-রন এর কারণে এ এওয়ার্ড টা জুটেনি লেওয়ানদস্কির কপালে। তবে এরি মাঝে লুইস সুয়ারেজ ২ বার গোল্ডেন বুট জিতে নিছেন।ইতিহাসে মাত্র ৪ জন প্লেয়ার এই এওয়ার্ড টি টানা ২ বার পেয়েছেন এবং তারা হল ম্যাকুইস্ট, হেনরি,রোনালদো এবং মেসি। মেসি এক মাত্র প্লেয়ার যে ২য় বারের মত টানা ২ বার এই এওয়ার্ড জিতছে। ২ টি ক্লাব এর হয়ে এওয়ার্ড জিতার লিস্ট এও মাত্র ৪ জন। তারা হলেন দিয়েগো ফোরলান,লুইস সুয়ারেজ,মারিও জার্ডেল এবং রোনালদো।২ এর অধিক গোল্ডেন বুট জিতা প্লেয়ার হলেন শুধু মেসি রোনালদো।তারা ২ জনে টোটাল ৯ বার গোল্ডেন বুট এওয়ার্ড জিতছেন😍😱
 
এবার দেখে নিই এই এওয়ার্ড এর কিছু স্ট্যাটিস্টিকাল ব্যাপার….
★সর্বোচ্চ যারা জিতছেন:-
১. লিও মেসি -৫ বার
২.রোনালদো -৪ বার(১ বার লুইস সুয়ারেজের সাথে শেয়ারকৃত)
৩.ফোরলান,হেনরি,সুয়ারেজ,ইউসেবিও,মুলার সহ অারো ৪ জন এই এওয়ার্ড জিতছেন -২ বার করে।
 
★যে ক্লাব এর হয়ে সর্বোচ্চ বার জিতছে এই এওয়ার্ড (একের অধিক):-
১. বার্সেলোনা থেকে ৩ জন প্লেয়ার সর্বোচ্চ ৭ বার এই এওয়ার্ড জিতছেন
২. মাদ্রিদ থেকে ২ জন প্লেয়ার ৪ বার এই এওয়ার্ড জিতছেন
৩. পোর্তো এবং বুখারেস্ট থেকে ২ জন করে ৩ বার এই এওয়ার্ড জিতেছেন।
৪. লিভারপুল,বায়ার্ন মিউনিখ,অায়াক্স,অার্সেনাল,বেনেফিকা,স্পোর্টিং সিপি, চি এস কে এবং রেনজার্স থেকে ২ বার করে এই এওয়ার্ড জিতছে
 
★যে দেশের হয়ে সর্বোচ্চ বার জিতছেন এই এওয়ার্ড (২ এর অধিক):-
১. পর্তুগাল – ৮ বার
২.অার্জেন্টিনা- ৬ বার
৩.নেদারল্যান্ড এবং উরুগুয়ে- ৪ বার
৪. বুল্গেরিয়া,রোমানিয়া এবং ব্রাজিল -৩ বার
 
★যে লীগ এর হয়ে সর্বোচ্চ বার জিতছে এই এওয়ার্ড(৪ এর অধিক)
১.লা লীগা – ১৪ বার
২.প্রিমেইরা লীগ- ৭ বার
৩.ইংলিশ প্রিমিয়ার লীগ-৫ বার
 
উপরের সব কিছু দেখে এটা স্পষ্ট যে মেসি -রন ব্যালন এর মত এই এওয়ার্ড টাও নিজেদের সম্পত্তি করে পেলছেন। তারা ২ জনি ৯ বার এই এওয়ার্ড জিতছেন।তাছাড়া রনের ৪ বার জিতাটা দেশের হয়ে পর্তুগাল কে এগিয়ে রাখছে।তেমনি মেসির ৫ বার জিতাটা বার্সালোনা কে ক্লাব এর হয়ে এগিয়ে রাখছে।
অাবার ২ জন এর সম্মিলিত জিতাটায় লা লীগাকে অন্য লীগ এর চেয়ে দ্বিগুন এগিয়ে রাখছে এই এওয়ার্ড জয়ের ক্ষেত্রে। তাদের একচেটিয়া ডমিনেন্স এ ভাগ বসিয়ে ২ বার এই এওয়ার্ড জিতে নেন সুয়ারেজ।তবে এরপর অাবার মেসির জয়গান শুরু।গত ২ বার সে নিখুত ভাবে এই এওয়ার্ড নিজের করে নেন এবং অারেকবার জিতলে ইতিহাসের প্রথম প্লেয়ার হিসাবে টানা ৩ বার জয়ের কীর্তি গড়ে তুলবেন লিও মেসি। মেসির ধারাবাহিকতা জানান দিচ্ছে হয়তু অারো একবার এই এওয়ার্ড হাতে নিবেন কিও লিও।
এই সিজনের ধারুন পারফর্ম করেও পারলোনা সালাহ। তবে সবচেয়ে অাক্ষেপ বেশি হবে লেওয়ানদস্কির কারন প্রায় সিজনে ধারাবাহিক লীগ এ গোল করেও এই এওয়ার্ড টা এখনো হাতে তুলা হয়নি তাঁর। লুইস সুয়ারেজ রোনালদোর পর এই বছর ইপিএল থেকে কেন সালাহ যথেষ্ট ফাইট দিয়েছিল। তবে মেসির ধারাবাহিকতার কাছে হার মানলো সালাহ।
একজন মেসি ফ্যান হিসাবে সবসময় চাইবো এই এওয়ার্ড টা প্রিয় প্লেয়ার জিতুক।তারি প্রেক্ষিতে অামি চাই মেসি অারো একাধিকবার এই এওয়ার্ড জিতে নিজেকে ছাড়িয়ে যাক।

কমেন্টস

কমেন্টস

মন্তব্য করুন

3 × one =