আর্সেনাল ঝড়

আজ সন্ধ্যার পর থেকে ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানের উপর দিয়ে প্রবল ঝড় বয়ে যায়, তাণ্ডবে কেঁপে ওঠে প্রকৃতি। কিন্তু তার কিছুক্ষণ আগেই আরেক ঝড় বয়ে যায় নর্থ লন্ডনে। না, সেটা প্রাকৃতিক ঝড় নয়, ফুতবলীয় ঝড় । সৃষ্টি হয় আর্সেনালের মাধ্যমে আর সেই ঝড়ে বিধ্বস্ত হয় লিভারপুল। ১৪ দিন ইন্টারন্যাশেনাল ব্রেকের পর আজ আবার মাঠে গড়ায় ক্লাব ফুটবল। ইপিএল আর্লি কিকঅফে এমিরেটস স্টেডিয়ামে মুখোমুখি হয় আর্সেনাল এবং লিভারপুল। ৩ ম্যাচের নিষেধাজ্ঞা পাওয়া লিভারপুল দলের ২ জন গুরুত্বপূর্ণ প্লেয়ার জেরার্ড ও স্কারটেল ছিলেন এই ম্যাচে অনুপস্থিত। নিজেদের মাঠে খেলা তার সাথে দুর্দান্ত ফর্ম, সব মিলিয়ে খেলার শুরুটা ফেভারিটের মতোই করে আর্সেনাল। ৩ মিনিটের মাথায় গোল করার সুবর্ণ সুযোগ পান অ্যারন রামসে। কিন্তু কাজে লাগাতে পারেননি তিনি। এরপর উভয়পক্ষই ক্রমশ অ্যাটাক করে যায়। কখনো নিজেদের ব্যর্থতা, বা কখনো গোলকিপারের নৈপুণ্য, খালি হাতে ফিরিয়ে দেয় দল দুটির স্ট্রাইকার ও মিডফিল্ডারদের। খেলার যখন ৩৭ মিনিট, তখন লিভারপুলের ডিবক্সের ডানদিক থেকে ঢুকে বাম পায়ের জোরালো শটে আর্সেনালের পক্ষে প্রথম গোলটি করেন রাইটব্যাক হেক্টর বেয়েরিন।

গোলের পর বেয়েরিন
গোলের পর বেয়েরিন

লীগে এটি ছিল তার দ্বিতীয় গোল। গোল উদযাপনরত আর্সেনাল ফ্যানদের আনন্দ দ্বিগুণ হতে বেশি সময় নেয়নি। ৩ মিনিট পর ফ্রিকিক থেকে অসাধারণ একটি গোল করে ব্যবধান ২-০ করেন মেসুট ওজিল। ইঞ্জুরি থেকে ফেরা এই জার্মান মিডফিল্ডার দলের মতো নিজেও আছেন দারুণ ফর্মে।

CBwGIzaXIAA7Xss

প্রথমার্ধে আর্সেনালের গোল উৎসব এখানেই থেমে থাকেনি। অ্যাডিশনাল টাইমে আর্সেনালের তৃতীয় গোল করেন তাদের সিজনের সর্বোচ্চ গোলদাতা আলেক্সিজ সাঞ্চেজ। সিজনের ২০তম গোলটি করেন তিনি আজ।

CBv4JPvUAAA_Td9

৩-০ স্কোরলাইন নিয়ে দ্বিতীয়ার্ধটা ভালো শুরু হয়নি আর্সেনালের। ইঞ্জুরি ভয়ে বেশ আগেই মাঠ ছাড়েন ডিফেন্ডার কোশিয়েলনি এবং মিডফিল্ডার রামসে। তাদের বদলি হয়ে নামেন গ্যাব্রিয়েল এবং ফ্লেমিনি। লিভারপুলের হয়ে বদলি হয়ে নামেন ইংলিশ স্ট্রাইকার ড্যানিয়েল স্টারিজ। তবে খেলায় খুব একটা পরিবর্তন আনতে পারেননি এদের কেউই। ৭১ মিনিটে স্টারলিং এর একটি পেনাল্টি আবেদন রেফারি নাকচ করে দিলেও তার ৫ মিনিট পরই পেনাল্টি পায় লিভারপুল। ক্যাপ্টেন হেন্ডারসন স্পট থেকে গোল করে খেলার ব্যবধান কমিয়ে ৩-১ এ আনেন।

গোলের পর হেন্ডারসন
গোলের পর হেন্ডারসন

যে মুহূর্তে লিভারপুলের খেলায় ফেরার হালকা সম্ভাবনা দেখা যাচ্ছিলো, সেটাও যেন মুছে দেয় এমরে ক্যানের লাল কার্ড। ১০ জন নিয়ে শেষ ৭ মিনিট খেলা লিভারপুলের কফিনে শেষ পেরেকটি পুতে দেন আর্সেনাল স্ট্রাইকার অলিভিয়ের জিরু। মার্চ মাসের ইপিএল নির্বাচিত সেরা খেলোয়াড় ৬ লীগ ম্যাচে করেছেন ৬টি গোল। সিজনে মোট ১৮টি এবং লীগে ১৪টি গোল তার।

ছয়ে ছয় জিরুর
ছয়ে ছয় জিরুর

এর সাথে শেষ হয় আর্সেনাল লিভারপুলের মধ্যকার ম্যাচ ৪-১ ব্যবধানে। এই জয়ে আর্সেনাল ৬৩ পয়েন্ট নিয়ে উঠে যায় লীগের ২য় স্থানে, অন্যদিকে ৫৪ পয়েন্ট নিয়ে ৫ম স্থানে থাকা লিভারপুলের আগামী সিজন চ্যাম্পিয়নস লীগ ফুটবল খেলার স্বপ্ন আরেকটু ফীকে হয়ে গেলো।

কমেন্টস

কমেন্টস

মন্তব্য করুন

three × two =