আর্জেন্টিনা-ইকুয়েডর সম্ভাব্য ‘ম্যাচ ফিক্সিং’ সম্পর্কে আমার মতামত

আর্জেন্টিনা-ইকুয়েডর ম্যাচ ফিক্সিং সম্পর্কে আমার মতামত
::: আব্দুল্লাহ আল নোমান :::
রিসেন্ট সময়টা অার্জেন্টিনার জন্য মোটেও ভাল যাচ্ছেনা। প্রতিটা বিষয় দেখাচ্ছে নেগেটিভ। লাস্ট ২০-২৫ দিনে অর্থাৎ জাতীয় দলের বিশ্বকাপ ট্রেনিং শুরু হওয়ার পর থেকে অনেক নেগেটিভ জিনিশ অাসছে।এগুলা হল
*রোমেরোর ইন্জুরি
*অার্জেন্টিনা-ইসরাইল ম্যাচ ইস্যু।
*লানজিনির অাকস্মিক ইন্জুরি
*সাম্পাওলির যৌন হয়রানির অভিযোগ
*এবং রিসেন্ট অার্জেন্টিনা-ইকুয়েডর ম্যাচ ফিক্সিং।
 
প্রথম ৩ টা সম্পর্কে অামরা সবাই জানি এবং এগুলা মোটামুটি জানার ই কথা।
কিন্তু শেষ ২ টা নিয়া মানুষ কনফিউশন এ রয় গেছে। একদল ফ্যানবেজ ওই জিনিশটা সত্যি বলে ভাইরাল করতেছে এবং অারেকদল ফ্যানবেজ ডিফেন্ডিং এর সর্বোচ্চ চেষ্টা করতেছে।
 
অামরা অাধুনিকতার ছোয়া পেয়েও এখনো যে পিছিয়ে পড়া তার প্রমান হল অামরা এডিটেড পিক এও বিশ্বাস কইরা ভাইরাল করি। ফটোশপ এর এ যুগ এ যেমন ইচ্ছা তেমন পিক বানা যায়
অাবার ভ্যালিড সোর্স বা লিংক নামেও একটা বিষয় অাছে।
ওই ভ্যালিড সোর্স দিয়েই এখন সব কিছু সত্য-মিথ্যা নির্ধারন করা হয়।
 
ব্লেচার এর লগো সম্বলিত একটা পিক ভাইরাল হয়ছে যেখানে লিখা অাছে
” ইকুয়েডর এর এক প্লেয়ার স্বীকার করলো তারা অার্জেন্টিনা ম্যাচ এ ফিক্সিং করছিল”
হুমমম এটা দেখেই অামরা লাফাচ্ছি প্রচুর।
বাট সত্যটা উদঘাটন করে লাফায়লে অামাদেরো মুখ দেখাতে হত না…
প্রথম কথা এডিটেড পিক ছিল এটা
এবং অনেকে বলতেছে এটা ব্লেচার এ পোস্ট দিসে বাট অামার প্রশ্ন ব্লেচার পোস্ট দিলে ডিলেট দিবে কেন?
ওরা কি ছোট-খাটো সোর্স?
নাকি ২ দিন হল ওরা এগুলাতে অাসছে?
পোস্ট টা যদি সত্যিই হত ওরা ডিলেট করতোনা এবং ওই পিক এ একটা ভুল পাওয়া গেছে
ওখানে লিখা অাছে “Messis 1st and 3rd Goal”
এটা হবে Messi’s.
ব্লেচার এর মত একটা সোর্স এ এমন ভুল করে?
এবং অারেকটা বিষয় শুধু ব্লেচার এর লগো সম্বলিত পিক ই কেন অাসলে?
এরকম একটা নিউজ অন্যান্য সোর্স এ কেনো দিলো না?
ধারনা করা হচ্ছে এটা অামাদের রাইভাল কেও এডিট করে বানাইছে এবং ব্লেচার এর লগো ইউজ করছে
অথবা ইসরাইল এর এখানে কোন হাত অাছে কারন ওয়ার্ল্ড মিডিয়ায় ওদের ব্যাপক অাধিপাত্য অাছে….
এটা যে এডিটেড এটা না হয় বল্লাম বাট ব্যাপার টার সত্যটা কতটুক একটু বলি।
 
ইকুয়েডর-অার্জেন্টিনা ম্যাচ এ কোন প্রকার ফিক্সিং হওয়ার কথা ফিফাতে অাসে নাই।
এরকম কিছু হলে ফিফা অবশ্যই Investigation করতো এবং সর্বোপরি জানাজানি হত।
 
অনেকে বলতেছে ওদের ৫ জন প্লেয়ার কে অনির্দিষ্টকাল এর জন্য ব্যান করা হয়ছে…
এবং অনেকে Espn এর লিংক সহ অারো কিছু লিংক দিচ্ছে….
 
অামরা বাঙ্গালির একটা স্বভাব অাছে “বুঝি কম লাফায় বেশি”
অামরা নিউজ এর শিরোনাম এর ইংরেজী টা বুঝি
বাট বিস্তারিত পড়ার প্রয়োজন মনে করি না।
 
হুমম ইকুয়েডর এর ৫ জন প্লেয়ার কে ব্যান করা হয়ছিল কারন তারা ম্যাচ এর অাগেরদিন পার্টি তে গেছে এবং নেশাজাতীয় দ্রব্য সেবন করছে। এটা জানাজানি হওয়ার পর তাদের বোর্ড বলছে” বিশ্বকাপ কোয়ালিফায়িং এ অার্জেন্টিনার মত টিম এর ম্যাচ এর অাগে ওরা কখনো এরকম শৃঙ্খলাভঙ্গকারী কাজ করতে পারে না। যেহেতু তারা করছে তাদের কে অনির্দিষ্টকালের জন্য জাতীয় দলে বহিষ্কার করা হল”
৫ জন প্লেয়ার পরে দুঃখও প্রকাশ করছে তাদের এ কাজের জন্য।
তো এখন কি বুঝা গেল?
ফিক্সিং এর কারনে ব্যান নাকি শৃঙ্খলাভঙ্গ?
হুম Espn এর লিংকটায় দিচ্ছি যেখানে স্পষ্ট করে সব লিখা অাছে
পড়ে নিয়েন অাশা করি ব্যাপার টা ক্লিয়ার হবেন।
 
http://www.espn.in/football/ecuador/story/3227941/ecuador-fa-suspends-five-players-after-reports-of-pre-argentina-party
 
এডিটেড জিনিশের ক্রিয়ার সাথে প্রতিক্রিয়াও হয়😂😂😂😂😂
অাজ দেখলাম একই ভাবে ব্লেচার এর লগো সম্বলিত একটা পিক যেখানে লিখা অাছে
” ২০১৩ সালে বিশ্বকাপ বাছাই পর্বের প্লে অফ ম্যাচ এ সুইডেন পর্তুগাল এর ম্যাচ স্পট ফিক্সিং হয়ছিল এবং একজন সুইডিশ প্লেয়ার সেটা স্বীকার করছে”
খুব অবাক লাগছে না?
এটাও ব্লেচার এর কোথাও নাই কারন এগুলা ব্লেচার এর পোস্ট ই না
ওদের লগো এডিট করে বসানো
 
পিক টা পোস্ট এ দিসি দেখে নিয়েন।
 
এডিটেড জিনিশ নিয়া লাফায়লে যা হয় অার কি…..
এটাও এডিট
কারন এরকম কিছু হয় নায় সবাই জানে।
২ টায় একই রকম ঘটনা। এখন কি ২ টা পিকেই বিশ্বাস করবেন?
নাকি বুঝতে পারছেন এডিটেড পিক কাকে বলে?
 
এ ক্ষেত্রেও বলা যায়
সেম টাইম এডিট টা বদলা নিয়ার জন্য অামাদের কেও করছে অথবা এখানেও ইসরাইল রে সন্দেহ করতেছি কারন তারা অতিমাত্রায় চালাক….
তারা এটা করে প্রমান করতে চাইবে তারা কিছুই করে নি।
 
অাশা করি এডিটিং লেবেল, ম্যাচ ফিক্সিং,প্লেয়ার ব্যানড এর ব্যাপার টা খুব ক্লিয়ার….
 
এখন অাসি সাম্পাওলির বিষয়ে….
সাম্পাওলির বিরুদ্ধে অভিযোগ অাছে সে রান্না করার একজন মহিলাকে যৌন হয়রানি করছে।
 
হা এটা জানার সাথে সাথে অামরা ভাইরাল করছি…..
 
এই অভিযোগ টা অাসে টুইটারে এবং অাকস্মিক ভাবে ১ ঘন্টার মধ্যে সব টুইট ডিলেট দেখা যায়।
সত্য ঘটনা হলে টুইট কেন ডিলেট হবে?
কিন্তু এরি মাঝে অার্জেন্টিনা মিডিয়ায় এটা তোলপাড় সৃষ্টি করে….
 
অার্জেন্টিনা টিম এর সাথে বরাবরি খারাপ সম্পর্ক অার্জেন্টাইন মিডিয়ার।
তারা ২০১৬ সালেও কোপা অামেরিকা চলাকালীন লাভেজ্জির বিরুদ্ধে ড্রাগ নিয়ার অভিযোগ অানে এবং পরে ভুল প্রমানিত হয়।
এই সময় অার্জেন্টিনা টিম এর সাথে মিডিয়ার ১ বছরের জন্য সম্পর্ক ছিন্ন হয়।
 
এবারো একইরকম ঘটনা……
ঘটনা ভাইরাল হওয়ার পর প্রমানিত হয়ছে সাম্পাওলি নির্দোষ। এমন কিছু হয় নি।
পুলিশি তদন্ত চলছে এবং ওখানে সে নির্দোষ প্রমানিত হয়ছে।
সাম্পাওলি বলছেন ” এটা পুরোপুরি পাগলামি এবং অর্থহীন কথা। অামাদের পিছু লেগেছে অনেকে অামাদের ক্ষতি করে মানসিক ভাবে দূর্বল করার জন্য”
এবং এটাও জানা গেছে মেয়েটা কোন প্রকার অভিযোগ অানে নি কারো নাম এ
 
এ বিষয়টা সম্পর্কে অারে ক্লিয়ার হতে নিম্নোক্ত লিংক এ গিয়ে পড়ে অাসুন।https://www.google.com/amp/argentina.topnews.cloud/mundial2018-sampaoli-aware-of-the-rumors-of-sexual-harassment-evaluates-to-initiate-legal-actions/amp/
 
সুতরাং এগুলাতে কি প্রমান হল?
হুদায় অার্জেন্টিনা কে ব্লেইম দিয়ার কারন টা বুঝতেছিনা এখনো।
ব্লেইম ও দিচ্ছে অাবার অামরা এডিটেড জিনিশ নিয়া লাফাচ্ছিও।
লিংক, সোর্স এর যুগ এ ফটোশপ অামাদের বোকা বানিয়ে চলে যাচ্ছে…..
 
যারা যারা এ বিষয়টা জানতেন না তারা বিষয়টা জেনে রাখুন
এবং যারা এডিটেড জিনিশ নিয়া খুশি হয়ছিলেন তারাও ক্লিয়ার হয়ে নিন….

কমেন্টস

কমেন্টস

মন্তব্য করুন

nineteen + 4 =