আম্পায়ার-অভিষেকের কথকতা

টনি হিল ২০০১
শওকাতুর রহমান ২০০১
এএফএম আখতারউদ্দিন ২০০১
মাহবুবুর রহমান ২০০২
আলিম দার ২০০৩
জেরেমি লয়েড ২০০৪
মার্ক বেনসন ২০০৪
আসাদ রউফ ২০০৫
কৃষ্ণা হরিহরণ ২০০৫
নাদিম ঘৌরি ২০০৫
সুরেশ শাস্ত্রী ২০০৭
নাইজেল লং ২০০৮
ইয়ান গুল্ড ২০০৮
মারাইস ইরাসমাস ২০১০
রড টাকার ২০১০
রিচার্ড ইলিংওয়ার্থ ২০১২
সুন্দরম রবি ২০১৩
জোয়েল উইলসন ২০১৫

* এই ভদ্রলোকেরা সবাই টেস্ট আম্পায়ার। সবারই টেস্ট অভিষেক বাংলাদেশকে দিয়ে। টেস্ট ক্রিকেটে ১৫ বছরে বাংলাদেশের ম্যচে অভিষেক হয়েছে ১৮ জন আম্পায়ারের।
** ইহা একটি নির্দোষ এবং নির্ভেজাল স্ট্যাট। নাথিং এলস। মাঠে ঘটনার ঘনঘটা নেই, তাই প্রেসবক্সে অলস সময়ের অপব্যবহার। ইহাকে বাংলাদেশ ক্রিকেটের বিরুদ্ধে আইসিসি এবং বিশ্ব ক্রিকেটের ষড়যন্ত্র মনে করিবার কারণ নাই। বাংলাদেশ টেস্ট র‌্যাঙ্কিংয়ের তলানির দল তথা ছোট দল। নতুন আম্পায়ারদের নার্ভ হ্যান্ডেল করাতে বেশির ভাগ সময়ই ছোট দলের ম্যাচ দিয়েই শুরু করানো হয়। হওয়া উচিতও আমার মতে।

লেখকের ফেইসবুক স্ট্যাটাস অবলম্বনে…

কমেন্টস

কমেন্টস

মন্তব্য করুন

two + fourteen =