অবশেষে সেল্টার মাঠে জয় পেলো বার্সা

লা লীগায় নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে আনসু ফাতি,সার্জি রবার্তো এবং সেল্টা ভিগোর আত্মঘাতী গোলে ০-৩ গোলের বড় জয় নিয়ে মাঠে ছেড়েছে বার্সেলোনা।

সেল্টা ভিগোর মাঠ এস্তাদিয়ো ডি ব্যালেয়দোস যেন অভিশাপ হয়ে ছিল এতদিন বার্সার জন্য। এখানে পয়েন্ট খোয়ানো রীতিমত নিয়ম হয়ে গিয়েছিল বার্সার। তবে সেই অভিশাপ থেকে মুক্তি পেয়েছে কোম্যানের দল। প্রথম ম্যাচের অপরিবর্তিত একাদশ নিয়েই মাঠে নামে স্প্যানিশ ক্লাবটি।১০ মিনিটে সার্জিও বুস্কেটসের বাড়িয়ে দেয়া বল সেল্টার ডিফেন্ডারের পায়ে লেগে চলে যায় কৌতিনহোর কাছে। কৌতিনহোর পাস দুর্দান্ত প্রথম টাচে রিসিভ করেই জাত স্ট্রাইকারের মত ফিনিশিং দিয়ে ম্যাচের প্রথম এবং এবারের লা লীগায় নিজের তৃতীয় গোল করেন ১৭ বছর বয়সী বিস্ময়বালক আনসু ফাতি।

২২ মিনিটে বার্সা ডিফেন্ডার লংলের হলুদ কার্ডের পর ৩৪ মিনিটে ডেনিস সুয়ারেজকে বাধা দিয়ে লাল কার্ড দেখেন জেরার্ড পিকে। তবে ডেনিস অফসাইডে থাকায় বেঁচে যান পিকে। বাতিল হয় লাল কার্ড। এর মিনিট সাতেক পরে আবারো ডেনিস সুয়ারেজকে বাধা দিতে গিয়ে ফাউল করেন লংলে। রেফারি তাকে দ্বিতীয় হলুদ কার্ড দেখিয়ে মাঠ ছাড়ার নির্দেশ দিয়ে দেন। তবে তার দ্বিতীয় হলুদ কার্ডটি নিয়ে বিতর্ক হতে পারে। ফাউল ছিল নিশ্চিত, তবে দ্বিতীয় হলুদ কার্ড চাইলে নাও দিতে পারতেন রেফারি। ১০ জনের দলে পরিণত হয় বার্সা। সেন্টার ব্যাক আরাউহোকে জায়গা করে দিতে উঠিয়ে নেওয়া হয় গ্রিজম্যানকে।

১০ জনের দল হলেও দ্বিতীয়ার্ধের শুরু থেকেই আক্রমণাত্মক ফুটবল খেলতে থাকে বার্সেলোনা। ৫ মিনিট পরেই ফেলিপে কৌতিহোর পাস থেকে বল নিয়ে প্রতিপক্ষ ডিফেন্ডারদের পিছনে ফেলে শট নেন লিওনেল মেসি। সেল্টা ভিগোর ওলাজার পায়ে লেগে বল চলে যায় জালে। ২ গোলে এগিয়ে যায় বার্সা।

৫৮ মিনিটে কৌতিনহোর শট বারে লেগে ফিরে আসলে ফিরতি শটে গোল করেন মেসি। তবে অফসাইডের কারণে বাতিল হয়ে যায় তার গোল।৭০ মিনিটে কৌতিনহো এবং আনসু ফাতিকে উঠিয়ে ফ্রান্সিস্কো ট্রিনকাও আর পেদ্রিকে মাঠে নামান রোনাল্ড কোম্যান। ৭৩ মিনিটে সেল্টার বায়েজার শট বারে লাগলে গোলবঞ্চিত হয় সেল্টা ভিগো। দ্বিতীয়ার্ধে বার্সার ত্রাতা হয়ে ছিলেন সার্জি রবার্তো। পিকেও ভাল পারফর্ম করেন আজকে। ম্যাচের অতিরিক্ত সময়ের শেষ মিনিটে মেসির নেওয়া শট ফিরিয়ে দেন সেল্টা গোলরক্ষক। বল পেয়ে যান ডিবক্সে দাঁড়ানো রবার্তো। জোরালো শটে গোলপোস্টের টপ কর্নারে বল পাঠিয়ে ম্যাচের তৃতীয় গোলটি করেন সার্জি রবার্তো।

ম্যান অফ দ্যা ম্যাচ হয়েছেন বার্সার ব্রাজিলিয়ান মিডফিল্ডার ফেলিপে কৌতিনহো।

কমেন্টস

কমেন্টস

মন্তব্য করুন

three × 1 =